kalerkantho


নতুন স্থপতিদের পরিকল্পনায় আধুনিকায়ন হবে প্রতিটি বিমানবন্দর

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০



নতুন স্থপতিরা ভবিষ্যতের অগ্রদূত। তাঁরা তাঁদের চেতনায় দেশপ্রেমকে ধারণ করে সামনে এগিয়ে যাবেন। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তুলতে অর্জিত স্থাপত্যবিদ্যার ব্যবহার করবেন।

গতকাল রবিবার রাজধানীর ধানমণ্ডির ইএমকে সেন্টারে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থাপত্যবিদ্যা বিভাগের শিক্ষার্থীদের বিমানবন্দরের মডেল প্রদর্শনী উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী এ কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, নতুন স্থপতিদের পরিকল্পনায় স্থাপিত প্রতিটি বিমানবন্দর হবে প্রকৃতি ও স্থাপত্যশৈলীর মেলবন্ধন। প্রতিটি স্থাপনার সঙ্গে প্রকৃতির সহাবস্থান নিশ্চিত করতে হবে।

তিনি বলেন, ‘আমরা উন্নত হব, বিকশিত হব; কিন্তু আমরা আমাদের শিকড় ভুললে চলবে না। আমাদের শিকড়ের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করা যাবে না। আমাদের নতুন স্থপতিদের মেধার সঙ্গে দেশপ্রেমের সমন্বয় করে নতুন নতুন স্থাপনা তৈরি করবেন।’ তিনি আরো বলেন, ‘বাংলাদেশের স্থপতিদের সুনাম সারা বিশ্বে। আমাদের দেশের স্থপতিরা তাঁদের মেধার জোরে সারা বিশ্বে প্রতিষ্ঠিত।’

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থাপত্যবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ড. এম জাকিউল ইসলাম, সহযোগী অধ্যাপক ড. নাঈমা খান, সহকারী অধ্যাপক তাসনীম তারেক, প্রভাষক ড. অরূপ কুমার পোদ্দার, আহম্মদ আল মুহাইমিন, মেহেরুল কাদের প্রিন্স ও বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা।



মন্তব্য