kalerkantho


আর্থিক প্রতিষ্ঠানেও নিজস্ব আচরণবিধি তৈরির নির্দেশ

কার্যকর হবে ফেব্রুয়ারি থেকে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৪ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল প্রণয়ন ও বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকেও বাংলাদেশ ব্যাংকের তৈরি করা আচরণবিধি বাস্তবায়নের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। গত মঙ্গলবার বাংলাদেশ ব্যাংকের আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও বাজার বিভাগ থেকে এক সার্কুলার জারি করে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়। এর আগে ব্যাংকগুলোকে এ আচরণবিধি বাস্তবায়নের নির্দেশনা দেওয়া হয়।

ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোতে সততা, নৈতিকতা, দক্ষতা ও দায়িত্বশীলতা বৃদ্ধি এবং পণ্য ও সেবা দেওয়ার ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে বাংলাদেশ ব্যাংক হতে একটি ‘কোড অব কনডাক্ট ফর ব্যাংকস অ্যান্ড নন-ব্যাংক ফিন্যানশিয়াল ইনস্টিটিউশনস’ শীর্ষক একটি নীতিমালা প্রণয়ন করা হয়েছে, যার নির্দেশনা সব ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের জন্য পরিপালনীয়। এর আলোকে আগামী ৩১ জানুয়ারির মধ্যে আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে নিজস্ব একটি আচরণবিধি তৈরি করতে হবে। আগামী ১ ফেব্রুয়ারি থেকে ওই নির্দেশনা কার্যকর হবে।

আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর পরিচালনা পর্ষদের সদস্য, সব পর্যায়ের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের জন্য এ আচরণবিধি প্রযোজ্য হবে। প্রতিষ্ঠানকে সুষ্ঠু কর্মপরিবেশ নিশ্চিত করতে হবে। কর্মীদের মূল্যায়ন হবে কাজের ওপর ভিত্তি করে। সব সময় পেশাদারিত্ব ও নৈতিকতা বজায় রেখে কাজ করতে হবে। পেশাদারিত্ব বজায় রাখতে সেবার মান নির্ধারণ করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে। আচরণবিধিতে বলা হয়েছে, গ্রাহকদের গোপনীয়তা রক্ষা করতে হবে। আর্থিক প্রতিষ্ঠানের একজন কর্মী যেসব কাজ করেন সেসংক্রান্ত তথ্যসহ গ্রাহকের অন্যান্য তথ্য সংরক্ষণ করা যাবে না।

আর্থসামাজিক উন্নয়নের জন্য দুর্নীতি দমন ও সুশাসন প্রতিষ্ঠা করতে সরকার জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল বাস্তবায়ন করছে। এরই অংশ হিসেবে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য এই আচরণবিধি তৈরি করা হয়েছে।


মন্তব্য