kalerkantho


ঢাকার প্রথম জীবনে স্ত্রীকে নিয়ে একবেলা না খেয়ে থাকতেন রাজ্জাক

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ আগস্ট, ২০১৭ ১৯:৩০



ঢাকার প্রথম জীবনে স্ত্রীকে নিয়ে একবেলা না খেয়ে থাকতেন রাজ্জাক

ঢাকায় এসে সংগ্রাম করেন নায়ক রাজ রাজ্জাক। দিন গেছে একবেলা না খেয়ে থেকেছেন।

স্ত্রীকে নিয়ে সেই সব সংগ্রামের দিনের কথা রাজ্জাক বলেছিলেন কালের কণ্ঠের এক সাক্ষাৎকারে।

২০১৫ সালের ২৪ জুলাই দেওয়া ওই সাক্ষাৎকারে নায়করাজ বলেন, কলকাতা থেকে এসে কমলাপুরে একটা বাসা ভাড়া নিলাম। জব্বার সাহেব, তাঁর ছেলেদের সঙ্গে আলাপ হলো। ওদের পাড়ায় চলে গেলাম। কিছু তো করতে হবে। ফিল্ম তো আর হঠাৎ করে হয় না। তখন জব্বার সাহেবের 'উজালা প্রোডাকশন' চলছে। কামাল আহমেদ ডিরেক্টর। তাঁর ৪ নম্বর অ্যাসিস্ট্যান্ট হলাম।

জব্বার সাহেবের শালা আনিস নাম, ওই অফিসের অ্যাকাউন্ট্যান্ট ছিল। এখন লন্ডনে থাকে। সে যথেষ্ট হেল্প করেছে।

তিনি বলেন, কাজ করতে করতে চেষ্টা করছি। ডিরেক্টরদের সঙ্গে যোগাযোগ করছি, জহির রায়হান সাহেবের সঙ্গে যোগাযোগ করলাম। ডেকে বললেন, 'একটা ছবি করব। যোগাযোগ রাখবেন। ' 'হাজার বছর ধরে' করার কথা হচ্ছে। তাঁরই উপন্যাস। অ্যাসিস্ট্যান্ট হিসেবে কাজ করে যাচ্ছি। বাড়ি পাল্টাচ্ছি। কমলাপুর থেকে মগবাজার নয়াটোলায় এলাম। এফডিসির একটু কাছাকাছি ফার্মগেটে এলাম। বাপের ওখান থেকে কিছু টাকা নিয়ে হুন্ডা কিনে নিলাম। যেহেতু বাসে চলাফেরার অভ্যাস নেই, খুব কষ্ট হতো। অটোতে চলাচলের পয়সা তো জোগাড় করতে পারব না। জহির সাহেব বললেন, সুযোগ দেবেন। 'বাহানা' ছবি করছিলেন। আমার স্ট্রাগল একদম এক্সট্রিম পর্যায়ে চলে গেল। ভেবেছিলাম, ফিরে যাই। সবাই আছে দেশে। ওয়াইফ বলল, 'না, এসেছ যখন ফাইনাল দেখ। ' হোন্ডা-টোন্ডা সব বিক্রি হয়ে গেছে। খুব আপদে আছি। দুটি বাচ্চা। দুজনই ফিড করে। আমি-আমার স্ত্রী, মোটামুটি এক বেলা উপোসই থাকি।


মন্তব্য