kalerkantho


বইমেলায় সমস্যা

বইমেলায় লেখক-পাঠকদের প্রায়ই কিছু সমস্যায় পড়তে দেখা যায়। সেই সমস্যার কথাই জানাচ্ছেন আফরিন সুমু

৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



বইমেলা এলেই পাঠক মহলে সৌজন্য কপির চাহিদা বেড়ে যায়। লেখকরা ভোগেন সৌজন্য কপি সংকটে।

ক্রেতা : আক্কাস আলী ভাই, এবার আপনার নতুন বই কী এসেছে? সৌজন্য কপি দিতে হবে কিন্তু। সঙ্গে একটা অটোগ্রাফ।

লেখক : জি, এবার আপনাদের কথা চিন্তা করেই লিখলাম। বইয়ের নাম ‘সৌজন্য কপি’। দাম ২০০ টাকা মাত্র।

 

 

অটোগ্রাফ দেওয়া নিয়ে সমস্যা লেখকদের অত্যন্ত পুরনো। তাঁরা অটোগ্রাফ দিতে চান, কিন্তু কেউ নিতে চায় না।

প্রথম বন্ধু : দোস্ত, বই লিখলাম, কেউ তো অটোগ্রাফ চায় না। ডেকে ডেকে অটোগ্রাফ দেব কি না ভাবছি।

দ্বিতীয় বন্ধু : তা কী করে হয়? এটা তো প্রেস্টিজ ইস্যু। তার চেয়ে বরং বইয়ে আগে থেকেই অটোগ্রাফ দিয়ে রাখ। বই কিনলে অটোগ্রাফ ফ্রি।

 

 

লেখার অধিকার আছে সবার। সেই সূত্রে পাশের বাসার ভাবি-আন্টিরা যদি বই বের করার প্রতিযোগিতায় নামেন।

প্রথম লেখিকা : ভাবি বইমেলায় যাচ্ছেন তো? রূপচর্চার স্পেশাল টিপস নিয়ে আমার বই, ‘রূপের ষোলোকলা’ কিনবেন অবশ্যই।

দ্বিতীয় লেখিকা : আরে ভাবি, আমি তো আপনাকে বলতেই ভুলে গেছি। আমার রান্নার বই ‘হরেক রকম নুডলসের আচার’ দ্বিতীয় খণ্ড বের করছি এবার। পড়ে দেখবেন। প্রথম খণ্ডের কয়েকটি কপি স্পেশালদের জন্য রেখে দিয়েছি। ওটাও এক কপি কালেক্ট করবেন কিন্তু।


মন্তব্য