kalerkantho


পুঁজিবাজারে মূল্য সংশোধন

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৪ আগস্ট, ২০১৮ ০০:০০



পুঁজিবাজারে টানা তিন কার্যদিবস দাপটের পর চতুর্থ দিনে মূল্য সংশোধন হয়েছে ব্যাংক খাতের কম্পানির শেয়ারে। মূল্য বৃদ্ধিতে মুনাফা তুলে নিতে শেয়ার বিক্রি করেছেন বিনিয়োগকারীরা। এতে নিম্নমুখী হয়েছে পুঁজিবাজার। যদিও এর আগে ব্যাংক খাতে দাপটে ঊর্ধ্বমুখী হয়েছিল বাজার।

সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবস গতকাল সোমবার দেশের দুই পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচক ও লেনদেন কমেছে। শেয়ার কেনার চেয়ে বিক্রির চাপ থাকায় সূচক কমে গেছে।

সোমবার ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৬৪৮ কোটি ২২ লাখ টাকা। আর সূচক কমেছে ২৮ পয়েন্ট। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৮১৮ কোটি ৩৯ লাখ টাকা। আর সূচক বেড়েছিল ০.১৮ পয়েন্ট। সেই হিসাবে লেনদেন ও সূচকও হ্রাস পেয়েছে।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা যায়, লেনদেন শুরুর পর থেকেই শেয়ার বিক্রির চাপে সূচক নিম্নমুখী হয়। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বিক্রির চাপ বাড়লে সূচকও হ্রাস পায়। এতে দিনের সূচক কমার মধ্য দিয়েই লেনদেন শেষ হয়েছে। দিন শেষে সূচক দাঁড়িয়েছে পাঁচ হাজার ৩৭৮ পয়েন্ট। ডিএস-৩০ মূল্যসূচক ৭ পয়েন্ট কমে এক হাজার ৮৮৪ পয়েন্ট ও ডিএসইএস শরিয়াহ সূচক ৭ পয়েন্ট কমে এক হাজার ২২৮ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। লেনদেন হওয়া ৩৩৮ কম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছে ১০২টির, কমেছে ২০০টির ও অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৬ কম্পানির শেয়ারের দাম।

লেনদেনের ভিত্তিতে শীর্ষে রয়েছে বিবিএস কেবলস। কম্পানিটির লেনদেন হয়েছে ৩৯ কোটি ৪৬ লাখ টাকা। দ্বিতীয় স্থানে থাকা ইফাদ অটোসের লেনদেন হয়েছে ২১ কোটি ৫৯ লাখ টাকা। আর তৃতীয় স্থানে থাকা শেফার্ড ইন্ডাস্ট্রিজের লেনদেন হয়েছে ১৯ কোটি ৪৪ লাখ টাকা। অন্যান্য শীর্ষ কম্পানি হচ্ছে ড্রাগন সোয়েটার, লংকাবাংলা ফাইন্যান্স, আমান কটন, আরডি ফুড, সায়হাম টেক্সটাইল।

সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৩২ কোটি ৭৬ লাখ টাকা। আর সূচক কমেছে ৫১ পয়েন্ট। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৪৬ কোটি ৫০ লাখ টাকা। আর সূচক কমেছিল ২ পয়েন্ট। সোমবার লেনদেন হওয়া ২৪৪ কম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছে ৭০টির, দাম কমেছে ১৫২টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ২২ কম্পানির শেয়ারের দাম।



মন্তব্য