kalerkantho


ফেসবুক অফলাইন

অনলাইনে মজার মজার গল্প, বুদ্ধিদীপ্ত কৌতুক, সাম্প্রতিক বিষয়-আশয় নিয়ে নিয়মিত স্ট্যাটাস দিয়ে যাচ্ছেন পাঠক-লেখকরা। সেগুলোই সংগ্রহ করলেন ইমন মণ্ডল

২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



ফেসবুক অফলাইন

“২৫ দিনে বাচ্চার ওজন ৪০ কেজি

বরিশালে অদ্ভুত এক বাচ্চার জন্ম হয়েছে। জন্মের সময় বাচ্চার ওজন ছিল পাঁচ কেজি। জন্মের ঠিক পাঁচ মিনিট পর বাচ্চাটি দাঁড়িয়ে যায়। এর পরের দিনই বাচ্চাটি দৌড়াতে শুরু করে। ২৫ দিন পর এর ওজন মেপে দেখা যায় প্রায় ৪০ কেজি।

ঘটনাটি সত্যি। কারণ বাচ্চাটি একটি মহিষের বাচ্চা ছিল।

আরিফ আর হোসেইন

 

বোঝার ভুল

: রুমি, রেললাইনে কাঁটা পড়ছে।

—ইয়া! কী কস? রুমি রেললাইনে কাটা পড়ছে?

 : না, রুমির চুলের কাঁটা রেললাইনে পড়ে গেছে! সেটা রুমিকে বলছি!

শুভ দেব নাথ

 

মা : বাবু, তুই তাড়াতাড়ি বাড়ি আয়। বউমার প্যারালাইসিস অ্যাটাক হয়েছে!

মুখ বেঁকে যাচ্ছে, চোখ কপালে উঠছে, ঘাড় ঘুরে যাচ্ছে!

বাবু : ছেড়ে দাও মা, ওকে ডিস্টার্ব করো না। ও সেলফি তুলছে।

সুমাইয়া সুমু

 

হবে না

যখনই পুরা ডিটারমাইন্ড হই যে ওয়েট কমাতে হবে, ওয়াক আউট স্টার্ট করব, তখনই হয় আম্মু বিরিয়ানি রান্না করে, পুডিং বানায় বা বাসায় মেহমান এলে আইসক্রিমের ডিব্বা নিয়ে আসে!

এ জনমে মনে হয় না আমার আর ওয়েট কমানো হইছে।

অরোরা রহমান নিশি

 

আগে এখন

আগে মানুষ মেলা থেকে বের হতো প্যাকেট দেখতে দেখতে। এখন বের হয় ক্যামেরার অ্যালবাম দেখতে দেখতে। দেখে ছবি ঠিক আছে তো?

ইশতিয়াক আহমেদ

 

বসন্তের ছবি

দুঃখিত! পোস্ট করার মতো বসন্তের কোনো ছবি নাই আমার। কারণ, আম্মায় কইছে, আমার নাকি বসন্ত হইছিল সেই ছোটবেলায়। তখন সবার হাতে হাতে ক্যামেরা ছিল না।

শাকীর এহসানুল্লাহ

 

কার্ড কেনাই হয় না। গেলাম কার্ড কিনতে। সবচেয়ে বেশি যে কার্ডটা চলছে, সেটা হলো ‘‘You’re My One and Only’’ লেখা খুব সুন্দর একটা কার্ড।

সেই কার্ডের ওপর আবার ভ্যালেন্টাইন ডে অফার চলছে। একটার দাম ৫০ টাকা। চারটার দাম ১০০ টাকা...একটা কেনা দেখি লস। সবাই ধুমায়ে প্যাকেজ অফারে যাচ্ছে।

একটু মিতব্যয়ী বলে আমি চারটা কিনে চারটাই বউকে দিয়েছি। সে বলে, ‘এতগুলো কেমনে এলো? দেখি তো আরো আছে নাকি ব্যাগে? আশ্চর্য, এতগুলো কেন তোমার কাছে?’

