kalerkantho


সিলেট ফিল্ম ফেস্টিভালে ‘রুদ্রাক্ষ কথা’

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ মার্চ, ২০১৮ ১৬:৪০



সিলেট ফিল্ম ফেস্টিভালে ‘রুদ্রাক্ষ কথা’

সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় চলচ্চিত্র সংসদের আয়োজনে রবিবার পর্দা উঠেছে দ্বিতীয় সিলেট চলচ্চিত্র উৎসবের। স্বাধীনধারার চলচ্চিত্র নির্মাণকে উৎসাহ প্রদানে গতবছর থেকে যাত্রা শুরু হয় সিলেট চলচ্চিত্র উৎসবের। চার দিনব্যাপী এই উৎসবে ১২২ টি দেশ থেকে ২৮০৮ টি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র জমা পড়ে। এরমধ্যে বাছাইকৃত ৯৭ টি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র উৎসবে প্রদর্শিত হবে। যেখানে প্রতিযোগিতা বিভাগে উৎসবের তৃতীয় দিনে দেখানো হবে জুয়েইরিযাহ মউ পরিচালিত স্বল্পদৈর্ঘ্য প্রামাণ্য-চলচ্চিত্র ‘রদ্রাক্ষ কথা’।

রেইনবো ফিল্ম সোসাইটির অষ্টম সিনে ওয়ার্কশপ এর অংশ হিসেবে এ চলতি বছরের জানুয়ারিতে ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে প্রথম প্রদর্শিত হয় ‘রুদ্রাক্ষ কথা’। এবার ২০ মার্চ দুপুর তিনটায় সিলেট চলচ্চিত্র উৎসব-২০১৮ তে প্রদর্শন হবে স্বল্পদৈর্ঘ্য প্রামাণ্য-চলচ্চিত্রটি। জুয়িইরিযাহ মউয়ের নির্মাণে চলচ্চিত্রটির সিনেমাটোগ্রাফিতে ছিলেন ওবায়দুল হক তুহিন।

এই চলচ্চিত্রটিতে তুলে ধরা হয়েছে জীবনের গল্প এবং রুদ্রাক্ষ ধারনে ব্যবহারকারীদের জীবনে ঘটে যাওয়া অলৌকিক ঘটনার কথা। মানুষেরই কথার মাধ্যমে রুদ্রাক্ষের সাথে মানুষের জীবনের সংযোগ খোঁজার চেষ্টা করা হয় সাড়ে নয় মিনিটের এ চলচ্চিত্রে। কিছুটা দ্বন্দ্ব তৈরির প্রয়াসও উপস্থিত ‘রুদ্রাক্ষ কথা’য়।

এ চলচ্চিত্র সম্পর্কে নির্মাতা জুয়েইরিযাহ মউ বলেন, ‘রুদ্রাক্ষ কথা’র জন্ম একটা আকর্ষণ থেকে, যে আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দুতে ছিল এই যে একটা গাছের বীজ বাউল-হিন্দুধর্মাবলম্বী কিংবা অন্য কোনো ধর্ম-মতাদর্শের মানুষেরা ব্যবহার করছেন সেটা কেন? আবার এই যে মিথ চালু থাকে সমাজে কিছু কিছু, অনেকে যে সত্যিই ফল পেয়ে যাচ্ছেন এর পেছনে কারণ কি সেই বীজ না কি মানুষের মনের ভেতর অবচেতনে লুকিয়ে আছে একটা ‘will-power’ এর বীজ, যা তাকে ভালো এবং মঙ্গলের দিকে নিয়ে যাচ্ছে। আমরা তখন খোঁজ করি, খোঁজ করি সমাজের বিভিন্ন স্তরের ভিন্ন ভিন্ন বয়সের মানুষদের। যাদের জীবনের সাথে জড়িয়ে আছে রুদ্রাক্ষ। এদের মধ্যে দেখা মিলে বাউল-সাধকের লালন সাঁঈজীর আখড়ায়। দেখা যায় পুরান ঢাকার রুদ্রাক্ষ ব্যবসায়ীকে, কোন চাকরিজীবীকে, অষ্টম শ্রেণি পড়ুয়া কোন বালককেও।”



মন্তব্য