kalerkantho

horror-club-banner

এটা কি সত্যিই ভূতের কণ্ঠ? (ভিডিওসহ)

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২ আগস্ট, ২০১৭ ২১:৪৩



শত বছরের পুরনো এক আদালত ভবন থেকে যদি ভেসে আসে ভূতুড়ে কণ্ঠে মিনতি, তাহলে কার না ভয় লাগে। আর সে কণ্ঠ যদি হয় একেবারে ব্যাখ্যাতীত, তাহলে তা যেন ভূতের অস্তিত্বকেই প্রমাণ করে। তেমনই এক ঘটনার ভিডিও প্রকাশ করেছে ডেইলি মেইল।

ভূত খুঁজে বেড়ানো ব্যক্তিরা নিজেদের ‘ঘোস্ট হান্টার’ বলেন। আর তেমনই এক ঘোস্ট হান্টার ৩৩ বছর বয়সী সিন রেনল্ডস। তিনি সম্প্রতি রোমহর্ষক এক ভিডিও প্রকাশ করেছেন।

যুক্তরাজ্যের লিভারপুলে ধারণ করা ভিডিওতে উঠে এসেছে পুরাতন আদালত ভবনের অভ্যন্তরে এক নারীর রহস্যময় কণ্ঠ। এতে তিনি বারবার করুণ কণ্ঠে বলছিলেন ‘আই নেভার। ’

পুরনো সে ভবনটিকে অতীতে ব্যবহার করা হত একটি মার্কেট হিসেবে। তবে তার আগে এটি ছিল একটি ব্যাংক, টাউন হল ও আদালত ভবন। তবে এ ভবনে রহস্যময় কণ্ঠ শোনা যায়, এমনটা আগেও জেনেছিলেন ভূতসন্ধানী সে ব্যক্তি।

এ কারণে তিনি নিজেই সেখানে অনুসন্ধান করতে যান।

অন্ধকারে ভিডিও ক্যামেরাসহ সিন রেনল্ডস যখন ভেতরে যান তখনই অস্পষ্ট স্বরে শুনতে পাচ্ছিলেন এক নারীর কণ্ঠ। এরপর তিনি যখন আবার বলার অনুরোধ করেন তখন সে অতিপ্রাকৃত নারী আবার কথাটি বলেন, যা শুনে মনে হচ্ছিল ‘আই নেভার। ’ সে রেকর্ডিংয়ের সময় আশপাশে কোনো মানুষ ছিল না, যে এভাবে ভূতুড়ে স্বরে কথা বলবে।

কিন্তু কেন তিনি বলছিলেন ‘আই নেভার?’ এ প্রসঙ্গে ভূত সন্ধানী সিন রেনল্ডস বলেন, এখানে প্রায় একশ বছর আগে আদালত ছিল। আর সে আদালতেই ভুল অভিযোগে মৃত্যুদণ্ড পাওয়া কোনো নারীর আত্মা হয়ত এখনও সেখানে রয়ে গিয়েছে। আজও বারবার মিনতি করে বলছে যে, সে কখনোই ওই কাজটি করেনি। তার প্রতি অবিচার করা হয়েছে!


মন্তব্য