সে আমার ব্যাগ এফোঁড়-ওফোঁড় করে শেষ। দুনিয়ায় মিতব্যয়ীর দাম নাই।

আরিফ আর হোসেইন

 

 

সিনেমা

সিনেমা বানালে এন্টারটেইনিং হওয়া উচিত! হিট তো চুলা, আয়রন মেশিনও হয়।

নাহিয়ান ইমন

 

স্ট্যাটাস

এক ছেলে স্ট্যাটাস দিয়েছে, আই লাভ ইউ। একটা মেয়ে দেখলাম স্ট্যাটাসে কমেন্টস করছে, ‘কপি করলেন কেন?’

ফরিদুল ইসলাম নির্জন

 

আমি একদিন এক দোকানের সামনে দাঁড়িয়ে আছি, দোকানের লোক জিজ্ঞেস করল, ভাই, আমনে খি খরেন?

আমি বললাম, আমি ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার।

উনি (চাটগাইয়া ভাষায়) বললেন, ইলক্ট্রিক! খারন্ট! খারন্টের আবার ইঞ্জিনিয়ার লাগেনি? খারন্টের তো মেস্তরি অইলেই অয়।

ফরিদ উদ্দিন

 

টারজান

টারজান কাকু জঙ্গলে বইসা গার্লফ্রেন্ড পায় আর আমরা সমাজে থাইকা পাই না।

ইসরাফিল শাহীন

 

কমন প্রশ্ন

কমন প্রশ্ন, ভাই শুকাইলেন ক্যামনে?

সরল উত্তর, জি, রোদে!

সুমন আহমেদ

 

স্বামী কাব্য

স্বামী মানে পোষ মানা

ময়নার বুলি

স্বামী মানে মার্কেটে

ব্যাগ হাতে কুলি

স্বামী মানে আলাদিনের

চেরাগের দানো

স্বামী মানে হুকুমে

সঁপে দেওয়া জান-ও

স্বামী মানে ব্যাংকের

এটিএম বুথ

স্বামী মানে মাঝে মাঝে

ফহিন্নির পুত

স্বামী মানে বিরোধী দল

অলওয়েজ ফাইট

স্বামী মানে রোজকার

তিনবেলা টাইট

স্বামী মানে খামোখা

আমড়ার ঢেঁকি

স্বামী মানে কর্তা

পুরোটাই মেকি

স্বামী মানে শেষ নবাব

সিরাজের হাল

স্বামী মানে ফাঁদে পড়া

ক্লাইভের চাল

স্বামী মানে সার্কাস

ক্লাউনের রূপ

স্বামী মানে মেনে নেওয়া

আঁধারির কূপ।

আলমগীর রাসেল

 

আমার আম্মা

আম্মা : তুই এমন ক্যান?

আমি : কেমন?

আম্মা : আজকের ওয়েদারে কেউ ঘরে বইসা থাকে?

আমি : হ, আমি থাকি।

আম্মা : যাহ, বাইরে যা। কফি খায়া আয়।

আমি : টেহা নাই।

আম্মা : এই নে (টাকা দিল) যা, ঘুইরা আয়।

আমি : আইচ্ছা, যাইতাছি।

অতঃপর রেডি হইয়্যা বাইর হমু এমন সময় আম্মায় আইসা বাজারের ব্যাগ, লিস্ট আর টাকা দিয়া বলল, এইগুলা আইনা দিয়া তারপর যাহ।

আমি : আম্মা, এই ছিল তোমার মনে?

আম্মা : হ।

আমি : এই জন্য এতক্ষণ ধইরা আমারে বাইরে যাইতে বলতাছ?

আম্মা : এত্ত পরে বুঝলি? তুই তো টিউবলাইট।

আমি : কিচ্ছু বলার নাই।

ওয়াজেদুর রহমান ওয়াজেদ


মন্তব্য