kalerkantho


দুই বছরে ১১ স্বামী বদল, একমাসেই চারজন

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ১৭:৩৩



দুই বছরে ১১ স্বামী বদল, একমাসেই চারজন

ব্যবধান দুই বছরের। এরইমধ্যে ১১ জন স্বামী বদল করেছেন এক তরুণী।

তবে এর চাঞ্চল্যকর বিষয় হলো এক মাসেই চারজনকে বিয়ে করেন ওই তরুণী। কিন্তু কারও সঙ্গেই ঘর-সংসার করেননি। বিয়ে করে সংসার করতেই তার অনীহা। কেননা তিনি বিয়ে করেন বিশেষ উদ্দেশ্য সাধনের জন্য। ঘটনাটি ঘটেছে থাইল্যান্ডের একটি শহরে। ভারতের এনডিটি থাইল্যান্ডের ইংরেজি ভাষার পত্রিকা ‘দ্য নেশন’ এর বরাত দিয়ে এ খবর প্রকাশ করেছে।

জানা গেছে,  তরুণী ফেসবুক ব্যবহার করে বিভিন্ন পুরুষের সঙ্গে বন্ধুত্ব গড়ে তোলেন। এরপর ধীরে ধীরে সম্পর্ক গভীরতার দিকে নিয়ে যান। একপর্যায়ে তাঁদের সঙ্গে যৌনতায় লিপ্ত হন।

পরে বিয়ে করেন তাঁদের। এরপর তাঁদের কাছ থেকে অর্থ হাতিয়ে নিয়ে লাপাত্তা হয়ে যান।

থাইল্যান্ড পুলিশ জানিয়েছে, এই তরুণী এভাবে গত দুই বছরে ১১ জন পুরুষকে বিয়ের ফাঁদে ফেলে বিপুল পরিমাণ অর্থ হাতিয়ে নিয়েছেন। থাইল্যান্ডের রীতি অনুযায়ী বিয়ের পর প্রত্যেক পুরুষই ওই তরুণীকে একটি নির্দিষ্ট অঙ্কের অর্থ দেন। ১১ জন স্বামীর প্রত্যেকের কাছ থেকে তিনি ৬ হাজার থেকে ৩০ হাজার মার্কিন ডলার পর্যন্ত নিয়েছেন। অর্থ আদায়ের পরই তিনি ঝামেলা বাঁধান। এরপরে হন লাপাত্তা।

সম্প্রতি প্রতারিত ১১ জনের একজন পুলিশের কাছে অভিযোগ করলে ঘটনাটি স্থানীয় গণমাধ্যমে প্রকাশ পায়। তখন অন্য প্রতারিত ব্যক্তিরা এসেও একই অভিযোগ করেন। পুলিশ জানায়, প্রাথমিকভাবে ১২ জন অভিযোগকারী ওই নারীর স্বামী বলে দাবি করেন। কিন্তু পরে ১১ জনের সঙ্গে তাঁর বিয়ের বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে। সবার সঙ্গে প্রতারণার মাধ্যমে বিয়ে করা ও অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার পদ্ধতি একই রকম ছিল।


মন্তব্য