kalerkantho


শাহরুখের সাথে সম্পর্কের ইতি ঘটলো সাকিবের

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৪ জানুয়ারি, ২০১৮ ২০:৪১



শাহরুখের সাথে সম্পর্কের ইতি ঘটলো সাকিবের

তিনি বলিউডের কিং খান। বলিউডে তার দাপটের কথা কে না জানে। বলছিলাম শাহরুখ খানের কথা। ভালোবাসার একটি জায়গায় বাংলাদেশের সাথে তৈরি হয় তার হৃদ্যতা। আর এই ভালোবাসার জায়গাটা হলো ক্রিকেট। ক্রিকেটকে ভালোবাসাএ কারণেই ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে একটি দল কেনেন।

কলকাতা নাইট রাইডার্সের মালিক হবার পর থেকেই বাংলাদেশের সাথে তার সম্পর্ক। এই সম্পর্কের মূলে যিনি তিনি হলেন বাংলাদেশের ক্রিকেটের প্রাণ সাকিব আল হাসান। কলকাতা নাইট রাইডার্সের অপরিহার্য খেলোয়াড় ছিলেন সাকিব আল হাসান। এবার আর তাকে দেখা যাবে না কলকাতা নাইট রাইডার্সের জার্সি গায়ে। এর ফলে স্বাভাবিকভাবেই শাহরুখের সাথে সম্পর্কটা চুকে যাচ্ছে সাকিবের।

বোর্ডের পাঠানো ইমেইল-এ জানানো হল— কেকেআর মাত্র দুই ক্রিকেটারকে ধরে রাখছে। এঁরা যথাক্রমে — সুনীল নারাইন এবং আন্দ্রে রাসেল। পাঁচ ক্রিকেটারকে ধরে রাখার সুযোগ থাকলেও দুই ক্যারিবিয়ান ছাড়া সব ক্রিকেটারদেরই ছেড়ে দিতে হচ্ছে।

সেই সঙ্গে কেকেআর-এর সঙ্গে সম্পর্কে ইতি ঘটে গেল সাকিব আল হাসানেরও। তারকা অলরাউন্ডারকে ধরে রাখার পেছনে যুক্তি ছিল, বাংলাদেশে কেকেআর-এর জনপ্রিয়তায় অনুঘটক সাকিব। পাশাপাশি সাকিবের পারফরম্যান্সও ছিল নজরকাড়া। জাতীয় দলের জার্সিতেও নিয়মিত পারফরম্যান্স করে যাচ্ছেন সাকিব। তা সত্ত্বেও কেন রাখা হলো না সাকিবকে?

কেকেআর-এর ভেতরের খবর অনুযায়ী কান পাতলে শোনা যাচ্ছে, নির্দিষ্ট পরিকল্পনা মেনেই রাখা হয়নি সাকিবকে। আসলে গম্ভীর-যুগ থেকে বেরিয়ে আসতে চাইছেন নাইট রাইডার্স কর্তারা। নতুন করে দল সাজাতে চাইছেন তাঁরা।

সাত বছর পর সাকিব আল হাসানের সঙ্গে বিচ্ছেদ ঘটল কেকেআর-এর। গত মরশুমে কেকেআরের সুযোগ ছিল ১৪ জন ক্রিকেটার ধরে রাখার। তখন সাকিবকে রিটেন করেছিল নাইট রাইডার্স। তার-ও আগে ২০১৪ সালে সাকিবকে ছেড়ে দিয়েও ফের নিলামে কিনেছিল কেকেআর।

তবে কেকেআর-এর তরফে চলতি মাসের শেষ দিকে নিলামে সাকিবকে না কেনার সম্ভাবনা বেশি। সাকিবকে বাদ দেয়ার পর মূল কারণ বাজেট। গত মৌসুমে সাকিব দলকে ঠিকমতো সার্ভিস দিতে পারেননি বলে নাইট কর্তৃপক্ষের অভিমত। তাই সাকিবকে বিদায় জানিয়ে দেওয়া হলো। নিলামের আগেই। আর সাকিবের যদি হয়েই হয়েই থাকে তাহলে শাহরুখের সাথে সম্পর্কের ইতি ঘটলো শাহরুখের।

 



মন্তব্য