kalerkantho


কে এই প্রিয়া, স্যোশাল মিডিয়ার নতুনতম ক্রাশ!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১৮:৩২



কে এই প্রিয়া, স্যোশাল মিডিয়ার নতুনতম ক্রাশ!

গতকাল রবিবার দুপুরে একটি ভিডিও-তে সোশ্যাল মিডিয়ায় অ্যাকটিভ নেটিজেনদেরকে নস্টালজিক করে দিয়েছিলেন এক সুন্দরী স্কুল গার্ল। দু চোখের হালকা দুলুনিই মনে মনে করিয়ে দিল অনেকের অনেক কিছু।

বন্ধুকে রিপ্লাই করতে গিয়ে ইমোজিতে আপনি মজা করে হামেশাই চোখ মারেন। রিয়েল লাইফে শেষ কবে কাউকে চোখ মেরেছেন, মনে পড়ে?

স্মৃতির পাতা উল্টানোর দরকার নেই। সোশ্যাল মিডিয়ায় হট কেকের মতো ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিও দেখলেই মনে পড়ে যাবে আপনার শেষ চোখ মারার স্মৃতি। নস্ট্যালজিয়ায় ভেসেও যেতে পারেন আপনি। মনে পড়ে যেতে পারে প্রথম কবে প্রেমিকার চোখের দিকে চেয়ে চোখ মেরে দুষ্টু ইশারা করেছিলেন।

স্কুল হোক বা কলেজ লাইফ, প্রত্যেকের জীবনেই চোখ মারার মজার মজার গল্প রয়েছে। একসময় চোখ মেরে ইশারাতেই বুঝিয়ে দেওয়া যেত না বলা অনেক কিছু। ক্লাসের এক কোণে বসেই হয়তো কোনো ছেলে ক্লাসের সবচেয়ে সুন্দরী মেয়েটাকে চোখ মারার সাহস পেত। গল্পে নয়, বাস্তবেই দেখা যেত এমন দৃশ্য।

আরও পড়ুন: ইন্টারনেট দুনিয়ায় ঝড় তোলা কে এই তরুণী?
 
এখন অবশ্য চোখ মারার সেই চল আর নেই। বন্ধুদের আড্ডা এখন শুধুই হোয়াটস অ্যাপে। সেখানে জায়গা পেয়েছে ভারচুয়াল চোখ মারার ইমোজি। ক্লাস-ক্যানটিন কিংবা চায়ের আড্ডায় এখন আর ভ্রু-য়ের হালকা দুলুনিতে চোখের ভেল্কি চোখে পড়ে না। হারিয়ে গিয়েছে ‘খাঁটি’ চোখ মারার রীতি। এখন চোখে মেরে কেউ বলে না ‘সমঝদারো কে লিয়ে ইশারাই কাফি হোতা হ্যায়’।

রবিবারের ওই ভিডিও-তে দেখা গেছে স্কুলবয়ের চোখের ইশারায় চোখ মেরে উত্তর দিচ্ছেন সুন্দরী স্কুলগার্ল। কখনো ডান কখনও বা বাম ভ্রু নাচিয়ে শুরুতে সৌজন্য বিনিময়, এরপর একেবারে সটাং বাম চোখটা টিপে দুষ্টু ইশারায় চোখ মারে মেয়েটি। এতেই ঝড় বয়ে গিয়েছে ফেসবুকে।

কয়েক ঘণ্টাতেই ভাইরাল সেই ভিডিও। সেই ভিডিও নিজেদের ফেসবুক ওয়ালে পোস্ট করে কেউ লিখেছেন, ‘মনে পড়ে গেল ছোটবেলার সেই সব দিনের কথা। সেই সব দিন আর কখনো ফিরে আসবে না।’ কেউ আবার লিখেছেন এভাবে আজ আর কেউ চোখ মারে না। নস্টালজিক হয়ে অনেকে আবার নিজেদের প্রথম চোখ মারার অভিজ্ঞতার কথা উল্ল্যেখ করেছেন সোশ্যাল মিডিয়ার পোস্টে।

আরও পড়ুন: চীনে আমির খানের ভয়াবহ জনপ্রিয়তায় বিস্মিত বলিউড

ভিডিওটি আসলে ‘ওরু আদার লাভ’ নামে ভারতের এক দক্ষিণী সিনেমার প্রোমো গানের ভিডিও। গানের নাম মাণিক্য মালারায়া পুভি। গানটি ইউটিউবে ইতিমধ্যেই ট্রেন্ডিংয়ের তালিকায় উঠে এসেছে প্রথমসারিতে। ইতিমধ্যেই প্রায় ৫৫ লাখ বার দেখা হয়ে গিয়েছে ভিডিওটি। আর যার চোখের চাউনিতে কুপোকাত হাজারও নেটিজেন তাঁর আসল নাম প্রিয়া প্রকাশ ওয়ারিয়র।

প্রিয়ার ওই চোখ মারার দৃশ্যটি যেন সরাসরি দর্শকদের হৃদয়ে গুলি মেরেছে। একদিনেই ইন্টারনেটের নতুন সেনসেশন বনে গিয়েছেন প্রিয়া। ফলে সবার মনে এখন একটাই প্রশ্ন কে এই প্রিয়া?

