kalerkantho


আজ থেকে হজ ফ্লাইট শুরু

এখনো টিকিট নেয়নি ১১ হাজার হজযাত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৪ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০



এখনো টিকিট নেয়নি ১১ হাজার হজযাত্রী

আজ শুরু হচ্ছে পবিত্র হজ পালনে মক্কার উদ্দেশে হাজিদের যাত্রা। ছবিটি আশকোনা হজ ক্যাম্প থেকে গতকাল তোলা। ছবি : কালের কণ্ঠ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হজ ক্যাম্পের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ঘোষণার পর হজব্রত পালনে সৌদি আরব যাওয়ার উদ্দেশে হজযাত্রীরা আশকোনার হজ ক্যাম্পে আসতে শুরু করেছে। আজ শনিবার থেকে নির্ধারিত হজ ফ্লাইট শুরু হচ্ছে। প্রতিদিন দুটি বিমান সংস্থার মাধ্যমে ১০ থেকে ১২টি ফ্লাইট সৌদি আরবের উদ্দেশে ছেড়ে যাবে। তবে জানা গেছে, এখনো ১১ হাজারের বেশি হজযাত্রী বিমানের টিকিট নেয়নি। এ জন্য উদ্বিগ্ন বাংলাদেশ বিমানসহ সংশ্লিষ্টরা। তাদের ধারণা খুব অল্প সময়ের মধ্যে এসব হজযাত্রীর টিকিট কনফার্ম করা না গেলে বিমানের সিট খালি যেতে পারে।

ধর্ম মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, বিমানের পক্ষ থেকে হজ এজেন্সিগুলোকে অনেক আগে থেকেই দ্রুত টিকিট ক্রয়ের জন্য অনুরোধ করা হলেও এখন পর্যন্ত সাড়ে ১১ হাজার টিকিট অবিক্রীত রয়ে গেছে। বিমান হজ এজেন্সিগুলোকে বলেছে, শেষ মুহূর্তে যাত্রীর অভাবে ফ্লাইট বাতিল করতে যেন না হয়, হজযাত্রীকে অনিশ্চয়তার সম্মুখীন হতে না হয়। এদিকে সৌদি আরব কর্তৃপক্ষ আগেই জানিয়ে দিয়েছে, এ বছর নির্ধারিত ফ্লাইটে হজযাত্রী পরিবহনে ব্যর্থ হলে সৌদি আরব অতিরিক্ত কোনো স্লট বরাদ্দ দেবে না, গত বছর যা তারা বাংলাদেশের জন্য দিয়েছিল শেষ সময়ে।

বিমানের জনসংযোগ বিভাগের মহাব্যবস্থাপক শাকিল মেরাজ কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমরা বারবার সংশ্লিষ্ট হজ এজেন্সিগুলোকে দ্রুত টিকিট সংগ্রহের জন্য অনুরোধ করেছি। সরকারের সিদ্ধান্ত অনুসারে এ বছর ভিসার আগেই সব এজেন্সিকে তাদের যাত্রীদের টিকিট সংগ্রহ করতে হবে। এর পরও ২৫ জুলাই থেকে ১০ আগস্ট পর্যন্ত বিভিন্ন হজ ফ্লাইটের টিকিট এখনো নেয়নি কিছুসংখ্যক হজ এজেন্সি। প্রায় সাড়ে ১১ হাজার টিকিট এখনো অবিক্রীত রয়েছে।’

সুষ্ঠু হজযাত্রা নিশ্চিত করতে গত সোমবার ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমানের সভাপতিত্বে সচিবালয়ে জাতীয় হজ ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্যদের অংশগ্রহণে আন্ত মন্ত্রণালয় সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভা শেষে মতিউর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, ‘চাঁদ দেখা সাপেক্ষে এবার সম্ভাব্য হজের তারিখ হতে পারে ২১ আগস্ট। এবার বাংলাদেশ থেকে এক লাখ ২৬ হাজার ৭৯৮ জন হজযাত্রী পবিত্র হজ পালনের জন্য সৌদি আরব যাবে। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় যাচ্ছে ছয় হাজার ৭৯৮ জন। আর বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় যাচ্ছে এক লাখ ২০ হাজার জন। বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় এবার ৫২৮টি হজ এজেন্সি কার্যক্রম পরিচালনা করছে।’

