kalerkantho


বিশ্বকাপ বনাম ঈদ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৭ জুন, ২০১৮ ১১:৫৬



বিশ্বকাপ বনাম ঈদ

‘ফুটবলে প্রেম’ নাটকে এভ্রিল, অপূর্ব ও চৈতী

১৪ জুন রাশিয়ায় শুরু হবে বিশ্বকাপ ফুটবলের ২১তম আসর। দুই কি তিন দিন পরই ঈদ। টিভি চ্যানেল ও বিজ্ঞাপনী সংস্থাগুলো দুই কূলই রাখতে চাইছে। এ কারণে ঈদ অনুষ্ঠানমালায় চলছে কাটছাঁট। লিখেছেন মীর রাকিব হাসান

বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের মাধ্যমে মাত্র ২৯০ জন দর্শক টিকিট কিনে রাশিয়া গিয়ে স্টেডিয়ামে বসে সরাসরি খেলা দেখার সুযোগ পাবেন। আর কোটি কোটি মানুষের ভরসা টেলিভিশন।

বিশ্বকাপ যত এগিয়ে আসছে, মানুষের আগ্রহও তত বাড়ছে। কখন খেলা, কোন টিভিতে দেখা যাবে, কোন কোন ম্যাচ দেখতেই হবে—এসব নিয়ে ফুটবলপ্রেমীদের আগ্রহের কমতি নেই। দেশের প্রায় প্রতিটি টিভি চ্যানেলে শুরু হবে বিশ্বকাপ নিয়ে প্রতিদিনের বিশেষ অনুষ্ঠান, যার বেশির ভাগই টক শো। রাশিয়া বিশ্বকাপ সরাসরি সম্প্রচার করবে বাংলাদেশের তিন টিভি চ্যানেল—বিটিভি, মাছরাঙা ও নাগরিক টিভি।

বিশ্বকাপের প্রভাবটা যে পড়বে এবারের ঈদ অনুষ্ঠানমালায়, সেটা যে কেউই বুঝবেন। সন্ধ্যা ৬টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত টিভি চ্যানেলগুলোর পিক আওয়ার। বিশ্বকাপের প্রায় সব ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে এই সময়ই। ফলে বিজ্ঞাপনদাতারা ছুটছেন সেদিকেই। সংস্থাগুলো পাঁচ গুণ, এমনকি ১০ গুণ বেশি টাকা দিয়ে হলেও ম্যাচ চলাকালে বিজ্ঞাপন প্রচার করতে প্রস্তুত। অন্যদিকে ঈদ অনুষ্ঠানের জন্য বিজ্ঞাপন পাচ্ছেন না প্রযোজকরা। তাই ঈদ অনুষ্ঠানমালায় চলছে কাটছাঁট।

আরটিভির অনুষ্ঠানপ্রধান দেওয়ান শামসুর রাকিব বলেন, “ফুটবল বিশ্বকাপ আয়োজনের সঙ্গে কোনো না কোনোভাবে আমরাও জড়িয়ে গেছি। ঈদের নাটক-টেলিফিল্মের মধ্যে বিশ্বকাপ প্রসঙ্গ রাখছি। সাত পর্বের ঈদ ধারাবাহিক করেছি ফুটবলকে কেন্দ্র করেই—‘ফুটবল ফারুক’। আরেকটি একক নাটক আছে ‘রেড কার্ড ইয়েলো কার্ড’। তবে বিশ্বকাপ নিয়েই পুরো আয়োজন সাজাচ্ছি না। কারণ বিশ্বকাপ নিয়ে উন্মাদনা যেমন থাকবে, তেমনি ঈদ অনুষ্ঠান দেখা নিয়েও একটা অভ্যস্ততা আছে দর্শকের। গেল কয়েক ঈদেই আমরা নিয়ম করে কিছু অনুষ্ঠান করছি। সেগুলো খুব একটা পরিবর্তন করিনি। যেমন—‘যমজ’, ‘ঘাউরা মজিদ’-এর সিক্যুয়াল এবারও থাকবে। মূল রেভিনিউটা যে বিশ্বকাপমুখী হয়েছে, সেটা অস্বীকার করার উপায় অবশ্য নেই।”

এনটিভির প্রযোজক জোনায়েদ বিন জিয়া বলেন, ‘মাস পাঁচেক আগেই চ্যানেলের চেয়ারম্যান আমাদের নিয়ে বসেছিলেন। উনি প্রথমেই বললেন, বিশ্বকাপের কারণে ইন হাউস প্রগ্রামের বাজেট কমছে। সব মিলিয়ে এবার অনুষ্ঠানগুলো প্রপার বাজেটে নির্মাণ সম্ভব হবে না। সত্যি বলতে, এবার আমরা মজা নিয়ে প্রগ্রাম করতে পারিনি। কিন্তু করতে তো হয়েছে। প্রায় সব অনুষ্ঠানেই বাজেট কমিয়ে দেওয়া হয়েছে। অল্প পরিসরে এসে আগের মতোই অনুষ্ঠান রাখার চেষ্টা করেছি।’

