kalerkantho


ইয়াহুর ২০০ মিলিয়ন গ্রাহকের তথ্য চুরি, বেচে দেওয়া হয়েছে ডার্ক ওয়েবে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১১:৫৬



ইয়াহুর ২০০ মিলিয়ন গ্রাহকের তথ্য চুরি, বেচে দেওয়া হয়েছে ডার্ক ওয়েবে

এক ঐতিহাসিক হ্যাকিংয়ের ঘটনার জানান দিতে প্রস্তুতি নিচ্ছে ইয়াহু। 'রিকোড' এক প্রতিবেদনে জানায়, এই হ্যাকিংয়ের ঘটনায় ২০০ মিলিয়ন ব্যবহারকারী ঝুঁকিতে রয়েছেন।

আগস্টে 'মাদারবোর্ড' এর জোসেফ কক্স এক প্রতিবেদনে জানায়, ইয়াহুর সেবা গ্রহণকারী ২০০ মিলিয়ন মানুষের যাবতীয় তথ্য বেচে দেওয়া হয়েছে ডার্ক ওয়েবে। সেই সময় ইয়াহু কেবল জানায়, এ বিষয়টি তারা খতিয়ে দেখছে।

প্রযুক্তি দুনিয়ার খ্যাতিমান সাংবাদিক কারা সুইশার সংশ্লিষ্ট বিষয়ে প্রতিবেদন করছেন রিকোডের হয়ে। অবশেষে ইয়াহু এই ঘটনার আনুষ্ঠানিক বিবৃতি দিতে প্রস্তুতি নিচ্ছে। তবে আগেই কোনো মন্তব্য করতে রাজি হয়নি ইয়াহু।

এক হ্যাকার মাদারবোর্ডকে জানান যে, তথ্যগুলো ৩ বিটকয়েনে (যার মূল্যমান ১৮৬০ ডলার) বিক্রি করে দিয়েছেন। এ ঘটনা ঘটে ২০১২ সালে। বিষয়টি কখনোই মানুষের সামনে আসেনি। ইয়াহু ব্যবহারকারীদের এসব তথ্যের মধ্যে রয়েছে ইউজার নেম, একক্রিপ্টেড পাসওয়ার্ড, জন্ম তারিখ এবং ই-মেইল ঠিকানা।

এত বিপুল পরিমাণ ব্যবহারকারীর তথ্য ফাঁসের ঘটনাটি ইতিহাসে স্থান করে নিয়েছে। এই হ্যাকিংয়ের ঘটনায় লিঙ্কডইন, মাইস্পেস এবং টাম্বলার পর্যন্ত ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে। যদি ব্যবহারকারীদের পাসওয়ার্ড ঠিকমতো এনক্রিপ্টেড না করা হয়, তবে হ্যাকাররা ব্যবহারকারীর অ্যাকাউন্টে প্রবেশ করতে পারবেন।

ইতিমধ্যে এলিট ব্যবহারকারীদের নিয়ে বেশ সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে। সেলিব্রিটি, রাজনীতিবিদ বা ব্যবসায়ীসহ অনেকে দারুণ দুশ্চিন্তায় রয়েছেন। মার্ক জাকারবার্গ এবং ডেরেকের মতো পাবলিক ফিগারের টুইটার অ্যাকাউন্ট হ্যাকিংয়ের শিকার হয়েছে।

ইয়াহুর জন্য খুব খারাপ সময় যাচ্ছে। বিশেষ করে ইয়াহু তার ব্যবহার মূল অংশ ভেরিজনের কাছে ৪.৮ বিলিয়ন ডলারে বিক্রি করছে। এমন সময় হ্যাকিংয়ের ঘটনায় আরো বিপাকে পড়েছে তারা।

সাধারণ ব্যবহারকারীরা এমন সমস্যা সামাল দিতে পারবেন না। তবে দারুণ শক্তিশালী পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে নিরাপত্তা মিলতে পারে।
সূত্র : বিজনেস ইনসাইডার

 


মন্তব্য