kalerkantho


প্রিয় তারকাদের প্রিয় প্রেমের সংলাপ

১৪ ফেব্রুয়ারি ভালোবাসা দিবস। পূর্ণিমা, আরিফিন শুভ, মেহজাবিন চৌধুরী, সিয়াম আহমেদ ও সাফা কবির—এই পাঁচ শোবিজ তারকা বলেছেন তাঁদের প্রিয় দুটি প্রেমের সংলাপ—একটি বাংলা, আরেকটি বিদেশি ভাষার   

৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১৭:৩৫



প্রিয় তারকাদের প্রিয় প্রেমের সংলাপ

পূর্ণিমা

প্রিয় বাংলা সংলাপ : ‘এ জীবন তোমার আমার’ ছবির একটি দৃশ্যে রিয়াজের সঙ্গে কোমরপানিতে আমি। চিঠি দিয়েছে রিয়াজ, কিন্তু কাগজে কিচ্ছু লেখা নেই। তখন আমি বলি, ‘অনেক আশা নিয়ে একটা চিঠি খোলার পর যখন দেখি কিছুই লেখা নেই তখন কেমন লাগে বলো তো!’ সংলাপটি যেমন মজার, তেমনি রোমান্টিক।

বিদেশি ভাষার প্রিয় সংলাপ : ‘মোহব্বত জিন্দেগি কি তারাহ হোতি হ্যায়, হার মোড় আসান নেহি হোতা’। ‘মোহব্বতেঁ’ ছবির সংলাপ। ছবিতে শাহরুখ খান ভালোবাসা হারিয়েও খোঁজার চেষ্টা করেন। শাহরুখের এই সংলাপটি আমাদের শৈশবের। তখন যা দেখতাম তা-ই ভালো লাগত। এই সংলাপটিও তেমন।

আরিফিন শুভ

প্রিয় বাংলা সংলাপ : ‘সপ্তপদী’ ছবির উত্তম-সুচিত্রার বেশ কিছু রোমান্টিক দৃশ্য চোখে ভাসে। অনেক দিন পর হাসপাতালে তাঁদের যখন দেখা হয়, উত্তমের মুখে তখন দাড়ি। অসুস্থ সুচিত্রার চিকিৎসা করেছেন উত্তম। সুচিত্রা দৌড়ে এসে ডাক্তারকে বলছেন, ‘চিকিৎসার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ। হাসপাতালে টাকা দিতে গেলাম নিল না। আপনাকে কিন্তু নিতেই হবে।’ উত্তম তখন মুখ ফিরিয়ে রাখেন, সুচিত্রা তাঁর চেহারা দেখতে পান না। যখন মুখ ঘুরিয়ে সুচিত্রার মুখোমুখি হন, বিস্মিত সুচিত্রা ‘নো নো’ বলে চিৎকার করে চলে যান। এরপর ব্যাকগ্রাউন্ডে বাজে, ‘এই পথ যদি না শেষ হয়..।’ গানের আগের সংলাপগুলো আসলে ভোলার নয়।

বিদেশি ভাষার প্রিয় সংলাপ : ‘পেয়ার দোস্তি হ্যায়। আগার ও মেরি সবসে আচ্ছা দোস্ত নেহি বান সকতি তো ম্যায় ইসকো ভি প্যায়ার কর নেহি সাকতা। কিঁউকি দোস্তি বিনা তো প্যায়ার হোতা হি নেহি’। ‘দিলওয়ালে দুলহানিয়া লে জায়েঙ্গে’র সংলাপটি আমার বেশ প্রিয়। এটাই আসলে সত্যি কথা। সম্পর্কে যদি বন্ধুত্বটা না থাকে সেটা স্থায়ী হয় না।

মেহজাবিন

প্রিয় বাংলা সংলাপ : “তোমরা বড় অদ্ভুত! তোমাদের সবাই ‘দেবদাস’ পড়ে বড় হও। পার্বতী-দেবদাসকে মিলিয়ে দিয়ে সুখের রচনা দাও। কিন্তু তোমাদের পাশে পড়ে থাকা পার্বতীকে কখনোই ধরা দিতে চাও না। তার কষ্ট বুঝেও না বোঝার ভান করো। কেন তোমরা এমন? তোমাদের কাছে কি উত্তর আছে সেই প্রশ্নের, জীবনের স্বপ্ন দেখার দিনগুলো একজনের পাশে থেকে মনে তার জন্য ভালোবাসার তাজমহলে স্বপ্ন সাজিয়ে অন্য কারো সাথে সে কী করে জীবন সাজাবে? স্বপ্নহীন জীবন যে কখনোই সাজে না’। সংলাপটি একটি নাটকের, নাম মনে পড়ছে না। টিভিতে দেখেছি। সংলাপগুলো মনে ধরেছে।

বিদেশি ভাষার প্রিয় সংলাপ : ‘এক আওয়াজ হে জো মেরি কানোমে গুচতি রেহতাহে। এক চেহরা জো মেরি আঁখোমে বারবার আ জাতি হে। মেরা দিল কা সুকুন থি ওহ’। হিন্দি ‘আওয়ারাপান’ ছবিতে ইমরান হাশমির মুখের এ সংলাপটি আমার খুব ভালো লেগেছে। সংলাপটি আরো বড়, পুরোটাই আমার মুখস্থ।

সিয়াম আহমেদ

প্রিয় বাংলা সংলাপ : আমারই কোনো একটা নাটকের সংলাপ, ‘ভালোবাসা থাকলেও অনেক সময় সারা জীবন একসঙ্গে সংসার করা যায় না, কখনো কখনো ভালোবাসার খোঁজে সারা জীবন কাটিয়ে দেওয়া যায়।’

বিদেশি ভাষার প্রিয় সংলাপ : ‘লাইফ ইজ আ গেস্ট, সো লাভ ইট। ‘ইটস আ ওয়ান্ডারফুল লাইফ’ ছবির সংলাপ।

সাফা কবির

প্রিয় বাংলা সংলাপ : আমার ‘অক্ষর’ শর্ট ফিল্মের একটা সংলাপ, ‘আজকে মিলি আমাকে প্রেমপত্র দিয়েছে। আমি বেশ কয়েক দিন ধরেই সন্দেহ করছিলাম। আমি তাকে কঠিনভাবে না করে দিয়েছি। এই বয়সে আবেগটা একটু বেশিই থাকে। সবচেয়ে বড় কথা, আমি তো মিলিকে ভালোবাসি না, আমি তো ভালোবাসি তোমাকে।’ দৃশ্যটা খুব রোমান্টিক, বক্তব্যও দারুণ।

বিদেশি ভাষার প্রিয় সংলাপ : ‘যব উই মেট’ ছবির এই সংলাপ, ‘যব কোয়ি পেয়ার মে হোতা হ্যায়, তো কোয়ি সহি-গলত নেহি হোতা।’


মন্তব্য