kalerkantho

বাণিজ্য মেলায় এক মাসের চাকরি

ফরহাদ হোসেন    

২৮ নভেম্বর, ২০১৮ ১১:৩১ | পড়া যাবে ৫ মিনিটে



বাণিজ্য মেলায় এক মাসের চাকরি

১ জানুয়ারি থেকে শুরু হবে ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা ২০১৯। চলবে পুরো মাস। মেলায় আছে খণ্ডকালীন কর্মী হিসেবে কাজের অনেক সুযোগ। কাজ করতে চাইলে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যোগাযোগ করতে হবে এখনই

বাণিজ্য মেলা চলাকালীন সেলস এক্সিকিউটিভ, ব্র্যান্ড প্রমোটর বা বিক্রয়কর্মী পদে লোকবল নিয়ে থাকে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান। ফার্নিচার প্রতিষ্ঠান, কনজ্যুমার ও হাউসহোল্ড প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান, রেডিমেট পোশাক প্রস্তুতকারী বিভিন্ন ব্র্যান্ড, কসমেটিক প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান, মোবাইল কম্পানি, অ্যালুমিনিয়াম প্রতিষ্ঠান, খাদ্যদ্রব্য প্রস্তুত ও বিক্রয়কারী প্রতিষ্ঠান, ইলেকট্রনিকস কম্পানিসহ নানা ধরনের প্রতিষ্ঠান মেলায় নিজেদের স্টলে কর্মী নেয়। দক্ষতা দেখাতে পারলে স্থায়ী কর্মী হিসেবে নিয়োগ দেয় অনেক প্রতিষ্ঠান।

কী যোগ্যতা থাকা চাই
এইচএসসি পাস বা স্নাতক অথবা স্নাতকোত্তর পড়ুয়াদের কাজের সুযোগ সবচেয়ে বেশি। বয়স চাওয়া হয় ১৮ থেকে ৩০-এর মধ্যে। আগে কোনো প্রতিষ্ঠানের শোরুম বা মেলায় কিংবা কোনো ইভেন্টে কাজের অভিজ্ঞতা থাকলে বাছাইয়ের ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার দেওয়া হয়। সুযোগ থাকে নতুনদেরও। চটপটে, উদ্যমী, গুছিয়ে কথা বলায় দক্ষ প্রার্থীরা বাছাইয়ে অগ্রাধিকার পাবে। কম্পিউটার ও ইংরেজিতে দক্ষ প্রার্থীরা বাছাইয়ে অন্যদের চেয়ে এগিয়ে থাকবে বলে জানান প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের জনসংযোগ বিভাগের সহকারী মহাব্যবস্থাপক জিয়াউল হক। তিনি বলেন, ‘কর্মী বাছাইয়ে আমরা সাধারণত কাজের অভিজ্ঞতাকে প্রাধান্য দিয়ে থাকি। নতুনদের বেলায় দেখা হয় কাজের মানসিকতা, ধৈর্য ও স্মার্টনেস।’

আরএফএল গ্রুপ
দেশের অন্যতম কনজ্যুমার ও হাউসহোল্ড পণ্য উত্পানকারী প্রতিষ্ঠান প্রাণ-আরএফএল গ্রুপ এবারের বাণিজ্য মেলায় বিক্রয় প্রতিনিধি পদে ৫০০-৬০০ কর্মী নেবে। জিয়াউল হক জানান, জাগো জবসে কর্মী চেয়ে প্রকাশ করা হয়েছে বিজ্ঞাপন। এরই মধ্যে আবেদন প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। সিভি পাঠানোর শেষ তারিখ ৮ ডিসেম্বর। তবে প্রাণ-আরএফএল সেন্টারের মানবসম্পদ বিভাগে হাতে হাতে আবেদনপত্র জমা দেওয়া যাবে। আবেদনের যোগ্যতা এইচএসসি পাস। স্নাতক বা স্নাতকোত্তর পর্যায়ের অধ্যয়নরতরাও আবেদন করতে পারবেন। বাছাই পরীক্ষার পর আলোচনার মাধ্যমে ঠিক করা হবে কাজের সময়, বেতন-ভাতা ও অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা। মেলা শেষে দক্ষদের স্থায়ী কর্মী হিসেবে নিয়োগ করা হবে।

যোগাযোগ : আরএফএল গ্রুপ, প্রাণ-আরএফএল সেন্টার, ১০৫ মধ্য বাড্ডা, ঢাকা।

এসকোয়ার ইলেকট্রনিকস
এসকোয়ার ইলেকট্রনিকসের মহাব্যবস্থাপক মঞ্জুরুল করীম জানান, সেলস প্রমোটর পদে ৩০ জন কর্মী নেওয়া হতে পারে। মেয়েদের এইচএসসি ও ছেলেদের বেলায় হতে হবে স্নাতক। ইলেকট্রনিকস পণ্য বিক্রয়ের কাজে দক্ষদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। কর্মী চেয়ে সম্প্রতি বিজ্ঞাপন প্রকাশ করা হয়েছে। আবেদন করা যাবে ১০ ডিসেম্বর পর্যন্ত। দেওয়া হবে ২৫ হাজার টাকা বেতন ও অন্যান্য ভাতা।

