kalerkantho


প্লাস্টিকদূষণ বিরোধী প্রচারে ইইউ রাষ্ট্রদূত

হাতিরঝিলে কুড়ালেন ১০ বস্তা প্লাস্টিক, পলিথিন

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

১৯ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০



প্লাস্টিকদূষণ বিরোধী প্রচারে ইইউ রাষ্ট্রদূত

হাতিরঝিল এলাকায় প্লাস্টিকের টুকরা ও পলিথিন কুড়াচ্ছেন ইইউ রাষ্ট্রদূত রেঞ্চা টিয়েরিংক। ছবি : ইইউ দূতাবাস

রাজধানীর হাতিরঝিল লেক এলাকায় পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রমে অংশ নিয়েছেন বাংলাদেশে ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) প্রতিনিধিদলের প্রধান ও রাষ্ট্রদূত রেঞ্চা টিয়েরিংকসহ ইইউ মিশনের কর্মীরা। ইইউর প্লাস্টিকবিরোধী নীতির অংশ হিসেবে গতকাল বৃহস্পতিবার তাঁরা এ প্রচারণায় অংশ নেন। এ ছাড়া বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনের প্রায় ৪০ জন কর্মীও তাঁদের সঙ্গে যোগ দেন।

ইইউ দূতাবাস জানায়, প্লাস্টিকদূষণের ব্যাপারে বৈশ্বিক উদ্বেগের পরিপ্রেক্ষিতে ইইউ প্লাস্টিকবিরোধী অবস্থান নিয়েছে। এর অংশ হিসেবে ইইউ ও বিশ্বজুড়ে অংশীদার দেশগুলোতে বিপজ্জনক প্লাস্টিক নিরুৎসাহিত করতে বিভিন্ন উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

ইইউ দূতাবাস জানায়, ঢাকার বাসিন্দারা হাতিরঝিল এলাকাকে বিশুদ্ধ বাতাস নেওয়ার স্থান হিসেবে বিবেচনা করে থাকে। কিন্তু প্লাস্টিক ও অন্যান্য আবর্জনা ফেলায় সুন্দর এই লেকটিও সমস্যায় পড়ছে। লেক সম্পর্কে জনসচেতনতা সৃষ্টির অংশ হিসেবে ইইউ মিশন গতকাল সেখানে পরিচ্ছন্নতা অভিযান চালিয়েছে। জানা গেছে, অভিযানে ১০ বস্তা প্লাস্টিক-পলিথিন টুকরা কুড়ানো হয়েছে।

ইউরোপের সাগর ও সৈকত এলাকায় প্রায়ই দেখতে পাওয়া যায় এমন ১০টি প্লাস্টিক পণ্যকে লক্ষ্য করে ইউরোপীয় কমিশন গত মে মাসে ইইউজুড়ে নতুন একটি নিয়ম চালু করে। সেই পণ্যগুলো সাগর এলাকা ও সৈকতে নিষিদ্ধ বা ব্যবহারের ওপর বিধি-নিষেধ আরোপ করা হয়েছে। এগুলো হলো কটন বাডস, কাটলারি সামগ্রী, বেলুন ও বেলুনের সঙ্গে কাঠি, খাবার রাখার পাত্র, পানীয় রাখার কাপ, পানির বোতল, সিগারেটের উচ্ছিষ্ট, প্লাস্টিক ব্যাগ, প্যাকেট/খোসা, স্যানিটারি ও মাছ ধরার সামগ্রী।

 



মন্তব্য