kalerkantho


অতএব সাবধান!

মো. মাহাবুবুর রহমান চৌধুরী

৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



অতএব সাবধান!

: হ্যালো, রহমান সাহেব আছেন?

— জি জি, বলছি, আপনি কে বলছেন?

: আমি সোহানা বলছিলাম।

— বাহ! ভারি মিষ্টি নাম তো। আপনার কণ্ঠটাও দারুণ।

: কী যে বলেন না।

— সত্যি বলছি।

: যাহ, আপনি বাড়িয়ে বলছেন।

— বিশ্বাস করুন, একটুও বাড়িয়ে বলছি না। আচ্ছা, আপনার কণ্ঠের মতো আপনি দেখতেও নিশ্চয়ই অনেক সুন্দরী?

: না না, আমি আসলে অতটা সুন্দরী না। আপনি ভুল করছেন।

— হতেই পারে না, আপনি অবশ্যই অনেক সুন্দরী।

: কী করে বুঝলেন?

— আমার মন বলছে।

: ইন্টারেস্টিং! তা আপনার মন আর কী কী বলছে?

— সব কি ফোনে বলা যায়। চলুন না, আমরা কোনো রেস্টুরেন্টে গিয়ে দেখা করি?

: এত তাড়া কিসের? কেবল তো পরিচয় হলো।

— প্লিজ! না বলবেন না। আমি আজই আপনার সঙ্গে দেখা করতে চাই। বিকেলে ধানমণ্ডির আল সালাদিয়া রেস্টুরেন্টে চলে আসুন।

: তবে রে মিনসে! গতকাল ফ্রিজের ঠাণ্ডা পানি খেয়ে আমার গলা একটু বসে গিয়েছিল। তাই একটা অপরিচিত নম্বর থেকে কল দিয়ে টেস্ট করে দেখছিলাম তোমার স্বভাব-চরিত্র সব ঠিক আছে কি না। গলা বসে যাওয়ায় নিজের বউয়ের কণ্ঠও চিনতে পারছ না, না? অফিসে বসে আজকাল তাহলে এসব করা হয়? মেয়েদের কণ্ঠ শুনলে আর হুঁশ থাকে না! বসে যাওয়া ফ্যাসফ্যাসে গলাও মিঠা লাগে! আজকে শুধু বাসায় আসো, তারপর দেখাব কিভাবে আল সালাদিয়া রেস্টুরেন্টে যেতে হয়!


মন্তব্য