kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


সময়কে আটকে দেবে ‘টাইম টার্নার’

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৯:২৩



সময়কে আটকে দেবে ‘টাইম টার্নার’

কোন কিছুর জন্য অপেক্ষায় থাকলে মনে হয় আহা, সময়কে যদি একটু দ্রুত চালিয়ে নেওয়া যেত! কিংবা প্রিয় মানুষের সান্নিধ্যে থাকার সময় মনে হয় সময়টুকু যদি আর শেষ না হতো..! এসবই তো কল্পনা। সময়কে আটকে দেওয়ার ক্ষমতা কারও নেই।

তবে একটি ছবির ফ্রেমেই আটকে যেতে পারে সময়! আর সেটি করে দেখিয়েছে ফ্রেমটি হেরমিওনি গ্র্যানজার নামে একটি সংস্থা।

সংস্থাটি জানিয়েছে তারা যে ছবির ফ্রেম তৈরি করেছে এটি দিয়ে সময়কে আটকে দিতে পারবে। তারা এই গেজটটির নাম দিয়েছে টাইম টার্নার। টাইম টার্নারে ব্যবহার করা হয়েছে ‘স্লো ড্যান্স’ নামে এক প্রযুক্তি। আপনি বাস্তবে যে বিষয়টি দেখছেন তাকে স্লো মোশনে উপস্থাপন করবে। আর এতেই সময় স্লো হয়ে যাওয়ার অনুভূতি তৈরি করবে মানুষের মনে।

স্লো ড্যান্সের আবিষ্কর্তা জেফ লিবারম্যান। তিনি স্লো মোশন প্রযুক্তির সুপরিচিত নাম। তিনি ডিসকভারি চ্যানেলের ‘টাইম ওয়ার্প’ প্রোগ্রামের প্রাক্তন উপস্থাপক। তিনি এ অনুষ্ঠানে হাইস্পিড ক্যামেরায় দৈনন্দিন নানা কার্যক্রমকে উপস্থাপন করতেন। যার অনেকগুলোই আবার প্রতি সেকেন্ডে ৪০ হাজার ফ্রেমে ধারণ করা (সাধারণ ক্যামেরা সেকেন্ডে প্রায় ৩০টি ফ্রেম ধারণ করে)। এ ফ্রেমগুলোকে অত্যন্ত স্লো মোশনে উপস্থাপন করে মানুষের মনের মাঝে সময় ধারণার পরিবর্তন আনা সম্ভব।

লিবারম্যান জানান, অত্যন্ত স্লো মোশনে কোনো বস্তু পর্যবেক্ষণ করলে তা বেশ মজার ঘটনা ঘটায়। এতে বিভিন্ন মুহূর্তের অসাধারণ দৃশ্য উপভোগ করা যায়। আর এ বিষয়টিই তিনি তার স্লো ড্যান্সে তুলে ধরেছেন। এতে তিনি দ্রুত আলো জ্বলানো ও নেভানো ব্যবহার করেছেন, যা প্রতি সেকেন্ডে ৮০বার এ কাজটি করে। আর সেখানে ব্যবহৃত হয়েছে কম্পন ও অ্যানিমেশন। আলো ও উচ্চমাত্রায় কম্পন কোনো চলমান ছবির ওপর ফেলে মানুষের দৃষ্টিতে একটি বিভ্রান্তি তৈরি করা হয় এ ফ্রেমে। আর এতেই সময় ধীরে বয়ে যাওয়ার অনুভূতি তৈরি হয় মানুষের মনে। স্লো ড্যান্স এর যে ফ্রেমটি এখন তিনি বানিয়েছেন তার আকার ১২.৫ বাই ১৪.৫ ইঞ্চি। হালকা কোনো বস্তু এ ফ্রেমের ভেতর রাখা যায়। সে বস্তু পরবর্তীতে বিশেষ আলো ও অন্যান্য কৃত্রিম পরিস্থিতির কারণে মানুষের চোখে বিশেষ রূপে ধরা পড়ে।

বর্তমানে এ ফ্রেমটি অত্যন্ত ব্যয়বহুল হলেও তা ব্যাপক উৎপাদনের মাধ্যমে স্বল্পমূল্যে বিক্রির পরিকল্পনা করছে সংস্থাটি। এ জন্য বর্তমানে ৪ লাখ ৪০ হাজার ডলার সংগ্রহের চেষ্টায় করছেন। অর্থ সংগ্রহ হলে বাণিজ্যিকভাবে পণ্যটি উৎপাদন করতে পারবে তারা। আর সেক্ষেত্রে এ ধরনের প্রতিটি ফ্রেমের দাম পড়বে ২৯৯ ডলার।


মন্তব্য