kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ইতিহাসের বৃহত্তম হ্যাকিং ঘটনায় নিরাপদ থাকবেন যেভাবে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১২:২৭



ইতিহাসের বৃহত্তম হ্যাকিং ঘটনায় নিরাপদ থাকবেন যেভাবে

ইতিহাসের বৃহত্তম হ্যাকিংয়ের শিকার হয়েছে ইয়াহু। এ নিয়ে ব্যাপক দুশ্চিন্তায় রয়েছেন ইয়াহু ব্যবহারকারীরা।

কিছু দিন আগেই বলা হয়েছিল, ২০০ মিলিয়ন ব্যবহারকারীর তথ্য চুরি করে ডার্ক ওয়েবে বিক্রি করে দেওয়া হয়েছে। অন্য এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ৫০০ মিলিয়ন ইয়াহু অ্যাকাউন্ট হ্যাকিংয়ের শিকার হয়েছে। কোনো ই-মেইল সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানের জন্য এটাই সবচেয়ে বড় হ্যাকিংয়ের ঘটনা।

শুধু হ্যাকিংয়ের ঘটনাই নয়, বাণিজ্যিক ঝামেলাতেও পড়েছে ইয়াহু। প্রতিষ্ঠানটি ৪.৮ বিলিয়ন ডলারে বিক্রি হয়ে যাচ্ছিল ভেরিজনের কাছে। এমন সময় এ হ্যাকিং ঘটনার খবর প্রকাশ হয়। ইতিমধ্যে ইয়াহু বিক্রির পরিকল্পনা বন্ধ রেখেছেন সিইও মারিসা মেয়ার।

এখন প্রশ্ন হলো, নিজেকে নিরাপদ করবেন কিভাবে? এ সম্পর্কে জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

কি চুরি হয়েছে?
ইয়াহু জানায়, ব্যবহারকারীর নাম, ই-মেইল ঠিকানা, টেলিফোন নম্বর, জন্ম তারিখ, পাসওয়ার্ড এবং এনক্রিপ্টেড বা আনইনক্রিপ্টেড সিকিউরিটি সংক্রান্ত প্রশ্নের উত্তর চুরি হয়ে গেছে।

কি চুরি হয়নি?
১. অনিরাপদ পাসওয়ার্ড, পেমেন্ট কার্ড ডেটা বা ব্যাংক অ্যাকাউন্ট সংক্রান্ত তথ্য।

২. ইয়াহু জানায়, ব্যাংক অ্যাকাউন্ট বা পেমেন্ট কার্ডের কোনো তথ্য সিস্টেমে রাখা হয়নি।

টাম্বলারও কি আক্রমণের শিকার হয়েছে?
১. যে সময় হ্যাকিংয়ের ঘটনা ঘটেছে সে সময় সিস্টেমে টাম্বলারের কোনো তথ্য ছিল না বলে জানায় ইয়াহু।

২. তবে অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ড বদলে ফেলা সব সময় নিরাপদ উপায়।

এখন প্রথমেই কি করতে হবে?
১. প্রথমেই পাসওয়ার্ড বদলে ফেলুন।

২. ইয়াহু এর সঙ্গে যদি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট বা ক্রেডিট কার্ডের তথ্য জুড়ে দেন তবে এগুলো দেখে নিরাপদ করুন।

৩. ইয়াহু ইতিমধ্যে আক্রান্ত ব্যবহারকারীদের আনইনক্রিপ্টেড সিকিউরিটি প্রশ্ন এবং তার উত্তরগুলো বাতিল করে দিয়েছে। কাজেই এদের মাধ্যমে আর অ্যাকাউন্টে প্রবেশ করা যাব না। তাই এগুলোও বদলে ফেলুন।

৪. যারা ২০১৪ সাল থেকে অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ড বদলাননি তাদের এখোনি বদলে ফেলা দরকার।

৫. অ্যাকাউন্টে লগ ইন করতে গেলে সিকিউরিটি নোটিশ পাবেন। সেখানে নিরাপত্তা সংশ্লিষ্ট তথ্য বদলে ফেলার কথা বলা হবে।

৬. অ্যাকাউন্টের কোনো সন্দেহজনক ঘটনা ঘটছে কিনা তা খেয়াল রাখতে হবে।

৭. আপানার ব্যক্তিগত তথ্য চায় বা কোনো ওয়েবসাইটে দিতে বলে এমন কোনো ই-মেইল বা লিঙ্ক দেখলে তা স্পাম করে দিন।

৮. অচেনা কারো পাঠানো লিঙ্কে ক্লিক করবেন না বা সেখান থেকে কিছু ডাউনলোড করবেন না।

এক পাসওয়ার্ড সব অ্যাকাউন্টে ব্যবহার করবেন না। এতে সব অ্যাকাউন্ট হুমকির মুখে পড়বে। প্রত্যেক অ্যাকাউন্টের জন্য পৃথক পাসওয়ার্ড ব্যবহার করুন।
সূত্র : গ্যাজেট নাও

 


মন্তব্য