kalerkantho


‘নো স্মোকিং’ বিজ্ঞাপনের কিউট শিশুটি এখন...

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২ জানুয়ারি, ২০১৮ ১৬:১২



‘নো স্মোকিং’ বিজ্ঞাপনের কিউট শিশুটি এখন...

সিনেমা হলে কিংবা এইচবিও-স্টার মুভিজসহ স্যাটেলাইট চ্যানেলগুলোতে কোনো সিনেমা প্রদর্শনের আগে প্রায়ই একটি বিজ্ঞাপন দেখানো হয়। এটা দেখানো হয় যদি প্রচাররত সিনেমায় ধূমপানের কোনো দৃশ্য থেকে থাকে। 

বিজ্ঞাপনে দেখা যায়, একটি ফুটফুটে বাচ্চা মেয়ে পরিবারের সঙ্গে ড্রয়িংরুমে বসে টিভি দেখছে। এসময় শিশুটির বাবা সিগারেট ধরাতে যায় এবং তার কাশি শুরু হয়, মেয়েটা অস্বস্তি বোধ করতে থাকে ধোঁয়ার কারণে। পরে মেয়ের কথা বিবেচনা করে তিনি ধূমপানে বিরত হন। 

নো স্মোকিং টিভি বিজ্ঞাপনের স্থিরচিত্রে সিমরান    ফাইল ফটো

এটি দীর্ঘতম সময় ধরে চলমান ধূমপান বিরোধী বিজ্ঞাপনের মর্যাদা পেয়েছে।

৭ বছর বয়সে করা ওই আলোচিত বিজ্ঞাপনে অসাধারণ অভিনয়ের মাধ্যমে শিশুটি বিশ্বজুড়ে পরিচিতি পায়।  ধূমপান বিরোধী ৪৫ সেকেন্ডের সচেতনতা জাগানিয়া ওই বিজ্ঞাপনে এখনো তাকে শিশু দেখালেও সিমরান নাটেকর এখন অনেক বদলে গেছেন।

আরো পড়ুন  সেই ধনুকটা আর আমার কাছে নেই

সেই মিষ্টিমুখের শিশু সিমরান এখন ১৯ বছরের ঝলমলে তরুণী। যদিও কোথাও কোথাও উল্লেখ আছে তার জন্ম ২০০২ সালে।

 

ভরত নাট্যমে পারদর্শী সিমরান বলিউড কুইন প্রিয়াঙ্কাকে আইডল মানেন 

নো স্মোকিংয়ের বিজ্ঞাপনের পর এতদিনে ডোমিনাস, ভিডিওকন, ক্লিনিক প্লাস, কেল্লোগ, ইয়াকুত, বার্বি খেলনাসহ অনেকগুলো বিজ্ঞাপনে পারফর্ম করেছেন। টিভি সিরিয়াল ‘পাহারেদার পিএ কি’ তেও অভিনয় করেছেন।

এছাড়া যশরাজ ফিল্মসের‘দাওয়াত-এ-ইশক’ নামের বলিউড সিনেমাতে ফরিদা চরিত্রে দেখা গেছে তাকে। ‘বেস্ট অব লাক লালু’ সিনেমায় প্রধান নারী চরিত্রে আছেন। ডিজনি চ্যানেলের কমেডি শো ওয়ে জানসিকান-এ মিনি রায় চরিত্রেও পারফর্ম করেন। 

যশরাজ ফিল্মসের ‘দাওয়াত-এ-ইশক’-এ ফরিদা চরিত্রে দেখা গেছে

বিখ্যাত শিশুদের নিয়ে অনুষ্ঠান শাহানা এবং ‘সুপ্রিম লাইফ অব করন অ্যান্ড কবির’ এর মাধ্যমে ব্যাপক দর্শকপ্রিয়তা পেয়েছেন।  

আরো পড়ুন  ট্রাম্পদেশীয় এক অসাধারণ প্রেমগাথা: মৃত্যুর ঘণ্টা কয়েক আগে...​ 

বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়ায় খুব তৎপর দেখা যায় এক সময়ের ‘শিশুটিকে’। মুম্বাইতে জন্ম নেওয়া এই শিল্পী প্রায় প্রতিদিন নিত্যনতুন গ্ল্যামারাস ছবি পোস্ট করেন ভক্তদের জন্য। প্রিয়াঙ্কা চোপড়াকে নিজের আদর্শ মানেন ভরত নাট্যমে পারদর্শী সিমরান। জনসত্তা.কম,উইকিপিডিয়া,ফেসবুক,ইন্সটাগ্রাম 



মন্তব্য