kalerkantho


চবিতে আন্তর্জাতিক সেমিনারে অর্থমন্ত্রী

২০২৪ সালের মধ্যেই দেশ থেকে দারিদ্র্য দূর হবে

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

১৬ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



২০২৪ সালের মধ্যেই দেশ থেকে দারিদ্র্য দূর হবে

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতকে চবি ফাইন্যান্স বিভাগের সিলভার জুবিলীর মনোগ্রামখচিত ক্রেস্ট প্রদান করেন চবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী। ছবি : কালের কণ্ঠ

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, ‘২০২৪ সালের মধ্যেই দেশ দারিদ্র্যমুক্ত হবে। টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার (এসডিজি) ১৭টি শর্ত পূরণের সময়সীমা নির্ধারণ করা হয়েছে ২০৩০ সাল। এর মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ শর্ত দারিদ্র্যমুক্তি, যা বাংলাদেশ ২০২৪ সালের মধ্যে পূরণ করতে সক্ষম হবে।’

গতকাল বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ফিন্যান্স বিভাগের রজত জয়ন্তী উপলক্ষে বিভাগটির আয়োজিত ‘ফাইন্যান্স ফর সাসটেইনেবল গ্রোথ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট’ শীর্ষক আন্তর্জাতিক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন অর্থমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘১৯৮৪ সালে জাতিসংঘের পরিবেশ নিয়ে আলোচনার উদ্যোগের পর থেকে এসডিজি সারা বিশ্বে গুরুত্ব পায়। বাংলাদেশ সহস্রাধিক লক্ষ্যমাত্রা অর্জনেও অন্যান্য উন্নয়নশীল দেশের তুলনায় ভালো অবস্থানে ছিল। এসডিজির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণেও বাংলাদেশ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে। কারণ অর্থনৈতিক মুক্তি অর্জনের সব সূচকে বাংলাদেশ এখন অকল্পনীয় উন্নতি ও সমৃদ্ধি অর্জন করেছে, যা বিশ্ববাসীর কাছে রোল মডেল হিসেবে পরিগণিত হচ্ছে। অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জন জাতীয় উন্নয়নের ভিত্তি।’

অর্থমন্ত্রী এ সময় বলেন, ‘আমাদের সময়কালে আমরা যে সুযোগ পেয়েছি ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য এর চেয়েও বেশি সুযোগ সুবিধা আমাদের রেখে যেতে হবে। পাশাপাশি বাংলাদেশের উন্নয়নপ্রক্রিয়ায় সবাইকে সম্পৃক্ত হতে হবে এবং এই উন্নয়নের ফল সবাইকে ভোগ করতে হবে।’ তিনি আরো বলেন, ‘বাংলাদেশের মতো জনবহুল দেশে প্রবৃদ্ধির মাত্রা ১০ শতাংশে পৌঁছাতে হলে সব জেলায় রাষ্ট্রের জনকল্যাণমূলক কার্যক্রম পরিচালনায় তত্পর হতে হবে। শুধু ঢাকাকে না কেন্দ্র করে সারা দেশে এসব কার্যক্রম পৌঁছে দিতে হবে।’

সেমিনারে এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির, অর্থসচিব মোহাম্মদ মুসলিম চৌধুরী, চবির ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. এ এফ এম আওরঙ্গজেব।

বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির বলেন, ‘অর্থায়নের অন্যতম ভিত্তি হলো বিশ্বাস। টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের জন্য আমাদের সবুজ অর্থনীতির ওপর জোর দিতে হবে।’ অর্থসচিব মোহাম্মদ মুসলিম উদ্দীন চৌধুরী বলেন, ‘বাংলাদেশের ব্যাংকগুলোর মূল সমস্যা হলো সঞ্চয়ের পরিমাণ কম। কিন্তু ঋণ দেওয়ার প্রবণতা বেশি। অর্থাৎ সঞ্চয় স্বল্পমেয়াদি এবং ঋণ দীর্ঘমেয়াদি। তাই ঝুঁকি কমাতে ব্যাংকগুলোর সঞ্চয়ের পরিমাণ বাড়াতে হবে এবং ঋণের পরিমাণ কমাতে হবে। এতে আমরা অর্থনৈতিক সক্ষমতা অর্জন করতে পারব।’

সেমিনারে বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক শামীম উদ্দীন খান সভাপতিত্ব করেন। এ আন্তর্জাতিক সেমিনারে বিজনেস সেশনে দেশ-বিদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ৯৫ জন গবেষকের ৬১টি গবেষণাপত্র উপস্থাপন করা হয়।

দুপুরে মন্ত্রী চবি বঙ্গবন্ধু চত্বরে উপাচার্যকে সঙ্গে নিয়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।  এ সময় মন্ত্রীকে চবি বঙ্গবন্ধু পরিষদের পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়।

উল্লেখ্য, দুই দিনব্যাপী এ অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় দিন আজ শুক্রবার দিনব্যাপী ‘গ্র্যান্ড গালা গেট টুগেদার’-এর আয়োজন করা হয়েছে। সকালে আনন্দ শোভাযাত্রা বের করবে বিভাগের সাবেক ও বর্তমান শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।



মন্তব্য