kalerkantho

বাণিজ্যমন্ত্রী বললেন

৩৫ লাখ মেট্রিক টন উদ্বৃত্ত আলু রপ্তানি করা হবে

বাণিজ্য ডেস্ক   

১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দেশে এখন প্রয়োজনের অতিরিক্ত ৩৫ লাখ মেট্রিক টন আলু উৎপাদিত হচ্ছে। এ আলু কোল্ড স্টোরেজে সংরক্ষণ করা হলেও এর উপযুক্ত মূল্য পাচ্ছে না কৃষক। তাই চাহিদার অতিরিক্ত উৎপাদিত আলু বিদেশে রপ্তানির ব্যবস্থা করা হবে বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

রাজধানীর একটি হোটেলে গতকাল শনিবার বাংলাদেশ কোল্ড স্টোরেজ অ্যাসোসিয়েশনের ৪৬তম বার্ষিক সাধারণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের দেশে আলুর ব্যবহার সীমিত। ভাতের পরিবর্তে আলুর ব্যবহার বৃদ্ধি করা গেলে দেশ উপকৃত হতো। বিশ্বের অনেক দেশে বাংলাদেশের উৎপাদিত আলুর চাহিদা আছে। তবে বিশ্বের চাহিদার সঙ্গে মিল রেখে মানসম্পন্ন আলু উৎপাদন করতে হবে।’

বিক্রয়ের অভাবে আলু নষ্ট হওয়ায় কৃষক ও কোল্ড স্টোরেজের মালিকও ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে উল্লেখ করে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, আলু যাতে দেশের একটি মূল্যবান কৃষিপণ্যে পরিণত হয় সে বিষয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় কাজ করছে। সংশ্লিষ্ট সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।

টিপু মুনশি বলেন, বাংলাদেশে উৎপাদিত আলু বিশ্ববাজারে গ্রহণযোগ্য করে উৎপাদনের জন্য গবেষণা করা হবে। উৎপাদিত আলুর সর্বোত্তম ব্যবহার নিশ্চিত করা হবে। সরকার আলু উৎপাদন ও রপ্তানিতে বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে যাচ্ছে। সংগত কারণে দিন দিন দেশে আলুর উৎপাদন বাড়ছে। আলু রপ্তানিতে নগদ আর্থিক সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। বাংলাদেশ কোল্ড স্টোরেজ অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মো. মোশারফ হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রথম ভাগে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি মো. সফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন।

মন্তব্য