kalerkantho

horror-club-banner

হরর ক্লাব : নার্সের ক্যামেরায় উঠে আসে রোগীর মৃত্যুকালে যমদূত (২)

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২ মার্চ, ২০১৭ ১২:২৮



হরর ক্লাব : নার্সের ক্যামেরায় উঠে আসে রোগীর মৃত্যুকালে যমদূত (২)

ভূত আছে কি নেই তা নিয়ে অনেকেই সন্দিহান। তবে বিভিন্ন সময় অনেকের ক্যামেরায় উঠে এসেছে ভূতের প্রমাণ। এসব ছবির সত্যাসত্য নিয়ে বিতর্ক থাকলেও বহু মানুষেরই শিরদাঁড়া দিয়ে শীতল স্রোত বয়ে যায় এ ছবি দেখে। এ লেখায় তুলে ধরা হলো তেমন এক প্রমাণ। ধারাবাহিকভাবে এ ধরনের বেশ কয়েকটি ছবি প্রকাশিত হবে কালের কণ্ঠে। আজ পাচ্ছেন তার দ্বিতীয় পর্ব।

হাসপাতালের সেই যমদূত
নাম-পরিচয় গোপন রেখে এক নার্স তার নিজ কর্মস্থলের হাসপাতালে এ ছবিটি তুলেছেন। এতে দেখা যায়, হাসপাতালে মুমূর্ষু রোগী শুয়ে আছে। রোগীর অবস্থা এতই খারাপ যে প্রাণ যায় যায়। এ সময়ই ভয়ংকর সেই দৃশ্য দেখা যায়। কালো একটি ছায়ার মতো দৈত্যকার দেহ এক রোগীর দেহের ওপরই দাঁড়িয়ে আছে।


হাসপাতালে কর্মরত সেই নার্সও বিষয়টি টের পান। তিনি বুঝতে পারেন রোগীর মৃত্যুকালে হয়তো তার ওখানে কোনো একটি অস্বাভাবিক কারো উপস্থিতি দেখা যাচ্ছে। আর এ কারণে তিনি ক্যামেরায় বিষয়টির ছবি তুলে রাখেন। তবে ছবিটি বেশ পুরনো আর সে সময় ভালো ক্যামেরাও ছিল না। তাই ছবিটি অস্পষ্ট হয়েছে।

নার্স জানান, ছবিটি তোলার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই জীবন বাঁচানোর সব চেষ্টা ব্যর্থ করে দিয়ে রোগী মারা যান। এ প্রশ্নে কারো গ্রহণযোগ্য মতামত পাওয়া যায়নি।
কিন্তু রোগী মারা যাওয়ার সময় কী কারণে এ অশরীরির ছবি উঠে এলো ক্যামেরায়?

অনেকেই বলছেন, হাসপাতালে রোগীর অবস্থা যদি খুব খারাপ হয়ে যায় তাহলে এমনটা দেখা যায়। মৃত্যুর পর রোগীর আত্মাকে ধরে নিয়ে যাওয়ার জন্যই তার আগমন ঘটে। এ সময় রোগী যেতে না চাইলেও তাকে যেতে হয়। ফলে প্রায়ই ভয়ংকর অবস্থার সৃষ্টি হয়। আর এ ধরনের একটি প্রমাণই উঠে এসেছে এই ছবিতে।


মন্তব্য