kalerkantho


এলজিইডির দরকার ২৮০ কর্মী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১৩:১৬



এলজিইডির দরকার ২৮০ কর্মী

রাজস্ব খাতে সার্ভেয়ার পদে ১৪৫ জন ও ইলেকট্রিশিয়ান পদে ১৩৫ জন কর্মী নিয়োগ দেবে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি)। নিয়োগসংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি জাতীয় দৈনিকের পাশাপাশি এলজিইডির অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে (http://www.lged.gov.bd)) প্রকাশিত হয়েছে। অনলাইনে আবেদন পাঠানো যাবে ৪ মার্চ পর্যন্ত। বিস্তারিত জানাচ্ছেন হোসেন ফরহাদ

যোগ্যতা
কোনো স্বীকৃত ইনস্টিটিউট বা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে সার্ভে ডিপ্লোমা পাস হলেই ‘সার্ভেয়ার’ পদে আবেদন করা যাবে। ‘ইলেকট্রিশিয়ান’ পদের জন্য এইচএসসি বা সমমানের পরীক্ষার সনদের পাশাপাশি ইলেকট্রিসিটি লাইসেন্সিং বোর্ডের সনদপ্রাপ্ত অথবা কোনো স্বীকৃত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে ইলেকট্রিক কাজের ওপর ট্রেড কোর্স পাস হতে হবে। ৩১ জানুয়ারি ২০১৯ তারিখে সাধারণ প্রার্থীর বয়স থাকতে হবে ১৮ থেকে ৩০ বছর। মুক্তিযোদ্ধা বা শহীদ মুক্তিযোদ্ধার সন্তান এবং শারীরিক প্রতিবন্ধীদের বেলায় ৩২ বছর। মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধার নাতি-নাতনিদের ক্ষেত্রে বয়স ৩০ বছর। ওই দুই পদে যেসব জেলার প্রার্থীরা আবেদন পাঠাতে পারবে তা প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে পাওয়া যাবে। তবে এতিম ও শারীরিক প্রতিবন্ধীদের ক্ষেত্রে সব জেলার প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবে।

আবেদন যেভাবে
আবেদন করতে হবে অনলাইনে।http://lged.teletalk.com.bd-এ ওয়েবসাইটে ফরম পূরণ ও জমা দিতে হবে। অনলাইনে আবেদন পূরণ ও পরীক্ষার ফি জমা দেওয়া শুরু হয়েছে ১৭ ফেব্রুয়ারি সকাল ৯টা থেকে। শেষ তারিখ ও সময় ৪ মার্চ ২০১৯ তারিখ বিকেল ৫টা পর্যন্ত। আবেদন জমা দেওয়ার পরবর্তী ৭২ ঘণ্টার মধ্যে এসএমএসের মাধ্যমে পরীক্ষার ফি জমা দেওয়া যাবে। অনলাইনে আবেদনে প্রার্থীর রঙিন ছবি ৩০০ বাই ৩০০ পিক্সেল এবং ৩০০ বাই ৮০ পিক্সেলের স্বাক্ষর আপলোড করতে হবে। আবেদন জমা দেওয়ার ট্রেকিং নম্বর ও পাসওয়ার্ড সংরক্ষণ করতে হবে প্রবেশপত্র সংগ্রহ এবং অন্যান্য তথ্যের জন্য। দুই পদের জন্যই টেলিটক সংযোগ (প্রিপেইড) থেকে এসএমএসের মাধ্যমে মোট ১১২ টাকা (পরীক্ষার ফি) জমা দিতে হবে।

পরীক্ষার ধরন
অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, প্রার্থী বাছাই ও চূড়ান্ত নিয়োগে লিখিত, ব্যাবহারিক ও মৌখিক পরীক্ষা নেওয়া হতে পারে। আগে এ দুই পদে নিয়োগে মোট ১০০ নম্বরের পরীক্ষা নেওয়া হয়েছিল। এর মধ্যে ৭০ নম্বরের এমসিকিউ পদ্ধতির লিখিত এবং ৩০ নম্বরের ব্যাবহারিক ও মৌখিক পরীক্ষা নেওয়া হয়। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, আবেদন জমা নেওয়ার পর নিয়োগ কমিটি কর্তৃক সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে কী ধরনের এবং কোন পদে কত নম্বরের পরীক্ষা নেওয়া হবে। এ ছাড়া নিয়োগ পরীক্ষা নিজেরা নেবে, নাকি কোনো তৃতীয় পক্ষের মাধ্যমে নেওয়া হবে সেটাও নিয়োগ কমিটি সিদ্ধান্ত নেবে। দুই পদের জন্য লিখিত পরীক্ষায় বাংলা, ইংরেজি, গণিত, সাধারণ জ্ঞান এবং সংশ্লিষ্ট ট্রেড বিষয়ে প্রশ্ন করা হয়ে থাকে। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের মৌখিক পরীক্ষার সময় সব সনদের মূল কপি দেখাতে হবে। নিয়োগের ক্ষেত্রে সব কোটা অনুসরণ করে নিয়োগ করা হবে। পরীক্ষার যাবতীয় তথ্য মোবাইলে এসএমএস ও অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে জানানো হবে।

