kalerkantho


নিজের মিউজিক ভিডিও বের করলেন মাদক সম্রাজ্ঞী!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৭ মার্চ, ২০১৮ ১০:৫৮



নিজের মিউজিক ভিডিও বের করলেন মাদক সম্রাজ্ঞী!

মিউজিক ট্র্যাকে 'ড্রাগ স্মাগলার' শাপেলে কর্বি

তিনি একজন সুন্দরী রমনী। তিনি একজন ড্রাগ স্মাগলার। মাদক সাম্রাজ্যের এই সুন্দর মুখের নাম শাপেলে কর্বি। মাদক চোরাকারবারি মানেই পুলিশের চোখে ধুলো দিয়ে লুকিয়ে থাকা মানুষ। কিন্তু এক মিউজিক ট্র্যাক প্রকাশ করে তোলপাড় করলেন শাপেলে। 

মিউজিক ট্র্যাকের শিরোনাম হলো 'পাম ট্রিস'। সেখানে কর্বি নিজেই ভোকাল। তিনি গাইলেন 'আই অ্যাম ইন কুইন্সল্যান্ড অ্যান্ড ইট ইজ সানি/আই হ্যাভ দ্য পাম ট্রিস বিহাইন্ড মি'। 

ইন্সটাগ্রামে কর্বি লিখেছেন যে মিউজিক ভিডিও করাটা দারুণ মজার ছিল। এর মাধ্যমে অস্ট্রেলিয়ার মানুষের মধ্যে জনপ্রিয়তা গড়ে তুলছেন এই মাদক সম্রাজ্ঞী। 

এক টুইবার ব্যবহারকারী তো লিখেই ফেলেছেন, কেউ একজন দ্রুত কর্বির গানটাকে গ্রীষ্মের সেরা গান বলে দাবি করুন। ওয়াও! অস্ট্রেলিয়ার সত্যিকার আইকন তিনি। 

৪০ বছর বয়সী এই নারী ২০০৪ সালে তাকে ইন্দোনেশিয়ার বালিতে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল ৪ কেজি মারিজুয়ানাসহ। তখন থেকেই মিডিয়ার নজরে তিনি। মাদন উৎপাদনের স্থানগুলো তার তদারকিতে থাকে। গ্রেপ্তারের পর দোষি সাব্যস্ত হন এবং এক যুগ জেলে থাকেন। আরো তিন বছর প্যারোলে থাকেন বন্দি দ্বীপে। 

কিন্তু এই মামলায় তিনি জনপ্রিয় হয়ে গেলেন অস্ট্রেলিয়ায়। অনেকের ধারণা, তাকে ভুলভাবে শাস্তি প্রদান করা হয়েছে। 

তবে শাস্তি পাওয়ার পর কর্বি বিষণ্নতায় ডুবে যান। তার মানসিক স্বাস্থ্য ভেঙে পড়ে। অবশ্য এর বিনিময়ে মানুষের আবেগে ঠাঁই পেয়েছেন তিনি। 

ইন্দোনেশিয়ায় মাদকের বিষয়ে আইন অনেক কঠোর। সেখানে তাকে অন্যান্য অপরাধী হিসেবেই বিবেচনা করা হয়েছে। বরং সেখানে যে তার প্রাণদণ্ড হয়নি সেটাই ভাগ্যের বিষয়। 

গত বছরের মে মাসে বাড়ি ফেরেন কর্বি। তার পর থেকেই বেশ কিছু ভিডিও ছাড়ের সোশাল মিডিয়ায়। আসলে এতদিন কীভাবে ক্যামেরার আড়ালে ছিলেন তাই বলেছেন সেখানে। 

তবে তার সাম্প্রতিক মিউজিক ট্র্যাক অনেকের ভ্রুজোড়া কপালে তুলেছে। পাম ট্রিস রিলিজ করেছেন প্রোডিউসার অ্যাডেলেইড-ভিত্তিক নাটালি জেলেনি। এটা বের হয় গত ডিসেম্বরেই। কিন্তু বছরের পহেলা তারিখে তা ইন্সটাগ্রামে দেওয়া হয়। 

জেলেনি বলেন, তিনি প্রথমে কর্বির গানের প্রস্তাব পেয়ে তিনি কিছুটা হতভম্ব হয়ে যান। পরে অবশ্য হাসিমুখে কাজটি করেছেন। 

এই গানটকে কর্বির অভিষেক গান বলা হচ্ছে। অবশ্য কর্বি এবং তার গানকে অস্ট্রেলিয়ার মিডিয়া নির্দয়ভাবে উপহাস করেছে। এক টেলিভিশন উপস্থাপক তো ব্যাঙ্গ করে বলেই ফেললেন, এটা নিঃসন্দেহে ২০১৮ সালের বিগেস্ট হিট হতে চলেছে। 
সূত্র : বিবিসি 



মন্তব্য