kalerkantho


দ্বিতীয় দিনেও সূচক কমেছে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



চলতি সপ্তাহে দ্বিতীয় দিনের মতো পুঁজিবাজারের সূচক নিম্নমুখী। শেয়ার বিক্রির চাপ বেশি থাকায় সূচক কমছে কিন্তু বাড়ছে লেনদেন। সূচক কমলেও দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) লেনদেন বেড়েছে ৭ শতাংশ। আর অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচক কমার সঙ্গে কমেছে লেনদেনও।

সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবস গতকাল সোমবার ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৯৬৫ কোটি ৩৫ লাখ টাকা। আর সূচক কমেছে ৯ পয়েন্ট। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৯০০ কোটি ৯৪ লাখ টাকা। আর মূল্যসূচক কমেছে ২৪ পয়েন্ট।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা যায়, অন্যান্য দিনের মতো গতকালও ডিএসইতে শেয়ার বিক্রির চাপ ছিল। এতে দিনের সূচক কমে যায়। দিন শেষে সূচক কমার মধ্য দিয়েই লেনদেন শেষ হয়েছে। দিন শেষে সূচক দাঁড়িয়েছে পাঁচ হাজার ৫৪০ পয়েন্ট। ডিএস-৩০ মূল্যসূচক ৬ পয়েন্ট কমে এক হাজার ৯৪১ পয়েন্ট ও ডিএসইএস শরিয়াহ সূচক প্রায় ৪ পয়েন্ট কমে এক হাজার ২৭২ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। লেনদেন হওয়া ৩৩৯ কম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছে ১০৬টির, কমেছে ১৭৭টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৬ কম্পানির শেয়ারের দাম।

লেনদেনের ভিত্তিতে শীর্ষে রয়েছে অ্যাক্টিভ ফাইন। কম্পানিটির লেনদেন হয়েছে ৭৮ কোটি ১২ লাখ টাকা। দ্বিতীয় স্থানে থাকা খুলনা পাওয়ারের লেনদেন হয়েছে ৫৯ কোটি ৩৬ লাখ টাকা। আর তৃতীয় স্থানে থাকা বিবিএস কেবলসের লেনদেন হয়েছে ৫০ কোটি সাত লাখ টাকা। অন্যান্য শীর্ষ কম্পানি হচ্ছে শাশা ডেনিমস, সামিট পাওয়ার, ইফাদ অটোস, সাইফ পাওয়ার, নাহী অ্যালুমিনিয়াম, কনফিডেন্স সিমেন্ট ও ফরচুন শুজ।

সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৪২ কোটি ৯৩ লাখ টাকা। আর সূচক কমেছে ১০ পয়েন্ট। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৬১ কোটি ৯৯ লাখ টাকা। আর সূচক কমেছিল ৫৩ পয়েন্ট। সোমবার লেনদেন হওয়া ২৩৭ কম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছে ৭৯টির, দাম কমেছে ১৩৪টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ২৪ কম্পানির শেয়ারের দাম।

 



মন্তব্য