প্রিয়া একজন নবাগতা মডেল অভিনেত্রী। বয়স মাত্র ১৮। মালায়লাম সিনেমা ‘ওরু আদার লাভ’-এ অভিনয়ের মধ্য দিয়েই তার সিনেমায় অভিষেক। সিনেমাটির পরিচালনা করেছেন ওমর লুলু নামের এক মুসিলম পরিচালক।

প্রিয়া একজন প্রশিক্ষিত মোহিনিয়াত্তাম নৃত্যশিল্পী। ফলে এতে কোনো সন্দেহ নেই তিনি নানা ধরনের মুখের অভিব্যক্তি নিখুঁতভাবেও দিতে সক্ষম। আর এ কারণেই তার চোখ মারার দৃশ্যটি এমনভাবে দর্শকদের হৃদয় কেড়েছে।

অভিষেক সিনেমাটি মুক্তি না পেতেই প্রিয়া ইতিমধ্যেই আরেকটি সিনেমায় সাক্ষর করেছেন। প্রিয়া ভারতের মডেলিংয়ের দুনিয়ায়ও বেশ পরিচিত একটি চেহারা।

ফেসবুক এবং ইনস্টাগ্রামেও আগে থেকেই বেশ জনপ্রিয় মডেল প্রিয়া। ইনস্টাগ্রামে তার ৫৫ হাজার ফলোয়ার আছে। যা প্রতি মুহূর্তেই বেড়ে চলেছে।

আর গতকাল মাত্র টুইটারে একটি অ্যাকাউন্ট খুলেছেন। ইতিমধ্যেই মাত্র কয়েক ঘন্টায় টুইটারে তার ফলোয়ার সংখ্যা ১৫ হাজার ছাড়িয়ে গেছে।

ভারতের দাক্ষিণাত্যের কেরালা প্রদেশের ত্রিশুর থেকে আগত ১৮ বছর বয়সী প্রিয়া ত্রিশুরের ভিমালা কলেজে বিকম পড়ছেন।

এত অল্প সময়েই তিনি জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন তাতে ধারণা করা যায় সামনের দিনে তিনি আরো ভালো কিছু উপহার দিতে চলেছেন ভারতীয় সিনেমা শিল্পকে।

ভিডিওতে দেখুন...

সূত্র: ইন্ডিয়া টুডে



মন্তব্য

nuralam commented 11 days ago
পুরো ভিডিওটি নিখুঁত ভাবে দেখলে মেয়েটির চেয়ে ছেলেটির অভিনয় অনেক নিখুঁত ও সুন্দর হয়েছে । ছেলেটির চোখের, মুখের ও মনের অভিনয় অনেক অনেক সুন্দর ও নিখুঁত হয়েছে । আর কিনা মেয়েটির চোখ মারা নিয়ে ইন্টারনেটে পাগল ! কেন ছেলেটির এই সুন্দর অভিনয়কে হাই লাইট করা হয় নি ?????? হায়রে মানুষ ! তোমরা কিছুই জানো না । তোমরা একটি মেয়ে বলে তার পিছনে ছুটে বেড়াচ্ছ । হায়রে মানুষ !!!!!!!!!!!
nuralam commented 11 days ago
পুরো ভিডিওটি নিখুঁত ভাবে দেখলে মেয়েটির চেয়ে ছেলেটির অভিনয় অনেক নিখুঁত ও সুন্দর হয়েছে । ছেলেটির চোখের, মুখের ও মনের অভিনয় অনেক অনেক সুন্দর ও নিখুঁত হয়েছে । আর কিনা মেয়েটির চোখ মারা নিয়ে ইন্টারনেটে পাগল ! কেন ছেলেটির এই সুন্দর অভিনয়কে হাই লাইট করা হয় নি ?????? হায়রে মানুষ ! তোমরা কিছুই জানো না । তোমরা একটি মেয়ে বলে তার পিছনে ছুটে বেড়াচ্ছ । হায়রে মানুষ !!!!!!!!!!!