kalerkantho


৩০ পৌরসভার উন্নয়ন

১৬০০ কোটি টাকা ঋণ দেবে এডিবি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



দেশের নির্বাচিত ৩০ পৌরসভার অবকাঠামো উন্নয়নে বাংলাদেশকে আরো ২০ কোটি ডলার ঋণ দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)। বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ এক হাজার ৬০০ কোটি টাকা।

‘তৃতীয় নগর সুশাসন ও অবকাঠামো উন্নয়ন’ প্রকল্পের আওতায় এই টাকা খরচ হবে। গতকাল রাজধানীর শেরেবাংলানগরের এনইসি সম্মেলনকক্ষে এসংক্রান্ত একটি চুক্তি সই হয়েছে। চুক্তিতে সরকারের পক্ষে সই করেন অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) সচিব কাজী শফিকুল আযম। আর এডিবির পক্ষে সই করেন ঢাকায় নিযুক্ত সংস্থাটির আবাসিক প্রতিনিধি কাজুহিকো হুিগুইচি।

চুক্তি সই অনুষ্ঠানে জানানো হয়, প্রকল্পের আওতায় ২০১৫ সালে প্রথম দফায় ১২.৫ কোটি ডলার ঋণ দিয়েছিল এডিবি। বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ এক হাজার কোটি টাকা। নতুন করে আরো এক হাজার ৬০০ কোটি টাকা দেওয়া হচ্ছে এই প্রকল্পে। প্রকল্পের আওতায় ৬০০ কিলোমিটার সড়ক, ৩০০ কিলোমিটার ড্রেন নির্মাণ ও সংস্কার করা হবে। এর পাশাপাশি সুপেয় পানি সরবরাহের জন্য ১৮০ কিলোমিটার পাইপলাইন স্থাপন করা হবে।

৩০ পৌরসভার নাগরিকদের অন্যান্য সেবাও নিশ্চিত করা হবে এই প্রকল্পের আওতায়। ২০২১ সালে প্রকল্পের কাজ শেষ হওয়ার কথা রয়েছে।

চুক্তি সই অনুষ্ঠানে আরো জানানো হয়, এর আগে প্রথম নগর সুশাসন ও অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হয়েছিল ২০০৩ থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত। তখন প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হয়েছিল ২৭ পৌরসভায়। ওই প্রকল্পে এডিবি ঋণ দিয়েছিল সাড়ে ছয় কোটি ডলার। ২০১৪ সালে শেষ হওয়া দ্বিতীয় নগর সুশাসন প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হয়েছিল ৫১ পৌরসভায়। তখন ওই প্রকল্পে ৯ কোটি ডলার ঋণ দিয়েছিল এডিবি। আর তৃতীয় নগর সুশাসন প্রকল্পটির কাজ শুরু হয়েছে ২০১৫ সালে। এই প্রকল্পে এডিবির সহযোগিতা ছিল সাড়ে ১২ কোটি ডলার। গত দুই বছরে প্রকল্পের সাফল্য দেখে নতুন করে আরো ২০ কোটি ডলার ঋণ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেয় ম্যানিলাভিত্তিক সংস্থাটি। গতকাল চুক্তি সই অনুষ্ঠিত হয়। সব মিলিয়ে এই প্রকল্পে ৩২.৫ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে এডিবি। বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ তিন হাজার ৬০০ কোটি টাকা।

এডিবির আবাসিক প্রতিনিধি বলেন, তৃতীয় নগর সুশাসন প্রকল্পটির আওতায় গত দুই বছরে অনেক সফলতা পাওয়া গেছে। নাগরিকরা বিভিন্ন ধরনের সেবা পাচ্ছে। সে কারণে এডিবি নতুন করে আরো ২০ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে। প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে ৩১ লাখ মানুষ উপকৃত হবে। ইআরডি সচিব কাজী শফিকুল আযম বলেন, এই প্রকল্পের আওতায় নির্বাচিত পৌরসভাগুলোয় জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলায় বাঁধ নির্মাণ, সড়ক নির্মাণ, সুপেয় পানি ও পয়োনিষ্কাশনের ব্যবস্থা করা হবে।

 


মন্তব্য