kalerkantho


রক্তিম নেকড়ে চাঁদ আজ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২১ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০



রক্তিম নেকড়ে চাঁদ আজ

উত্তর গোলার্ধের আকাশে আজ সোমবার দেখা যাবে স্বর্গীয় দৃশ্য ‘সুপার ব্লাড উল্ফ মুন’। আকাশে অতি রক্তাভ পূর্ণিমার চাঁদের সঙ্গে দুর্লভ পূর্ণ চন্দ্রগ্রহণ ঘটবে আজ। বিজ্ঞানীরা একে উল্ফ মুন বা নেকড়ে পূর্ণিমাও বলে থাকেন। তবে বাংলাদেশ তথা এশিয়ায় অবস্থান করা মানুষ এই দৃশ্য দেখা থেকে বঞ্চিত হবে।

ব্রিটেনের সময় আজ ভোর ৫টা ১২ মিনিটে (বাংলাদেশ সময় সকাল ১১টা ১২ মিনিটে) পূর্ণ চন্দ্রগ্রহণ ঘটবে। এই সময়ই আকাশে উদ্ভাসিত হবে অতি রক্তাভ নেকড়ে পূর্ণিমা। তবে এই গ্রহণ শুরু হবে ব্রিটেনের ভোররাত ২টা ৩৬ মিনিট থেকে। ভোর ৫টা ১২ মিনিটে পূর্ণগ্রহণকালে চাঁদ হয়ে উঠবে অতি রক্তাভ। ব্রিটেন ছাড়াও ইউরোপের গ্রিনল্যান্ড, আইসল্যান্ড, আয়ারল্যান্ড, নরওয়ে, সুইডেন, পর্তুগাল স্পেন ও স্পেনের উপকূলীয় এলাকায় এই দৃশ্য দেখা যাবে। দেখা যাবে উত্তর আমেরিকার আকাশেও। তবে এশিয়া, অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের মানুষ এই দৃশ্য দেখা থেকে বঞ্চিত হবে।

কখনো কখনো জানুয়ারি মাসের পূর্ণিমাকে বিজ্ঞানীরা উল্ফ মুন বা নেকড়ে পূর্ণিমা বলে থাকেন। মূলত বছরে একাধিক পূর্ণিমা দেখা দিলে প্রথমটি অর্থাৎ জানুয়ারির পূর্ণিমাকে উল্ফ মুন বলা হয়। জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা এবারের সুপার মুন নিয়ে ব্যাপক আগ্রহী। কারণ আগামী দুই বছর এই দৃশ্য দেখাবে আরো অনেকবার।

ব্রিটেনের রয়াল অবজারভেটরি গ্রিনিচের জ্যোতির্বিজ্ঞানী টন কারস দি গার্ডিয়ানকে বলেন, ‘আমরা পূর্ণ চন্দ্রগ্রহণকালে একটি ব্যক্তিক্রমী দৃশ্য দেখতে পাব আগামী দুই বছর ধরে। সুতরাং দীর্ঘ সময় ধরে দেখতে পারার কারণে এটা প্রকৃতপক্ষেই দারুণ ব্যাপার।’ তিনি জানান, আগামী ২০২১ সাল পর্যন্ত মাঝে মাঝে এই দৃশ্য দেখা যাবে আকাশে। তবে এই দৃশ্য দেখতে হলে আকাশ পরিষ্কার থাকতে হবে।

বিজ্ঞানীরা জানান, চলতি বছরের মোট তিনবার সুপারমুন দেখা যাবে। আজকের সুপার ব্লাড উল্ফ মুনের পর আগামী ১৯ ফেব্রুয়ারি এবং মার্চের পূর্ণিমায় সুপানমুন দেখা যাবে। চাঁদ পৃথিবীর কাছাকাছি থাকায় সুপারমুন দেখা যায়। এবার একই সঙ্গে ঘটতে যাচ্ছে পূর্ণ চন্দ্রগ্রহণ, যাকে দুর্লভ বলছেন বিজ্ঞানীরা। এই সময় সূর্যের আলো পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে প্রবেশের পর লাল রং ছাড়া অন্যান্য আলো হারিয়ে যায়। এ জন্য চাঁদকে অতি রক্তাভ দেখে মানুষ। সূত্র : দি গার্ডিয়ান ও ডেইলি মেইল।

 



মন্তব্য