kalerkantho


উপসহকারী প্রকৌশলী নেবে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়

উপসহকারী প্রকৌশলী পদে ১১০ জন লোক চেয়ে বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। অনলাইনে আবেদন করা যাবে ২১ ডিসেম্বর পর্যন্ত। বিস্তারিত জানাচ্ছেন রিয়াজুর রহমান

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১০:৪১



উপসহকারী প্রকৌশলী নেবে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়

উপসহকারী প্রকৌশলী (বি/আর) পদে ৭৭ জন এবং উপসহকারী প্রকৌশলী (ই/এম) পদে ৩৩ জন নিয়োগ দেবে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন মিলিটারি ইঞ্জিনিয়ার সার্ভিসেস (এমইএস)।   আবেদনপত্র জমা দেওয়া যাবে ২১ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

বিজ্ঞপ্তিটি পাওয়া যাবে http://bit.ly/2kj0eTc লিংকে।

আবেদনের যোগ্যতা
উপসহকারী প্রকৌশলী (বি/আর) পদে কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীন কোনো পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট থেকে থাকতে হবে ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং (সিভিল) ডিগ্রি।

উপসহকারী প্রকৌশলী (ই/এম) পদে আবেদনের জন্য থাকতে হবে ইলেকট্রিক্যাল ও মেকানিক্যাল বিষয়ে ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি। আবেদন করা যাবে যেকোনো একটি পদে। আবেদনকারীর বয়সসীমা সর্বোচ্চ ৩০ বছর। তবে মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধার সন্তান এবং প্রতিবন্ধীদের জন্য সর্বোচ্চ বয়সসীমা ৩২ বছর।

আবেদনের নিয়ম
শুরু হয়ে গেছে আবেদনপ্রক্রিয়া। অনলাইনে আবেদন করা যাবে ২১ ডিসেম্বর পর্যন্ত। আবেদনপত্র পাওয়া যাবে http://mes.teletalk.com.bd/apply.php ওয়েব ঠিকানায়।

নির্দেশনা মেনে অনলাইনে পূরণ করতে হবে আবেদন ফরম। নির্দিষ্ট স্থানে আপলোড করতে হবে আবেদনকারীর স্বাক্ষর (৩০০ বাই ৮০ পিক্সেল) ও ছবি (৩০০ বাই ৩০০ পিক্সেল)। ফাইল সাইজ হবে যথাক্রমে সর্বোচ্চ ৬০ ও ১০০ কেবি। সরকারি চাকরিজীবীদের জন্য ডিপার্টমেন্টাল ক্যান্ডিডেট ঘরে টিক চিহ্ন দিতে হবে। চূড়ান্ত সাবমিট করার আগে কোনো ভুল তথ্য আছে কি না দেখে নিতে হবে। আবেদন সাবমিট করার পর ইউজার আইডি, ছবি, স্বাক্ষরসহ অ্যাপ্লিক্যান্টস কপি পাওয়া যাবে। এটি ডাউনলোড ও প্রিন্ট করে সংরক্ষণ করতে হবে। পরে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে ইউজার আইডি দিয়ে পরীক্ষা ফি বাবদ ৫০০ টাকা পরিশোধ করতে হবে। যেকোনো টেলিটক প্রিপেইড নম্বর থেকে mes<space>User ID লিখে পাঠাতে হবে ১৬২২২ নম্বরে। ফিরতি মেসেজের নির্দেশনা অনুসারে mes<space>Yes<space>PIN লিখে ১৬২২২ নম্বরে পাঠালেই পরিশোধ হয়ে যাবে পরীক্ষার ফি। সঙ্গে সঙ্গে পাওয়া যাবে একটি পাসওয়ার্ড। পাসওয়ার্ডটি সংরক্ষণ করতে হবে, প্রবেশপত্র ডাউনলোডের সময় কাজে লাগবে এটি।

যা যা লাগবে
মৌখিক পরীক্ষার সময় সঙ্গে আনতে হবে সব শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদ, জাতীয় পরিচয়পত্রের সত্যায়িত কপি, চেয়ারম্যান, মেয়র বা কাউন্সিলরের দেওয়া নাগরিকত্ব সনদ, অনলাইন অ্যাপ্লিকেন্টস কপি, মুক্তিযোদ্ধা বা অন্য কোনো কোটায় আবেদন করলে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দেওয়া স্বাক্ষরিত ও প্রতিস্বাক্ষরিত সনদ। সরকারি চাকরিজীবীদের লাগবে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দেওয়া অনাপত্তিপত্রের মূল কপি।

পরীক্ষার সময় ও প্রবেশপত্র
মোবাইলে এসএমএসের মাধ্যমে পরীক্ষার সময়, প্রবেশপত্র ও পরীক্ষার স্থান জানিয়ে দেওয়া হবে। এসএমএস পাওয়ার পর ইউজার আইডি দিয়ে ডাউনলোড করতে হবে প্রবেশপত্র। বিস্তারিত জানা যাবে http://mes.teletalk.com.bd ওয়েবসাইট থেকেও।

পরীক্ষার ধরন ও প্রস্তুতি
প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রকৌশলী উপদেষ্টা কর্নেল মো. মাহমুদুর রহমান জানান, লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা হবে। লিখিত পরীক্ষার ধরন এখনো চূড়ান্ত করা হয়নি। চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হলে প্রার্থীদের এসএমএসে জানিয়ে দেওয়া হবে।

তবে বিগত সালের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নে দেখা গেছে, লিখিত পরীক্ষা হয় এমসিকিউ আকারে। নম্বর বরাদ্দ থাকে ১০০।

প্রশ্ন আসে বাংলা, গণিত, ইংরেজি ও সাধারণ জ্ঞান থেকে। সঙ্গে কিছু পদসংশ্লিষ্ট প্রশ্নও থাকে। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের নেওয়া যাবে মৌখিক পরীক্ষা। মৌখিক পরীক্ষায় সাধারণত পদসংশ্লিষ্ট বিষয় ছাড়াও প্রশ্ন করা হয় সাধারণ জ্ঞান ও নানা মৌলিক বিষয়ে।

বেতন-ভাতা
উপসহকারী প্রকৌশলী (বি/আর) এবং উপসহকারী প্রকৌশলী (ই/এম) পদের জন্য বেতন স্কেল ২০১৫ অনুসারে দশম গ্রেডের স্কেল অনুসারে বেতন দেওয়া হবে ১৬০০০-৩৮৬৪০ টাকা স্কেলে। পাওয়া যাবে অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা।

যোগাযোগ
নিয়োগসংক্রান্ত যেকোনো তথ্যের জন্য ভিজিট করতে পারেন ww.mod.gov.bd বা  www.mes.org.bd ঠিকানায়। অথবা সরাসরি যোগাযোগ করা যাবে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়, গণভবন কমপ্লেক্স, শেরেবাংলা নগর, ঢাকা-১২০৭ ঠিকানায়। ফোন করা যাবে ০২-৯১১১০০৩ নম্বরে।



মন্তব্য