kalerkantho

সোনার দাম ১৩০০ ডলারে থাকবে

বাণিজ্য ডেস্ক   

২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সোনার দাম ১৩০০ ডলারে থাকবে

এ বছর বিশ্ববাজারে গড়ে সোনার দাম থাকবে আউন্সপ্রতি এক হাজার ৩০০ ডলারের কম। বিনিয়োগকারী ও কেন্দ্রীয় ব্যাংকগুলো থেকে সোনার চাহিদা বাড়লেও অলংকারের বাজারে খরা থাকায় দাম বাড়বে না। সম্প্রতি মূল্যবান ধাতু গবেষণা প্রতিষ্ঠান জিএফএমএসের রেফিনিটিভ প্রতিবেদনে এমন দাবি করা হয়েছে।

এতে বলা হয়, টানা দুই বছর ঊর্ধ্বমুখী থাকার পর ২০১৮ সালে প্রথম সোনার দাম কমে। শেয়ারবাজার চাঙ্গা হওয়ার পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্রের সুদের হার বাড়ায় ডলার শক্তিশালী হয়, এতে বিনিয়োগকারীরা এদিকে আগ্রহী হন। এর বিপরীতে যুক্তরাষ্ট্রের বাইরের দেশগুলোতে সোনা ব্যয়বহুল হয়ে ওঠে। কিন্তু বাণিজ্য যুদ্ধের জেরে বিশ্ব অর্থনীতি শ্লথ হয়ে যাচ্ছে এমন আশঙ্কা জেগে ওঠে। ফলে নিরাপদ বিনিয়োগের জন্য ব্যবসায়ীরা আবারও সোনার দিকে ঝোঁকে। এতে সম্প্রতি সোনার দাম বেড়ে আউন্সপ্রতি এক হাজার ৩১০ ডলারে উঠে আসে।

জিএফএমএসের বিশ্লেষক রেফিনিটিভ প্রতিবেদন প্রকাশকালে বলেন, ‘আমরা মনে করি অর্থনৈতিক অনিশ্চয়তা ও বৈশ্বিক প্রবৃদ্ধি মন্থর হওয়ায় শক্তিশালী হবে সোনা। এ বছর গড়ে সোনার দাম থাকবে আউন্সপ্রতি এক হাজার ২৯২ ডলার। গত বছর গড়ে সোনার দাম ছিল এক হাজার ২৬৮ ডলার। রয়টার্সের বিশ্লেষকরা বলছেন, ২০২০ সাল পর্যন্ত সোনার দাম আউন্সপ্রতি এক হাজার ৩৫০ ডলার থাকবে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১৮ সালের চতুর্থ প্রান্তিকে সোনার অলংকারের চাহিদা ছিল ৫৬০ টন, যা ২০১৭ সালের একই সময়ের চেয়ে ৩ শতাংশ কম। এ ছাড়া খুচরা খাতে বিনিয়োগও কমেছে ৩ শতাংশ।

এদিকে বিশ্বের কেন্দ্রীয় ব্যাংকগুলো সোনায় বিনিয়োগ বাড়িয়েছে বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে ওয়ার্ল্ড গোল্ড কাউন্সিল। সেই সুবাদে গত বছর বিশ্ববাজারে সোনার চাহিদা বেড়েছে ৪ শতাংশ। রয়টার্স।

মন্তব্য