যোগাযোগ : আইডিয়াল ট্রেড সেন্টার, দশম তলা, ১০২ তাজউদ্দীন আহমদ এভিনিউ, তেজগাঁও, ঢাকা।

হাতিল ফার্নিচার
বাণিজ্য মেলায় ২৫ জন বিক্রয়কর্মী নিয়োগ দেবে হাতিল ফার্নিচার। ২০ থেকে ২৫ বছর বয়স এবং স্নাতক পাস হলেই আবেদন করা যাবে। বিডিজবসের মাধ্যমে আবেদন করা যাবে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত। বিক্রয়ের কাজে দক্ষতা দেখাতে পারলে স্থায়ী কর্মী হিসেবে কাজের সুযোগ দেবে প্রতিষ্ঠানটি। বেতন ও অন্যান্য সুবিধা আলোচনার মাধ্যমে নির্ধারণ করা হবে।

ফিট এলিগ্যান্স
মেলায় রেডিমেট পোশাক বিক্রয় ও বিপণনের জন্য সেলস এক্সিকিউটিভ পদে লোক নেবে ফিট এলিগ্যান্স। যোগ্যতা থাকতে হবে এইচএসসি পাস। স্নাতক বা স্নাতকোত্তর পর্যায়ে অধ্যয়নরতরাও সিভি পাঠাতে পারবেন। তবে আগে কোনো ইভেন্ট বা বিক্রয়কাজে অভিজ্ঞরা অগ্রাধিকার পাবেন। নিয়োগপ্রাপ্তদের দুই শিফটে কাজের সুয়োগ রয়েছে। প্রতি শিফটে ছয় ঘণ্টা কাজ করতে হবে। দুই কপি ছবিসহ সিভি পাঠানো যাবে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত। বেতন ও অন্যান্য সুবিধা দেওয়া হবে যোগ্যতার ভিত্তিতে আলোচনার মাধ্যমে। যোগাযোগ : ১৮৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, শান্তা ওয়েস্টার্ন টাওয়ার, বীর-উত্তম শওকত রোড (গুলশান-তেজগাঁও লিংক রোড), ঢাকা-১২০৮।

অ্যালয় আলুমিনিয়াম ফার্নিচার
সেলস প্রমোটর বা সেলস গার্ল পদে ২০ জন নিয়োগ দেবে অ্যালয় আলুমিনিয়াম ফার্নিচার। শুধু মেয়েরা আবেদন করতে পারবে। যোগ্যতা এইচএসসি। স্মার্ট, গুছিয়ে কথা বলতে পারাদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। বয়স কমপক্ষে ১৮ বছর। বেতন ও অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা নির্ধারণ করা হবে আলোচনা সাপেক্ষে। সিভি জমা দেওয়া যাবে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত।

যোগাযোগ : ৩৩৭/১/এ (ফ্লোর-২), ডিআইটি রোড, পশ্চিম রামপুরা, ঢাকা-১২১৯।

আরো খোঁজ জানতে
সাধারণত নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হয় ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহ থেকে। অনেক প্রতিষ্ঠান সংবাদপত্রে বিজ্ঞাপন দিয়ে আগ্রহী কর্মীদের খোঁজ করে। এ ছাড়া বিডিজবসসহ চাকরির পোর্টালগুলোতে কর্মী চেয়ে বিজ্ঞাপন দেয় নিয়োগ কর্তৃপক্ষ। আগে মেলায় কাজ করেছেন এমন ব্যক্তিদের সঙ্গে অনেক প্রতিষ্ঠানের যোগাযোগ থাকে। তাই তাঁদের সহযোগিতায় কাজের সুযোগ পেতে পারেন। অনেক প্রতিষ্ঠান ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট কম্পানির মাধ্যমেও কর্মী নিয়ে থাকে। সে জন্য যোগাযোগ রাখতে পারেন ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট কম্পানিগুলোতে।

বেতন-ভাতা
প্রতিষ্ঠানভেদে বেতন ও সুযোগ-সুবিধা ভিন্ন হয়ে থাকে। সাধারণত নতুন কর্মীদের ১০ থেকে ১৫ হাজার টাকা বেতন দিয়ে থাকে। দক্ষ কর্মীদের বেতন প্রতিষ্ঠানভেদে ১৫ থেকে ৩০ হাজার টাকা হতে পারে। অনেক প্রতিষ্ঠান বিক্রয়ের ওপর কমিশন ও বাড়তি কিছু সুবিধা দেয়। বিকেলের নাশতা ও ট্রান্সপোর্ট সুবিধা দেয় অনেক প্রতিষ্ঠান। 

মন্তব্য