kalerkantho


৫.১ এবং ৩.১ প্লাস স্মার্টফোন উন্মোচন

হারানো বাজার ফিরে পেতে চায় নকিয়া!

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৪ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



হারানো বাজার ফিরে পেতে চায় নকিয়া!

নকিয়া ৫.১ প্লাস ও ৩.১ প্লাস স্মার্টফোন উন্মোচন অনুষ্ঠানে এইচএমডি গ্লোবালের কর্মকর্তারা। ছবি : কালের কণ্ঠ

একসময় মোবাইল হ্যান্ডসেট বলতে অনেকেই নকিয়া বুঝত। শক্ত ব্র্যান্ড ইমেজ থাকার পরও ইউন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমের ভুল ব্যাবসায়িক কৌশলে নকিয়ার ব্যবসা যখন মুখ থুবড়ে পড়ল, তখন অনেকেই ভেবেছিলেন ফিনল্যান্ডের দেড় শতাধিক বছরের পুরনো কম্পানি বোধ হয় শেষ হয়ে গেল। কিন্তু মাইক্রোসফট কিনে নেওয়ার পর যে ভুলের কারণে নকিয়া হারাতে বসেছিল সেই ভুলে শুধরে আবার অ্যানড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমে নতুনভাবে নকিয়া ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছে এইচএমডি গ্লোবালের কাছে। বাংলাদেশেও নকিয়ার হারানো বাজার ফিরে পেতে চায় বলে জানিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তারা। এরই মধ্যে অবস্থান পাকাপোক্ত করার চেষ্টা চলছে বলেও জানান তাঁরা।

গতকাল মঙ্গলবার রাজধানীর লা ভিঞ্চি হোটেলে নকিয়া ৫.১ প্লাস ও ৩.১ প্লাস মডেলের স্মার্টফোন উন্মোচন অনুষ্ঠানে এসব কথা জানান নকিয়া ব্র্যান্ডের স্মার্টফোন নির্মাতা এইচএমডি গ্লোবালের কর্মকর্তারা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন নকিয়ার মূল কম্পানি এইচএমডি গ্লোবাল প্যান এশিয়ার জেনারেল ম্যানেজার সন্দীপ গুপ্ত, বাংলাদেশের হেড অব বিজনেস ফারহান রশিদ, মার্কেটিং লিড ইফফাত জহুরসহ অন্য কর্মকর্তারা।

অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে সন্দীপ গুপ্ত জানান, এশিয়া প্যাসিফিকের মধ্যে যে কয়েকটি বাজার তাঁদের কাছে খুব গুরুত্বপূর্ণ তার মধ্যে বাংলাদেশ একটি। তিনি জানান, এই বাজার নিয়ে তাঁরা খুশি। এখানে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের সঙ্গে তুমুল প্রতিযোগিতা রয়েছে। এর পরও এই বাজারে তাঁদের পটেনশিয়াল অবস্থান রয়েছে।

অন্যান্য খ্যাতনামা ব্র্যান্ডের মতো বাংলাদেশে হ্যান্ডসেট কারখানা করার পরিকল্পনা আছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, এখন হ্যান্ডসেট আমদানিতে যে ট্যাক্স তাতে এখানে প্রতিযোগিতাকে আরো চ্যালেঞ্জের করে তুলছে। তবে নকিয়া এখানে কারখানা করবে কি না সে বিষয়ে এখনই কিছু বলতে চান না তিনি।

ফারহান রশিদ জানান, বাংলাদেশের বিভিন্ন জোনে নকিয়ার সঙ্গে ৭৩ জন ডিস্ট্রিবিউটর যুক্ত রয়েছে। সারা দেশে আউটলেট রয়েছে সাত হাজারেরও বেশি। সার্ভিস সেন্টার বা কেয়ার পয়েন্ট রয়েছে ৫০টির ওপরে।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, নকিয়া ৫.১ প্লাস মডেলের স্মার্টফোন গেমিং ও বিনোদনের ক্ষেত্রে গ্রাহককে উন্নত অভিজ্ঞতা দেবে। এ ডিভাইসটি তৈরির সময় পারফরম্যান্স, এআই ইমেজিংসহ নতুন প্রযুক্তি যুক্ত করার বিষয়টি খেয়াল রাখা হয়েছে। এতে মিডিয়াটেক চিপসেট, মিডিয়াটেক হেলিও পি৬০ ব্যবহার করা হয়েছে। এতে রয়েছে ছয় ইঞ্চি এইচডি প্লাস ডিসপ্লে, ফেস রিকগনিশন প্রযুক্তি। নকিয়া ৫.১ ফোনটির দাম ২১ হাজার ৯৯০ টাকা। এ ছাড়া নকিয়া ৩.১ প্লাস স্মার্টফোনটিতেও ব্যবহার করা হয়েছে ছয় ইঞ্চি এইচডি প্লাস ডিসপ্লে। এর ব্যাটারি তিন হাজার ৫০০ এমএএইচ। ফোনটি নভেম্বর মাসের শেষ দিকে বাজারে আসবে। এর দাম হবে ১৮ হাজার টাকার কাছাকাছি।

সন্দীপ গুপ্ত বলেন, ‘নকিয়া ৫.১ প্লাস দিয়ে আমরা গেমিং এবং এন্টারটেইনমেন্টের অভিজ্ঞতা আরো বৃহত্তর গ্রাহকদের কাছাকাছি আনতে চেয়েছি। যাতে আরো বেশি মানুষ মোবাইল গেম খেলতে পারে, তাদের প্রিয় সিরিজটি উপভোগ করতে পারে এবং ভালো ছবি তুলতে পারে।’

তিনি আরো বলেন, ‘নকিয়া ৩.১-এর ফিচার ও অ্যাকসেসিবিলিটি (অভিগম্যতা) বাংলাদেশে জনপ্রিয়। আমাদের ভক্তরা প্রচুরসংখ্যক ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া পাঠিয়েছে।’ ইলেকট্রনিক ভিডিও স্ট্যাবিলাইজেশনের সঙ্গে দ্বৈত ১৩ মেগাপিক্সেল/৫ মেগাপিক্সেল রিয়ার সেন্সর দেবে সুস্পষ্ট ছবি, শার্প ভিডিও। ১৩ মেগাপিক্সেল ফেস ডিটেকশন অটো ফোকাস প্রধান ক্যামেরায় দ্রুত এবং নির্ভুল ফোকাসসহ তীক্ষ চিত্রগুলোর গ্রাহককে দেবে উন্নত ফটোগ্রাফি। সামনে আছে ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।



মন্তব্য