kalerkantho


বাজে অভিনয়ের জন্য থাপ্পড় খেয়েছিলেন অভিষেক বচ্চন!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ জানুয়ারি, ২০১৮ ২০:০৯



বাজে অভিনয়ের জন্য থাপ্পড় খেয়েছিলেন অভিষেক বচ্চন!

বলিউডে নাকি পা রাখা সোজা‚ কিন্তু সেখানে টিকে থাকাটাই নাকি আসল চ্যালেঞ্জ। আর স্টার-কিডদের ক্ষেত্রে তা আরো কঠিন হয়ে ওঠে। বিশেষত তাদের বাবা বা মা যদি নামী অভিনেতা/ অভিনেত্রী হন তাহলে। আসলে দেখতে গেলে স্টার-কিডদের কিন্তু অন্যদের তুলনায় একটু বেশিই স্ট্রাগল করতে হয়। কারণ প্রতি নিয়ত তাদের সঙ্গে তাঁদের বাবা মা-কে তুলনা করা হয়। আর অভিষেক বচ্চনের বেলায় এই স্ট্রাগল বহুগুণে বেশি। অভিষেক ২০০০ সালে ‘রিফিউজি' ছবি দিয়ে বলিউডে প্রবেশ করেছিলেন।

অনেকেই মনে করে অভিষেকের জন্য ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে পা রাখাটা খুব সহজ ছিল। কিন্তু যার বাবা কিংবদন্তী অভিনেতা অমিতাভ বচ্চন তাঁর পক্ষে ব্যাপারটা কতটা কঠিন বুঝতেই পারছেন। অভিষেকের ফিল্মি কেরিয়ার ভালোর থেকে খারাপ দিকটাই বেশি দেখেছে। সম্প্রতি তার একটা পুরনো সাক্ষাৎকার থেকে জানা গেছে একটা এমন ঘটনার কথা যা অন্য কোনো অভিনেতার সঙ্গে ঘটলে সে হয়তো অভিনয় জীবনকে বিদায় জানিয়ে দিত। কিন্তু অভিষেক হেরে না গিয়ে ঘুরে দাঁড়িয়েছেন। কী সেই ঘটনা জানতে চান? একবার একজন মহিলা তাকে গালে থাপ্পড় মারেন বাজে অভিনয় কার জন্য।

অভিষেক নিজের মুখে এই ঘটনার কথা জানিয়েছেন। ‘তেরা জাদু চল গয়া‘‚‘ ঢাই আখর প্রেম কে‘‚ ‘ বস ইতনা সা খোয়াব হ্যায়‘ এবং ‘ ওম জয় জগদীশ‘ এর মতো সব ছবিতে অভিনয় করে তিনি একজন ‘ফ্লপ‘ নায়কের তকমা পেয়ে গেছেন ইতিমধ্যেই। এইসময় মুক্তি পায় তার পরবর্তী ছবি ‘ শরারাত‘। এরপর কী ঘটেছিল শুনুন অভিষেকের মুখে ‘ ছবি রিলিজ করার পর আমি গ্যালাক্সি হল-এ গিয়েছিলাম দর্শকদের কেমন লাগল ওই ছবি তা জানতে। হাফ টাইমে একজন মহিলা হল থেকে বেরিয়ে আসেন। আমি হলের বাইরেই দাঁড়িয়েছিলাম। তিনি আমার কছে এসে কোনো কথা না বলে আমার গালে সপাটে চড় মারেন। তিনি চড় মারার পর আমাকে বলেন ‘তোমার বাজে অভিনয়ের জেরে তোমার পরিবার বিশেষতঃ তোমার বাবা লজ্জিত বোধ করেন। দয়া করে অভিনয় করা ছেড়ে দাও। তাদের আর লজ্জা দিও না। ‘

এই ঘটনায় অভিষেক ভীষণ স্তম্ভিত হয়ে গেলেও মুখে হাসি ফুটিয়ে তোলেন। অভিনেয় জীবনকে বিদায় ন জানিয়ে অভিষেক এরপর ‘ ধূম ‘‚ ‘ যুবা ‘ এবং ‘ গুরু ‘-র মতো ছবিতে অভিনয় করে প্রমাণ করে দেন যে তিনিও ভালো অভিনয় করতে পারেন। এই ছবিগুলোর জন্য উনি দর্শক সহ সিনেমা বিশেষজ্ঞদের কাছে প্রশংসিতও হন।



মন্তব্য