kalerkantho


শপথ নিতে এসে বিএনপির মেয়র আটক

পুলিশের অস্বীকার

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী   

২১ জানুয়ারি, ২০১৬ ০০:০০



শপথ নিতে এসে আটক হলেন রাজশাহীর তানোর পৌরসভার মেয়র মিজানুর রহমান মিজান। বিএনপির এই মেয়র গতকাল বুধবার দুপুরের দিকে শপথগ্রহণ করতে যাওয়ার সময় রাজশাহী নগরীর জিরো পয়েন্ট থেকে পুলিশ তাঁকে আটক করে।

কিন্তু মেয়রকে আটকের বিষয়টি পুলিশ অস্বীকার করেছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দুপুর আড়াইটার দিকে নগরীর জিরো পয়েন্ট এলাকায় তানোর পৌরসভার মেয়র মিজানুর রহমান মিজানকে আটক করে মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে যায় পাঁচ-ছয়জনের সাদা পোশাকের  একদল পুলিশ। ওই সময় সঙ্গে ছিলেন তাঁর খালাতো ভাই নবনির্বাচিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল মান্নান।

মান্নান সাংবাদিকদের জানান, তাঁরা একটি প্রাইভেট কারে করে শপথ অনুষ্ঠানস্থল শিল্পকলা একাডেমির দিকে যাচ্ছিলেন। তাঁদের পেছনে  আরেকটি মাইক্রোবাসে ছিলেন তানোর পৌরসভার নবনির্বাচিত অন্য ওয়ার্ড কাউন্সিলররা।

মেয়র মিজান গত ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত পৌরসভা নির্বাচনে ১৩ ভোটের ব্যবধানে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ইমরুল হককে পরাজিত করেন। তাঁর বিরুদ্ধে নাশকতার দুটি মামলা থাকলেও সেসব মামলায় তিনি উচ্চ আদালত থেকে জামিন নিয়ে কারাগার থেকে মুক্তি পান। জামিনে থাকা অবস্থায় তিনি নির্বাচনে অংশ নিয়ে বিজয়ী হন।

জানা গেছে, আটকের পর মেয়র মিজানকে রাজশাহী নগরীর বোয়ালিয়া থানায় নিয়ে যাওয়া হয়।

কিন্তু থানার ওসি শাহাদাত হোসেন বিষয়টি অস্বীকার করেন। তিনি কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমি এ ব্যাপারে কিছু জানি না। ’

জানতে চাইলে নগর পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) সহকারী কমিশনার সুশান্ত কুমার রায় কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘তানোরের মেয়রকে আটক বা গ্রেপ্তারের কোনো তথ্য আমার কাছে নাই। কেউ তাঁকে আটক করেছে কি না, সেটিও বলতে পারব না। ’

এদিকে রাজশাহী ও নাটোরের মোট ১৯টি পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র এবং কাউন্সিলরদের গতকাল বিকেলে শপথগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। তবে রাজশাহীর তানোর পৌরসভার মেয়র মিজানুর রহমান মিজানকে আটক করার কারণে তিনি ছাড়া বাকি ১৮টি পৌরসভার মেয়রই শপথ নিয়েছেন।

এ ছাড়া একজন কাউন্সিলরও শপথ নিতে পারেননি। ফলে ১৭৪ জন কাউন্সিলরের মধ্যে শপথ নিয়েছেন ১৭৩ জন। এর মধ্যে সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর ছিলেন ৫৮ জন।

রাজশাহীর স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক আমিনুল ইসলাম কালের কণ্ঠকে জানান, নগরীর শিল্পকলা একাডেমিতে এ শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান হয়। রাজশাহীর অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মুনির হোসেন নবনির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিলরদের শপথ বাক্য পাঠ করান।

 


মন্তব্য