kalerkantho

horror-club-banner

হরর ক্লাব : কবরস্থানের সেই শিশু ভূত

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১১ মার্চ, ২০১৭ ১২:২৭



হরর ক্লাব : কবরস্থানের সেই শিশু ভূত

বিশ্বের নানা দেশে বিভিন্ন সময় অনেকের ক্যামেরায় উঠে এসেছে ভূতের প্রমাণ, যার কোনো ব্যাখ্যা নেই। এসব ছবির সত্যাসত্য নিয়ে বিতর্ক থাকলেও বহু মানুষেরই শিরদাঁড়া দিয়ে শীতল স্রোত বয়ে যায় এ ছবি দেখে। এ লেখায় তুলে ধরা হলো তেমন এক প্রমাণ। ধারাবাহিকভাবে এ ধরনের বেশ কয়েকটি ছবি প্রকাশিত হবে কালের কণ্ঠে। আজ পাচ্ছেন তার ১০ম পর্ব।
কবরস্থানের সেই শিশু ভূত
কবরস্থানের ভূত নিয়ে সারা বিশ্বে বহু সাহিত্য রয়েছে। তবে এটি তেমন কোনো সাহিত্য নয়। এক নারী তার কন্যার কবর  থেকে এ ছবিটি তুলেছিলেন। তবে ছবিটি বেশ পুরনো হওয়ায় ঝাপসা হয়ে গিয়েছে। অবশ্য ছবিতে যে অস্বাভাবিকতা রয়েছে, তা এখনও স্পষ্ট।
অস্ট্রেলিয়ার অধিবাসী মিসেস অ্যান্ড্রিউসের কন্যা মারা যায় অল্প বয়সেই।

তাকে কবর দেওয়া হয় একটি কবরস্থানে। ১৯৪০ সালের ঘটনা এটি। এরপর তিনি প্রায়ই তার মেয়ের কবরে যেতেন। একবার তিনি সেখানে একটি ছবি তোলেন। সে ছবিটি পরবর্তীতে প্রিন্ট করলেই দেখা যায় এ ঘটনা। ছবিটি এমনিতে ঠিকই ছিল। কিন্তু তাতে একটি শিশুকে বসে থাকতে দেখা যায়, যে বাস্তবে সেখানে ছিল না। তিনি সেদিন কবরস্থানে ছবি তোলার সময় সঙ্গে কোনো শিশু নেননি। আশপাশে কোনো মানুষজনও ছিল না। শিশু থাকার তো প্রশ্নই ওঠে না।
কিন্তু ঘটনাটি আরও আশ্চর্যজনক ছিল এজন্য যে, শিশুটি তার কন্যা নয়। তাহলে তার কন্যার কবরের পাশে এ শিশুটি কে? সে রহস্যের কিনারা হয়নি কোনোদিনই।
পরবর্তীতে অনুসন্ধানে তিনি জানতে পেরেছেন, তার কন্যার কবরের পাশেই আরও দুটি শিশুকে কবর দেওয়া হয়। আর ছবিতে হয়ত ওই দুই শিশুর আত্মার উপস্থিতি থাকতে পারে। এরপর অবশ্য সেখানে ছবি তুললেও আর দেখা যায়নি সে শিশুদের।


মন্তব্য