টিভি নাটক ও চলচ্চিত্র নির্মাতা শিহাব শাহিন বলেন, “নাটকের বাজেটের ব্যাপারে সবাই এবার একটু গলা শুকিয়েছে। আমি তো গল্প অনুযায়ী বাজেটই চাইব। সে ক্ষেত্রে খুব একটা কমাতে পারিনি। কাজগুলো নিজের মতোই করতে পেরেছি। এবার পাঁচটি নাটক করেছি। আবার আমার কিছু প্রাইম প্রজেক্ট এই ঈদে আমি ছাড়িনি। অপূর্ব ও তাঁর ছেলেকে নিয়ে করেছি ‘বিনি সুতোর টান’, বড় বাজেটের নাটক। সেটা এই ঈদে দেব না। সামনের ঈদে প্রচার করব। কারণ এটার যতখানি রেসপন্স পাওয়ার আশা করছি, সেটা এই ঈদে বিশ্বকাপের ডামাডোলে পাব বলে মনে   হয় না।”

নাটকে বিশ্বকাপ ও ফুটবল
ফেয়ার প্লে : বাংলাভিশনের সাত পর্বের ধারাবাহিক। রচনা পলাশ মাহবুব, পরিচালনায় আবু হায়াত মাহমুদ। অভিনয়ে জাহিদ হাসান, নুসরাত ইমরোজ তিশা ও চঞ্চল চৌধুরী। নাটকে দুই ভাইয়ের চরিত্রে জাহিদ ও চঞ্চল। একজন ব্রাজিল সমর্থক, অন্যজন আর্জেন্টিনা। জার্মানির সমর্থক তিশা।

ফুটবল ফারুক : আরটিভির সাত পর্বের ধারাবাহিক। রচনা দয়াল সাহা, পরিচালনায় সাজ্জাদ সুমন। অভিনয়ে জাহিদ হাসান, আরফান, অপর্ণা ঘোষ, মুনিরা মিঠু, তৌসিফ মাহবুব, সালহা খানম নাদিয়া প্রমুখ।

প্র্যাকটিক্যাল অ্যাকশন : ইউটিউবের জন্য নির্মিত। রচনা ও পরিচালনায় জয়ন্ত রোজারিও। অভিনয়ে ফারুক আহমেদ ও মাইশা খন্দকার। ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা সমর্থকদের উত্পাত থেকে উদ্ধার পেতে অদ্ভুত এক উপায় বের করেন ফারুক। দুই দলের পতাকা দিয়েই তিনি জার্সি বানিয়ে চলাফেরা করেন।

রেড কার্ড ইয়েলো কার্ড : রচনা তপু খান ও হূদয়, পরিচালনায় তপু খান। অভিনয়ে ইরফান সাজ্জাদ, রুনা খান, মাজনুন মিজান, তানজিন তিশা প্রমুখ। প্রচারিত হবে আরটিভিতে।

‘প্র্যাকটিক্যাল অ্যাকশন’-এ ফারুক আহমেদ
দ্য গোল্ডকাপ : চ্যানেল আইয়ের ১৪ পর্বের ধারাবাহিক। রচনা ও পরিচালনায় তারেক মুহম্মদ। অভিনয়ে আনিকা কবির শখ, ফারুক আহমেদ, শেহতাজ, আলভী, আল মনসুর, কামাল এবং বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের সাবেক দুই ফুটবলারসহ বর্তমান দলের ১১ জন খেলোয়াড়।

বোতল ভূত : দুরন্ত টিভির শিশুতোষ ধারাবাহিক। 

হুমায়ূন আহমেদের গল্প অবলম্বনে পাঁচ পর্বের ধারাবাহিকটি নির্মাণ করেছেন মেহের আফরোজ শাওন। এখানেও রয়েছে টান টান উত্তেজনার    ফুটবল ম্যাচ।

ফুটবলে প্রেম : এটিএন বাংলার টেলিছবি। রচনা ও পরিচালনায় এস এ হক অলীক। অভিনয়ে অপূর্ব, জান্নাতুল নাঈম এভ্রিল ও চৈতী।

মাই ডিয়ার ফুটবল : রচনা ও পরিচালনায় কচি খন্দকার।

এ ছাড়া বেশ কয়েকজন পরিচালক জানিয়েছেন, তাঁরা নাটক নির্মাণের সময় কোনো না কোনোভাবে ফুটবল রাখার চেষ্টা করছেন।


মন্তব্য