পরীক্ষার প্রস্তুতি
এলজিইডি, ঝিনাইদহ জেলার কালীগঞ্জ উপজেলা কার্যালয়ে সার্ভেয়ার পদে কর্মরত আব্দুল আজিজ জানান, সার্ভেয়ার পদের পরীক্ষায় প্রশ্ন করা হয় মাধ্যমিক শ্রেণির বাংলা, ইংরেজি ও গণিত পাঠ্য বই থেকে। প্রশ্ন করা হয় সার্ভে ডিপ্লোমার নানা বিষয়ে। সাম্প্রতিক সময়ের গুরুত্বপূর্ণ সাধারণ জ্ঞান বিষয়েও প্রশ্ন আসে।

অষ্টম থেকে দশম শ্রেণির বাংলা, ইংরেজি ও গণিত বইগুলোর ওপর বেশি দখল থাকলে লিখিত পরীক্ষায় ভালো করার সুযোগ রয়েছে। সাধারণ জ্ঞানে ভালো করতে চাইলে সাম্প্রতিক সময়ের দৈনন্দিন বিজ্ঞান, বাংলাদেশ বিষয়াবলি, আন্তর্জাতিক বিষয়াবলিসহ সাধারণ জ্ঞানের বিভিন্ন বই পড়তে হবে।

এলজিইডি, ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়া উপজেলায় ইলেকট্রিশিয়ান পদে কর্মরত লুত্ফর রহমান জানান, ইলেকট্রিশিয়ান পদের লিখিত পরীক্ষায় ট্রেড কোর্সের বিভিন্ন বিষয়ে এবং মাধ্যমিক শ্রেণির বাংলা, ইংরেজি, গণিত পাঠ্য বই থেকে প্রশ্ন করা হয়। সঙ্গে প্রশ্ন থাকে সাধারণ জ্ঞানের ওপরও।

ইলেকট্রিক টেড কোর্সসহ মাধ্যমিকের সব বিষয়ে ভালো দখল থাকলে লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় ভালো ফল করা যাবে। আগের এসব পদের নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নপত্র সংগ্রহ করতে পারলে পরীক্ষার বিষয়ে ভালো ধারণা পাওয়া যাবে। তা ছাড়া এসব পদে কর্মরতদের সহায়তা নিয়ে প্রস্তুতি নিলে অনেকের চেয়ে এগিয়ে থাকা যাবে প্রতিযোগিতার মাঠে।

বেতন-ভাতা
নিয়োগপ্রাপ্তরা জাতীয় বেতন স্কেল-২০১৫ অনুসারে বেতন-ভাতা ও অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা পাবেন। দুই পদেই ১৬তম গ্রেডে ৯৩০০-২২৪৯০ টাকা বেতন পাবেন।

কী কাজ
স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের আওতাধীন ভূমি জরিপ, রাস্তা পরিমাপ, এস্টিমেট তৈরি, রাস্তার তদারকিসহ সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের যাবতীয় কাজ করতে হবে সার্ভেয়ারকে। ইলেকট্রিশিয়ানকে অধিদপ্তরের উপজেলার প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলো, উপজেলা পরিষদসহ অনান্য প্রতিষ্ঠানে ইলেকট্রিক্যালের যাবতীয় কাজ করতে হবে।

♦    পদ :  ১. সার্ভেয়ার ২. ইলেকট্রিশিয়ান

♦    বয়স : সর্বোচ্চ ৩০ বছর

♦    আবেদনের পদ্ধতি : অনলাইন 

     (http://lged.teletalk.com.bd)

♦    আবেদন ফি : ১১২ টাকা

♦    আবেদনের শেষ সময় : ৪ মার্চ ২০১৯

     বিকেল ৫টা

♦    বেতন : ৯,৩০০-২২,৪৯০ টাকা (গ্রেড-১৬)



মন্তব্য