kalerkantho


বেসরকারি উদ্যোক্তাদের এগিয়ে আসার আহ্বান পর্যটন বিকাশে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০



বেসরকারি উদ্যোক্তাদের এগিয়ে আসার আহ্বান পর্যটন বিকাশে

আইসিসিবি ফুড অ্যান্ড হসপিটালিটি বাংলাদেশ এক্সপোতে পণ্য দেখছেন দর্শনার্থীরা। ছবি : কালের কণ্ঠ

দেশে পর্যটনের বিকাশে বেসরকারি খাতকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ। গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর বসুন্ধরা আন্তর্জাতিক কনভেনশন সিটিতে (আইসিসিবি) তিন দিনের ‘ফুড অ্যান্ড হসপিটালিটি বাংলাদেশ এক্সপো-২০১৯’-এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

সাইফুজ্জামান চৌধুরী বলেন, এই খাতটি নিয়ে আরো অনেক কাজ করার আছে। পর্যটনের বিকাশে সরকারের দায়িত্ব আছে। তবে বেসরকারি খাতের ভূমিকাও গুরুত্বপূর্ণ। বেসরকারি খাতের সহায়তা ছাড়া এটা সম্ভব না।

এ প্রদর্শনী প্রতিবছর হওয়া দরকার মন্তব্য করে তিনি ব্যবসায়ীদের উদ্দেশ্যে বলেন, এ ধরনের প্রদর্শনীতে আন্তর্জাতিক মহলকে আমন্ত্রণ জানান। বাংলাদেশ উন্নয়নের পথে এগিয়ে যাচ্ছে। এ জন্য বাংলাদেশের প্রতি বিদেশিদের আগ্রহ আছে, তারা বাংলাদেশ ঘুরে দেখতে চায়। আমাদের দায়িত্ব তাদের সেই সুযোগ করে দেওয়া।

ভূমিমন্ত্রী জানান, এ ধরনের প্রদর্শনী শুধু ঢাকা নয়, ঢাকার বাইরেও করা উচিত। বিদেশে এ ধরনের প্রদর্শনী আয়োজনের পরিকল্পনার কথা শুনে মন্ত্রী আয়োজকদের প্রশংসা করেন। একই সঙ্গে আরো বেশিসংখ্যক বিদেশিদের এ ধরনের অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানোর জন্য আয়োজকদের পরামর্শ দেন। মন্ত্রী মনে করেন বিনিয়োগ সম্প্রসারণে পারস্পরিক সম্পর্ক এবং বোঝাপড়া খুব গুরুত্বপূর্ণ।

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মহিবুল হক, বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের চেয়ারম্যান আখতারুজ জামান খান কবির, বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল হোটেল অ্যাসোসিয়েশনের উপদেষ্টা নূর আলী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল হোটেল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি এইচ এম হাকিম আলী। প্রদর্শনীতে বাংলাদেশ, ভারত, মালয়েশিয়া, মেসিডোনিয়া, থাইল্যান্ড, চীন, ইতালি এবং স্পেনের ১৫০টি ব্র্যান্ড, ২০০ জন আন্তর্জাতিক প্রতিনিধি অংশ নিচ্ছেন।

দেশের পর্যটনশিল্পকে ভিন্ন মাত্রা দিতে বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের তত্ত্বাবধানে প্রথমবারের মতো এ ফুড অ্যান্ড হসপিটালিটি বাংলাদেশ এক্সপোর আয়োজন করেছে বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল হসপিটালিটি অ্যাসোসিয়েশন (বিহা) এবং ওয়েম বাংলাদেশ লিমিটেড।



মন্তব্য