kalerkantho


পুলিশের ইউনিট হচ্ছে গাজীপুর ও রংপুরে

মন্ত্রিসভায় অনুমোদন হতে পারে আজ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২০ নভেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



পুলিশের ইউনিট হচ্ছে গাজীপুর ও রংপুরে

ফাইল ছবি

গাজীপুর সিটি করপোরেশন ও রংপুর সিটি করপোরেশন এলাকার জন্য পৃথক দুটি মেট্রোপলিটন পুলিশ ইউনিট গঠন করতে যাচ্ছে সরকার। এর মধ্যে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ ইউনিটে এক হাজার ১৫২ ও রংপুরে এক হাজার ১৬৫টি পদ সৃষ্টি করা হবে। এটি হলে দুই সিটি করপোরেশন এলাকার আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির আরো উন্নয়ন হবে বলে আশা করছে সরকার।

আজ সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠেয় মন্ত্রিসভার বৈঠকে দুই সিটি করপোরেশনে পুলিশ ইউনিট গঠনের দুটি পৃথক আইনের খসড়া চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য উত্থাপন হওয়ার কথা রয়েছে। মন্ত্রিসভায় চূড়ান্ত অনুমোদন পাওয়ার পর আইন দুটি বিল আকারে সংসদে উত্থাপন করা হবে। সেখানে পাস হলে এটি কার্যকর হবে।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের কর্মকর্তারা জানান, গাজীপুর সিটি করপোরেশন এলাকায় পুলিশের ইউনিট গঠন করতে ‘গাজীপুর মহানগরী পুলিশ আইন, ২০১৭’-এর খসড়া মন্ত্রিসভার বৈঠকে অনুমোদনের জন্য উত্থাপন করা হতে পারে। গাজীপুর ও টঙ্গী পৌরসভার মোট ৩৩০ বর্গকিলোমিটার এলাকা নিয়ে গঠিত গাজীপুর সিটি করপোরেশন দেশের শিল্পাঞ্চল হিসেবে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। পৃথক পুলিশ ইউনিট না থাকায় গাজীপুরে অন্যান্য জেলার মতোই আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নিয়োজিত রয়েছে। তবে বিপুল জনগোষ্ঠীর নিরাপত্তা স্বল্পসংখ্যক পুলিশ সদস্য দ্বারা নিশ্চিত করা দুষ্কর। এ অবস্থায় আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অধিকতর উন্নয়ন, পুলিশ সেবা ও জননিরাপত্তা আরো জোরদার করার জন্য পুলিশ অধিদপ্তর থেকে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ ইউনিট গঠনের জন্য ২০১৫ সালে ‘গাজীপুর মহানগরী পুলিশ আইন’-এর খসড়া তৈরি করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

মন্ত্রিসভার বৈঠকের জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগ থেকে পাঠানো সারসংক্ষেপে বলা হয়েছে, ২০১৫ সালেই জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় ও অর্থ মন্ত্রণালয় অনাপত্তি দিয়েছে। ওই বছরের ৭ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত বৈঠকে আরো কিছু নির্দেশনাসহ এই খসড়া আইনের নীতিগত অনুমোদন দেয় মন্ত্রিসভা। পরে প্রয়োজনীয় সংশোধনী শেষে আইন মন্ত্রণালয়ে ভেটিংয়ের জন্য পাঠানো হলে লেজিসলেটিভ ও সংসদবিষয়ক বিভাগের নির্দেশনা অনুযায়ী তা সংশোধন করা হয়।

গত ১৫ জানুয়ারি খসড়াটি মন্ত্রিসভার বৈঠকে উপস্থাপনের জন্য মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে পাঠায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। তবে আরো পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখতে খসড়াটি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ফেরত পাঠায় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান খসড়াটি দেখে চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য মন্ত্রিসভা বৈঠকে উপস্থাপনের পক্ষে মত দিয়েছেন।

একইভাবে রংপুর মহানগরী পুলিশ আইনের খসড়াও ২০১৫ সালে তৈরি করা হয়। পরে প্রয়োজনীয় সংশোধন ও আইন মন্ত্রণালয়ের ভেটিং শেষে ‘রংপুর মহানগরী পুলিশ আইন, ২০১৭’-এর খসড়াও মন্ত্রিসভার চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য আজ উত্থাপন করা হচ্ছে।


মন্তব্য