kalerkantho


‘অ্যাকর্ডের মেয়াদ বাড়ানো হবে না’

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৩ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



বর্ধিত সময়ের পর অ্যাকর্ডের মেয়াদ আর বাড়ানো হবে না বলে সাফ জনিয়ে দিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। তিনি বলেন, দেশের পোশাক কারখানাগুলোর সংস্কারকাজ পরিদর্শনের জন্য নির্ধারিত পাঁচ বছরের মেয়াদ এরই মধ্যে শেষ হয়েছে। এর পরও আরো ছয় মাসের মেয়াদ বাড়ানো হয়। ওই মেয়াদও আগামী ৩০ নভেম্বর শেষ হবে। কিন্তু তার পরও অ্যাকর্ড থাকতে চায়। গতকাল সোমবার রাজধানীর হোটেল ওয়েস্টিনে ডেনমার্ক সরকারের সহযোগিতায় পোশাক কারখানার উৎপাদন ও দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য নেওয়া প্রকল্পের সমাপনি অনুষ্ঠানে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ এসব কথা বলেন। তৈরি পোশাক খাতের শীর্ষ সংগঠন বিজিএমইএ ও ডেনিশ ফ্যাশন অ্যান্ড টেক্সটাইল এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

বিজিএমইএ সভাপতি মো. সিদ্দিকুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, স্টেপ আপ প্রকল্পের হেড অব সিএসআর (ডেনিশ ফ্যাশন অ্যান্ড টেক্সটাইল) পিয়া অগার্ড, ডেনিশ ফ্যান অ্যান্ড টেক্সটাইলের প্রদান নির্বাহী কর্মকর্তা থমাস ক্লুজেন প্রমুখ। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন বিজিএমইএ সহসভাপতি মোহাম্মদ নাছির।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, অ্যাকর্ড ও অ্যালায়েন্সের ব্যাপারে আদালতের নির্দেশনা রয়েছে মেয়াদ বৃদ্ধি না করার। আমরা আদালতের বাইরে যেতে পারব না। এ ছাড়া বিশ্বের কোথাও এই ধরনের সুযোগ নেই। তারা ভারত, চীন ও ভিয়েতনামে যেতে পারে না। অথচ রানা প্লাজা দুর্ঘটনার দোহাই দিয়ে তারা বাংলাদেশে থাকতে চায়। অথচ বিশ্বের অনেক দেশেই এমন দুর্ঘটনা ঘটে।

এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন বলেন, ক্রেতাদের পোশাকের দাম বাড়ানোর কথা বললে তারা উৎপাদনশীলতা বাড়াতে বলে। অথচ ৭০ শতাংশ ভোক্তা আমাদের পণ্য ক্রয় করে কম মূল্যে কেনা যায় বলে।



মন্তব্য