kalerkantho


শেয়ারবাজারে বড় উত্থান

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২১ জুন, ২০১৮ ০০:০০



শেয়ারবাজারে বড় উত্থান

ঈদুল ফিতর শেষে পুঁজিবাজারে বড় উত্থান হয়েছে। ৬০ শতাংশ কম্পানির শেয়ার দাম বৃদ্ধির পাশাপাশি লেনদেন ও মূল্যসূচকেও বড় উত্থান হয়েছে। দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) লেনদেন আগের দিনের চেয়ে বেড়েছে ৬.৫ শতাংশ আর মূল্যসূচক বেড়েছে প্রায় ৪০ পয়েন্ট।

ঈদের পাঁচ কার্যদিবস বন্ধের পর সোমবার থেকে পুঁজিবাজারে লেনদেন শুরু হয়েছে। প্রথম দিন বাজারে সূচক কমলেও দ্বিতীয় মঙ্গলবার সূচক ও লেনদেন ঊর্ধ্বমুখী হয়। গতকাল বুধবার সূচক ও লেনদেন বৃদ্ধি পেয়েছে।

সপ্তাহের চতুর্থ কার্যদিবস গতকাল দেশের দুই পুঁজিবাজারে ইতিবাচক উন্নতি হয়েছে। যদিও এর আগে দুই বাজারেই বড় পতন হয়েছিল। গতকাল ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৬৭৬ কোটি ৯৭ লাখ টাকা। আর সূচক বেড়েছে ৩৯.৯১ পয়েন্ট। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৬৩৫ কোটি ৭৮ লাখ টাকা। আর সূচক বেড়েছিল ৩.৬৬ পয়েন্ট।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা যায়, লেনদেন শুরুর পর থেকেই শেয়ার কেনার চাপে সূচক ঊর্ধ্বমুখী হয়। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে শেয়ার কেনার চাপ বাড়তে থাকলে সূচকও ঊর্ধ্বমুখী হয়। এতে দিনের সূচক বৃদ্ধির মধ্য দিয়েই লেনদেন শেষ হয়েছে। দিন শেষে সূচক দাঁড়িয়েছে পাঁচ হাজার ৩৮৪ পয়েন্ট। ডিএস-৩০ মূল্যসূচক ১২ পয়েন্ট বেড়ে এক হাজার ৯৫৪ পয়েন্ট ও ডিএসইএস শরিয়াহ সূচক ৯ পয়েন্ট বেড়ে এক হাজার ২৫০ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। লেনদেন হওয়া ৩৩৭টি কম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছে ২০৪টির, কমেছে ৯০টির ও অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৩টি কম্পানির শেয়ার দাম।

আইডিএলসির বাজার পর্যবেক্ষণ বলছে, ডিএসইএক্স সূচক ০.৭ শতাংশ ও লেনদেন ৬.৫ শতাংশ বেড়েছে। নন-বাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠানের কম্পানির শেয়ার দাম বেড়েছে ১.৯ শতাংশ, প্রকৌশল খাতের ১.৩ শতাংশ, টেলিকমিউনিকেশন ১ শতাংশ, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি ০.৯ শতাংশ, ব্যাংক ০.৬ শতাংশ এবং ওষুধ ও রসায়ন খাতের  কম্পানির বেড়েছে ০.৩ শতাংশ।

লেনদেনের ভিত্তিতে শীর্ষে রয়েছে আলিফ ইন্ডাস্ট্রি। কম্পানিটির লেনদেন হয়েছে ৩০ কোটি ১১ লাখ টাকা। দ্বিতীয় স্থানে থাকা খুলনা পাওয়ারের লেনদেন হয়েছে ২৪ কোটি ছয় লাখ টাকা। আর তৃতীয় স্থানে থাকা ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ডের লেনদেন হয়েছে ১৮ কোটি ৯৪ লাখ টাকা। অন্যান্য শীর্ষ কম্পানি হচ্ছে নাভানা সিএনজি, ইউনাইটেড পাওয়ার, ফার্মা এইড, গ্রামীণফোন, মুন্নু সিরামিকস, বেক্সিমকো লিমিটেড ও উসমানিয়া গ্লাস ফ্যাক্টরি।