তারিখ পরিবর্তনে ১০০ ডলার জরিমানা : কোনো যাত্রী টিকিট কেনার পর যাত্রার তারিখ পরিবর্তন করতে চাইলে নির্ধারিত ভাড়ার অতিরিক্ত ১০০ ইউএস ডলার জরিমানা গুনতে হবে। চলতি বছর এ নতুন বিধান আরোপ করা হয়েছে। বিমানের একজন কর্মকর্তা বলেন, ‘এই বিধান করা হয়েছে যাতে আমাদের কোনো ফ্লাইট খালি না যায়, কোনো ফ্লাইট বাতিল না হয়।’ বিমান সূত্র জানায়, ১৪ জুলাই থেকে ১৫ আগস্ট পর্যন্ত হজযাত্রীদের সৌদি আরবে নিয়ে যাবে বিমান। মোট হজযাত্রীর অর্ধেক ৬৩ হাজার ৫৯৯ জনকে বিমান বহন করবে। বাকি অর্ধেক যাত্রী বহন করবে সৌদিয়া এয়ারলাইনস। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস হজ ফ্লাইটকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিতে নিজস্ব চারটি উড়োজাহাজ (বোয়িং-৭৭৭-৩০০ ই-আর) দিয়ে ফ্লাইটগুলো পরিচালনা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

প্রস্তুত হজ ক্যাম্প : হজযাত্রীদের বরণে প্রস্তুত করা হয়েছে ঢাকার আশকোনায় অবস্থিত হজ ক্যাম্প। আগেই সম্পন্ন করা হয়েছে ধোয়ামোছার ও পেইন্টিংয়ের কাজ। প্রতিদিন এই ক্যাম্পে একসঙ্গে তিন হাজার হজযাত্রী রাত যাপন করতে পারবে। তাদের সেবা দেওয়ার জন্য ৪০ জনের একটি স্বেচ্ছাসেবী দল সার্বক্ষণিক দায়িত্ব পালন করবে। গত মঙ্গলবার যাত্রীদের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে এই হজ ক্যাম্প। হজ ফ্লাইটে ওঠার আগে যাত্রীদের দুই থেকে তিন দিন অবস্থান করতে হয় এখানে।

খোলা হয়েছে কল সেন্টার : হজযাত্রী ও তাদের স্বজনদের সুবিধার্থে খোলা রয়েছে ০৯৬০২৬৬৬৭০৭ নম্বরে হজ কল সেন্টার। সেন্টারটি দিনরাত ২৪ ঘণ্টাই খোলা থাকবে। নম্বরটিতে ফোন করলেই মিলবে হজের সর্বশেষ সব তথ্য। এ ছাড়া হজযাত্রী ও তাদের স্বজনরা হজ ভিসা, হজ ফ্লাইটের সময়সূচি ও হজ পালন সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য-উপাত্ত হজ ক্যাম্পের দোতলায় স্থাপিত এই কল সেন্টারে যোগাযোগ করে জানতে পারবে। কল সেন্টার ছাড়াও হজযাত্রী ও তাদের স্বজনদের সুবিধার্থে রয়েছে হজ ব্যবস্থাপনা পোর্টাল .িযধলল.মড়া.নফ এবং ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট .ৎসিড়ত্ধ.মড়া.নফ।

৫১ সদস্যের প্রশাসনিক দল : সৌদি আরবে হজ ব্যবস্থাপনার সার্বিক কার্যক্রম দেখভাল, সমন্বয়, হজযাত্রীদের সেবা ও প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদানের জন্য ৫১ সদস্যবিশিষ্ট একটি প্রশাসনিক দল গঠন করেছে সরকার। এই ৫১ সদস্যকে পৃথক তিনটি উপদলে (প্রতিটিতে ১৭ জন করে) ভাগ হয়ে ১৩ জুলাই থেকে ২৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সৌদি আরবের জেদ্দা, মক্কা, মদিনা, মিনা, আরাফাহ ও মুজদালিফায় দায়িত্ব পালন করবে। এদিকে ধর্ম মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, সরকারি ব্যবস্থাপনায় হজযাত্রীদের বাড়িভাড়া সম্পন্ন হয়েছে। তবে বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজযাত্রীদের পক্ষে বেশির ভাগ এজেন্সির বাড়ি ভাড়া করা এখনো বাকি। হজযাত্রী আগমনের ৭২ ঘণ্টা আগেই তার আবাসনসংক্রান্ত এবং আগমনের সব তথ্য অনলাইনে আপডেট দেওয়ার নির্দেশনা জারি করেছে সৌদি আরব। একই সঙ্গে প্রত্যেক হজযাত্রীর আবাসনসংক্রান্ত তথ্যসংবলিত স্টিকার নিজ নিজ পাসপোর্টে লাগানো নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে।

 



মন্তব্য