kalerkantho


'ইউটিউব আসলে ছিল একটি ডেটিং সাইট'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ মার্চ, ২০১৬ ১১:২৮



'ইউটিউব আসলে ছিল একটি ডেটিং সাইট'

ইউটিউব মানেই ভাইরাল ভিডিও, লাইভ গেমিং এবং মিলিয়নিয়ার ওয়েব। কিন্তু এগুলোর কথা ভুলে যান। কারণ, ইউটিউবের আসল উদ্দেশ্য ছিল ব্যবহারকারীদের ভালোবাসার সন্ধান দেওয়া।

এমনটাই বললেন গুগলের এই ভিডিও প্লাটফর্মের সহ প্রতিষ্ঠাতা স্টিভ চেন। তিনি জানান, একটি ডেটিং সাইট হিসাবে আত্মপ্রকাশ করে ইউটিউব। আমরা সব সময় ভেবেছিলাম ভিডিও দিয়ে কিছু একটা হবে। তাহলে আসল অ্যাপ্লিকেশনটা কি হতে পারে? তবে শেষ পর্যন্ত ডেটিং সাইট হিসাবেই ইউটিউবের কথা চিন্তা করা হয়।

চেন আজকের বহু জনপ্রিয় ইউটিউবের সৃষ্টি মূল ধারণার কথা তুলে ধরেন। বলেন, একজন মানুষ তার ভিডিওর মাধ্যমে নিজের পরিচয় তুলে ধরবে ইউটিউবে। এর মাধ্যমে তিনি কেমন সঙ্গী-সঙ্গিনী চান বা পছন্দের বৃত্তান্ত দেবেন। এমন ধারণা থেকেই ইউটিউবের জন্ম। এমনকি এই সাইটের ডোমেন রেজিস্ট্রেসন হয় এক ভ্যালেন্টাইন ডে'তে। তিন সহ প্রতিষ্ঠাতা মিলে ফেব্রুয়ারির ১৪ তারিখে ইউটিউব চালু করেন। তখন নিজেদের সাইটে তারা ৩ জনই ছিলেন। কাজেই তেমন কিছুই করার ছিল না।

চালুর পরবর্তী ৫ দিনের মধ্যে একটি ভিডিও কেউ আপলোড করলো না। হতাশ হয়ে তারা ঠিক করলেন, ডেটিংয়ের বিষয়টি ভুলে যেতে হবে। এটাকে যেকোন ধরনের ভিডিও আপলোডের জন্যে পরিচয় ঘটানোর সিদ্ধান্ত নিলেন তারা।

আর সিদ্ধান্তটা যে পুরোপুরি সঠিক ছিল তা এখন বলাই যায়। ২০০৬ সালে একে গুগল কিনে নেয় ১.৬ বিলিয়ন ডলারে। প্রতিমাসে ১ বিলিয়ন ভিজিটর এখানে ভিডিও দেখেন। সম্প্রতি বিজ্ঞাপনবিহীন সাবস্ক্রিপশন মডেল বানানো হয়েছে। এর নাম ইউটিউব রেড। এতে সব অরিজিনাল ভিডিও দেওয়া হবে।

সম্প্রতি চেন এবং সাবেক ইউটিউব অ্যালাম ভিজে করুণামূর্তি তাদের নতুন ভিডিও স্টার্টআপ 'নম' এর প্রচারে নেমেছেন। একটি লাইভ-স্ট্রিমিং অ্যাপ চালু করা হয়েছে। এর মাধ্যমে সেলিব্রিটি এবং রেস্টুরেন্ট সংশ্লিষ্ট যেকোনো বিষয় আপলোড করা যাবে। সূত্র : ফক্স নিউজ

 


মন্তব্য