kalerkantho


স্বাধীনতা দিবসে তৌকীর আহমেদের বিশেষ নাটক 'সাহস'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ মার্চ, ২০১৮ ১৯:৩৭



স্বাধীনতা দিবসে তৌকীর আহমেদের বিশেষ নাটক 'সাহস'

জনপ্রিয়,গুণী অভিনেতা তৌকীর আহমেদ সম্প্রতি অভিনয় করলেন স্বাধীনতা দিবসের বিশেষ নাটক 'সাহস' এ। ফেদারম্যান মিডিয়া প্রযোজিত ও ওয়াহিদ পলাশ পরিচালিত এই নাটকটির  কাহিনী, চিত্রনাট্য ও সংলাপ লিখেছেন গুঞ্জন রহমান। রাজশাহীর বীর মুক্তিযোদ্ধা বরজাহানের মুখে শোনা সত্য ঘটনা অবলম্বনে রচিত ও নির্মিত হয়েছে 'সাহস' নাটকটি। আসছে ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবসে বেসরকারি টিভি চ্যানেল 'মাছরাঙা'তে রাত ৯ টায় প্রচারিত হবে নাটকটি।

নাটকটির গল্পে দেখা যাবে,১৯৭১ সালে জাহিদ (তৌকীর আহমেদ) যুদ্ধে যেতে পারেনি। সে তখন রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজের ইন্টার্নির ছাত্র। তার সহপাঠীদের অনেকেই সীমান্ত পেরিয়ে পশ্চিমবঙ্গে চলে যায় যুদ্ধের ট্রেনিং নিতে। জাহিদ থেকে যায়। একদিন সে হোস্টেল থেকে বাহিরে আসে। সেখানে দোকানদার মকবুল (নরেশ ভূঁইয়া)কে পায়। তার সাথে জাহিদের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা হতে থাকে। কোনওদিন সিগারেট না খেলেও এই সময় জাহিদ মকবুলের কাছে সিগারেট চায় এবং সিগারেট খাওয়া শুরু করে।

জনশূন্য ক্যাম্পাসে এক রাতে ক্যান্টিন বয় শাহাব আসে। আর কাউকে না পেয়ে জাহিদকে মিলিটারি ক্যাম্পে নিয়ে যেতে চায়। মেইন হোস্টেলের সামনে এসে দাঁড়ায় আর্মি জিপ। কিছু বুঝে ওঠার আগেই জাহিদকে তুলে নেয়া হয় জিপে। আর বলা হয় জাহিদকে তাদের দরকার। তাদের বাহিনীর যে ডাক্তার ছিলেন, তিনি ফিরে গেছেন, রিপ্লেসমেন্ট এখনও এসে পৌঁছায়নি। আপতকালীন সময়ে জাহিদকে তাই পালন করতে হবে আহতদের চিকিৎসার দায়িত্ব।

হঠাৎ কী থেকে কী হয়ে যায়, এক অতলস্পর্শী সাহসের বর্ম যেন চেপে বসে জাহিদের বুকে। সে নিচু গলায়, অথচ দৃঢ় ও স্পষ্ট স্বরে পাক বাহিনীর অফিসার  (শাহাদাৎ হোসেন) এর এই প্রস্তাবে জবাব দেয় - 'না'। এরপর জাহিদের ওপর শুরু হয় নির্যাতন। শেষ পর্যন্ত পাক মিলিটারির বুলেটের আঘাতে শহীদ হন রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজের ইন্টার্নির ছাত্র জাহিদ।

নাটকটিতে তৌকীর আহামেদ, নরেশ ভূঁইয়া, শাহাদাৎ হোসেন ছাড়াও আরো অভিনয় করেছেন শশাঙ্ক সাহা, চারু সাইফুল, গুঞ্জন রহমান সহ আরো অনেকে।



মন্তব্য