kalerkantho


এক ট্রিলিয়ন ডলার হওয়ার পথে এবার অ্যামাজন

বাণিজ্য ডেস্ক   

৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



এক ট্রিলিয়ন ডলার হওয়ার পথে এবার অ্যামাজন

১৯৯৪ সালে সিইও জেফ বেজস অ্যামাজন প্রতিষ্ঠা করেন

অ্যাপলের পথ ধরে এবার অ্যামাজনও ট্রিলিয়ন ডলার কম্পানি হতে যাচ্ছে। গত মঙ্গলবার কম্পানির প্রতিটি শেয়ার লেনদেন হয় ২০৫০.৫০ ডলারে, যা এক বছরে দ্বিগুণের বেশি বেড়েছে। এর ফলে কম্পানিটি এক ট্রিলিয়ন ডলারের মাইলফলক অর্জনের খুব কাছাকাছি চলে যায়। এ জন্য প্রতিটি শেয়ারের দাম উঠতে হবে ২০৫০.২৬৭৭ ডলার। অবশ্য পরে দাম আবার কিছুটা কমে শেয়ারপ্রতি হয় ২০৩৯.৫১ ডলার।

বাজারসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা জানান, অ্যামাজনের শেয়ার বর্তমান ধারায় বাড়তে থাকলে অচিরেই এটি এক ট্রিলিয়ন ডলার কম্পানি হবে এবং অ্যাপলকেও অতিক্রম করে যাবে। গত ২ আগস্ট অ্যাপল এক ট্রিলিয়ন ডলার কম্পানিতে পরিণত হয়। অনলাইন কম্পানিটি বর্তমানে খুচরা বাজারে ও ক্লাউড কম্পিউটিংয়ে ভালো আয় করছে।

শেয়ারবাজারে আসার পর অ্যাপলের এক ট্রিলিয়ন ডলার কম্পানি হতে সময় লেগেছে ৩৮ বছর। আর অ্যামাজন সে গৌরব অর্জন করতে যাচ্ছে মাত্র ২১ বছরে। অ্যাপল একদিকে যেমন আইফোন ও অন্যান্য ডিভাইসের মাধ্যমে জোরালো প্রবৃদ্ধি ধরে রেখেছে, তেমনি অ্যামাজনের বিক্রয় প্রবৃদ্ধিও ইতিবাচক।

অ্যামাজনের প্রশংসা করে আটলান্টায় সিনোভাস ট্রাস্টের পোর্টফোলিও ম্যানেজার ড্যানিয়েল মরগান বলেন, অ্যামাজন অ্যাপলের চেয়ে কিছুটা বেশি ডাইনামিক। যদিও আইফোনের বেশ জনপ্রিয়তা রয়েছে; কিন্তু অ্যামাজনের ক্লাউড ব্যবসা তাদের অতিরিক্ত প্রবৃদ্ধি জোগাচ্ছে, যা অ্যাপলের ক্ষেত্রে নেই। বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে অ্যামাজনের ৫৫ শতাংশ অপারেটিং আয় এবং মোট রাজস্বের ২০ শতাংশ এসেছে ক্লাউড ব্যবসা থেকে।

১৯৯৪ সালে সিইও জেফ বেজস অ্যামাজন প্রতিষ্ঠা করেন। যার যাত্রা শুরু হয় অনলাইনে বই বিক্রির মাধ্যমে। আর ১৯৭৬ সালে স্টিভ জবসের গ্যারেজে প্রতিষ্ঠিত হয় স্মার্টফোন কম্পানি অ্যাপল। যার আইফোন এখনো বিশ্বে সবচেয়ে জনপ্রিয় স্মার্টফোন।

এদিকে ট্রিলিয়ন ডলার হওয়ার পথে রয়েছে আরো বেশি কিছু কম্পানি। গুগলের মূল কম্পানি অ্যালফাবেটের বাজার মূলধন বর্তমানে ৮৮৬ বিলিয়ন ডলার। মাইক্রোসফটের বাজার মূলধন ৮২৭ বিলিয়ন ডলার। ফলে এ দুই কম্পানিও ট্রিলিয়ন ডলার হওয়ার প্রতিযোগিতায় এগিয়ে রয়েছে। তবে পিছিয়ে রয়েছে ফেসবুক। বর্তমানে কম্পানিটির বাজার মূলধন ৫০৫ বিলিয়ন ডলার। ২০০৭ সালে চীনের রাষ্ট্রীয় তেল কম্পানি পেট্রোচায়না আইপিও অন্তর্ভুক্তিতে গিয়ে এক ট্রিলিয়ন ডলারের মাইলফলক অতিক্রম করেছিল। কিন্তু পরবর্তী সময়ে কম্পানির মূল্য আবার পড়ে যায়। এএফপি, রয়টার্স।



মন্তব্য