kalerkantho


ইলেকট্রনিকস খাতে ভিয়েতনামের বিনিয়োগ আহ্বান

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৯ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



বাংলাদেশে ইলেকট্রিক্যাল ও ইলেকট্রনিকস পণ্য উৎপাদনে বিনিয়োগের প্রচুর সম্ভাবনা রয়েছে। ভিয়েতনামের ব্যবসায়ীদের বাংলাদেশে যৌথ বিনিয়োগের আহ্বান জানিয়েছেন ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (ডিসিসিআই) সভাপতি আবুল কাসেম খান। গতকাল বাংলাদেশে নিযুক্ত ভিয়েতনামের রাষ্ট্রদূত ট্রান ভ্যান কাহোয়ার সঙ্গে বৈঠকে ডিসিসিআই সভাপতি এ আহ্বান জানান। ডিসিসিআই কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত ওই বৈঠকে সংগঠনটির পরিচালনা পর্ষদের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

স্বাগত বক্তব্যে আবুল কাসেম খান বলেন, ‘ভিয়েতনামের অর্থনীতি ক্রমেই উন্নতির পথে রয়েছে, যা বাংলাদেশের জন্য একটি প্রকৃষ্ট উদাহরণ। দুই দেশের অর্থনীতির বিকাশের লক্ষ্যে বাংলাদেশ ও ভিয়েতনামের উদ্যোক্তাদের মধ্যে সম্পর্ক আরো সুদৃঢ় করতে মার্চ মাসের মাঝামাঝি সময়ে ঢাকা চেম্বার থেকে ভিয়েতনামে একটি বাণিজ্য প্রতিনিধিদল পাঠানো হবে। ঢাকা চেম্বারের সভাপতি বাংলাদেশে কৃষি ও মত্স্য খাতে বাণিজ্য সম্ভাবনা যাচাইয়ে ভিয়েতনামের রাষ্ট্রদূতকে তাঁর দেশের ব্যবসায়ীদের সহায়তার যৌথ উদ্যোগ গ্রহণের প্রস্তাব করেন।

ভিয়েতনামের রাষ্ট্রদূত ট্রান ভ্যান কাহোয়া জানান, ২০১৭ সালে দুই দেশের দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্যের পরিমাণ ছিল ৯০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের বেশি, যা আগের বছরের চেয়ে প্রায় দ্বিগুণ। রাষ্ট্রদূত বলেন, বাংলাদেশ ও ভিয়েতনামের মধ্যকার কূটনৈতিক সম্পর্কের ৪৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে ভিয়েতনাম সরকার এ বছরের শেষের দিকে বাংলাদেশে একটি বাণিজ্য মেলা আয়োজন করবে। বাংলাদেশের আমদানি শুল্কহার তুলনামূলকভাবে বেশি, যা কমানো সম্ভব হলে বাংলাদেশের রপ্তানি আরো বৃদ্ধির সুযোগ তৈরি হবে। তিনি বাংলাদেশের ব্যবসা-বাণিজ্যের সম্প্রসারণে সমুদ্র ও স্থলবন্দর অবকাঠামো ও সুযোগ-সুবিধা দ্রুত সম্পন্নের প্রস্তাব করেন। ডিসিসিআই ঊর্ধ্বতন সহসভাপতি কামরুল ইসলাম, সহসভাপতি রিয়াদ হোসেন, পরিচালক আকবর হাকিম, আন্দালিব হাসান, হোসেন এ সিকদার, হুমায়ুন রশিদ, খন্দকার রাশেদুল আহসান, কে এম এন মঞ্জুরুল হক এবং মহাসচিব এ এইচ এম রেজাউল কবির এ সময় উপস্থিত ছিলেন।


মন্তব্য