kalerkantho


গুগল ট্রেন্ডিং ২০১৮

বাংলাদেশিদের তালিকায় নেই কোনো বাংলা ছবি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৩:৩৪



বাংলাদেশিদের তালিকায় নেই কোনো বাংলা ছবি

শুনলে অবাকই হতে হচ্ছে যে ২০১৮ সালে বাংলাদেশিদের ইন্টারনেট অনুসন্ধান তালিকায় নেই কোনো বাংলাদেশি এমনকী কোনো বাংলা চলচ্চিত্র। গুগল ট্রেন্ডিং বাংলাদেশ থেকিএ খোঁজা ১০ টি চলচ্চিত্রের নাম তালিকা করেছে, যেখানে জায়গা করে নিয়েছে হলিউড ও বলিউডের ছবিগুলো।

এই তালিকায় এক নম্বরেই রয়েছে আমির খান অভিনীত বলিউডের চলচ্চিত্র থাগস অফ হিন্দুস্থান। ছবিটি নিয়ে বিপুল আগ্রহ তৈরি হয়েছিল এদেশের মানুষের মধ্যে। কেননা উপমহাদেশে সালমান, আমির ও শাহরুখ খানের জনপ্রিয়তা আকাশচুম্বী। তাছাড়া আমির খানের সাথে এই ছবিতে জুটি বাঁধেন ক্যাটরিনা। কিন্তু ছবিটি মুক্তি পাওয়ার মুখ থুবড়ে পড়ে। সেটা বিষয় না, বাংলাদেশের মানুষ এই ছবিটি সম্পর্কে জানতেই বেশি আগ্রহী ছিল বলে জানাচ্ছে গুগল। 

গুগল ট্রেন্ডসের ওয়েবসাইটে সম্প্রতি ট্রেন্ডিং সার্চের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। দেশভিত্তিক ও বৈশ্বিকভাবে গুগল সার্চ ট্রেন্ড দেখা যাচ্ছে। গুগল বেশ কিছু ক্যাটাগরি বা বিভাগ হিসেবে সার্চ ট্রেন্ড প্রকাশ করেছে। বাংলাদেশকে নিয়ে ‘সার্চেস’, ‘পিপল’ ও ‘মুভিজ’—এই তিনটি ট্রেন্ড প্রকাশ করেছে গুগল।

মুভিজ ক্যাটাগরিতে দ্বিতীয় ছবিটি হলো হলিউডের। অ্যাভেঞ্জার্স : ইনফিনিটি ওয়ার। বছরের শুরুর দিকে হলিউডের এই ছবিটি নিয়ে এদেশের মানুষের মধ্যে ব্যাপক উন্মাদনা তৈরি হয়। কারণ সুপার ক্ষমতা সম্পন্ন হিরোদের নিয়ে এই ছবিটি নাকি শেষ ছবি হতে যাচ্ছিল।

তালিকার তিন, চার, পাঁচ, ছয় নম্বরে বলিউডের ছবি যথাক্রমে টাইগার জিন্দা হ্যায়, রেস থ্রি, বাঘি-২, সানজু। টাইগার জিন্দা হ্যায়, রেস থ্রি এই ছবি দুটো সালমান খানের ছবি। সালমানের ছবি মানেই উপমহাদেশে হিট। বাঘি- ২ বলিউডের নতুন সেনশেসন টাইগার শ্রফের ছবি। তাকে নিয়ে ইতোমধ্যে বলিউডে আগ্রহ তৈরি হয়েছে। আর সানজু নিয়ে বলার কিছুই নেই। সঞ্জয় দত্তের এই বায়োপিক নিয়ে ভারতে তুমুল কৌতুহল তৈরি হয়।

৭ ও ৮ নম্বরে রয়েছে হলিউডের ছবি ব্ল্যাক প্যান্থার ও দ্য নান। ব্ল্যাক প্যান্থার চলতি বছরের শুরুর দিকে বিশ্বব্যাপী মুক্তি পায়। দ্য নান- ভৌতিক ছবি হিসেবে আলোচনায় ছিল এ বছর। ৯ ও দশ নম্বরে রয়েছে যথাক্রমে বলিউড ও হলিউডের হেইট স্টোরি-৪ ও ভেনম। 

চলতি বছর বাংলাদেশের বেশ কিছু চলচ্চিত্র জনপ্রিয়তা পেলেও ইন্টারনেট অনুসন্ধানকারীদের আগ্রহের কারণ হয়নি সেসব।



মন্তব্য