দাম বৃদ্ধির শীর্ষে রয়েছে ফু-ওয়াং ফুড, উসমানিয়া গ্লাস ফ্যাক্টরি, এটলাস বাংলা, জাহিন টেক্স, এপেক্স স্পিনিং, মুন্নু সিরামিকস, বিডি অটোকারস, জেএমআই সিরিঞ্জ, লিব্রা ইনফিউশনস ও রিজেন টেক্সটাইল। অন্যদিকে দাম কমার শীর্ষে রযেছে পপুলার লাইফ ইনস্যুরেন্স, জিলবাংলা সুগার, পিপলস ইনস্যুরেন্স, শ্যামপুর সুগার, কেডিএস অ্যাকসেসরিজ, এশিয়া ইনস্যুরেন্স, ইস্টার্ন কেবলস, সমতা লেদার, বেক্সিমকো সিনথেটিকস ও মেঘনা কনডেনসড মিল্ক।

অন্য বাজার সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ১৯ কোটি ৮৩ লাখ টাকা। আর সূচক বেড়েছে ৭৪ পয়েন্ট। লেনদেন হওয়া ২৩৪ কম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছে ১৫৯টির, দাম কমেছে ৫৮টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ১৭টি কম্পানির শেয়ার দাম।

অনুমোদিত মূলধন বাড়াবে মুন্নু জুট : প্রকৌশল খাতের মুন্নু জুট স্টাফলার্স লিমিটেড অনুমোদিত মূলধন বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, অনুমোদিত মূলধন এক কোটি টাকা থেকে বাড়িয়ে ১০০ কোটি টাকা করতে চায়। এই সিদ্ধান্তের চূড়ান্তে শেয়ারহোল্ডারদের অনুমোদনের জন্য বিশেষ সাধারণ সভা (ইজিএম) করবে কম্পানিটি। আগামী ৯ আগস্ট, সকাল ১০টায়, ইসলামপুর, ধামরাই, ঢাকাতে ইজিএম অনুষ্ঠিত হবে। এসংক্রান্ত রেকর্ড ডেট ১২ জুলাই।

দাম বৃদ্ধির কারণ জানে না দুই কম্পানি : পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত আনোয়ার গ্যালভানাইজিং ও বিডি ল্যাম্পস জানিয়েছে, শেয়ার দাম বৃদ্ধিতে অপ্রকাশিত কোনো সংবেদনশীল তথ্য নেই। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ কর্তৃপক্ষের জানতে চাওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে কম্পানি এই তথ্য জানিয়েছে।

আনোয়ার গ্যালভানাইজিং বলছে, শেয়ার দর অস্বাভাবিকভাবে বাড়ার পেছনে তাদের কাছে কোনো মূল্য সংবেদনশীল তথ্য নেই। যদিও গত তিন কার্যদিবসে কম্পানিটির শেয়ার দর ৭৬ টাকা থেকে বেড়ে ৮৪.৭০ টাকায় পৌঁছেছে। এ সময়ে কম্পানিটির শেয়ার দাম ৮.৭০ টাকা বা ১১ শতাংশ বেড়েছে।

বিডি ল্যাম্পস কর্তৃপক্ষ বলছে, কোনো কারণ ছাড়াই কম্পানির শেয়ার দাম বাড়ছে। শেয়ার দাম অস্বাভাবিক বৃদ্ধির পেছনে কোনো মূল্য সংবেদনশীল তথ্য নেই।’ উল্লেখ্য, গত পাঁচ কার্যদিবস কম্পানিটির শেয়ার দাম ১৭৮ টাকা থেকে বেড়ে ২০৭.৭০ টাকায় পৌঁছায়। অর্থাৎ এ সময়ে কম্পানিটির শেয়ার দাম ২৯.৭০ টাকা বা ১৭ শতাংশ বেড়েছে।



মন্তব্য