kalerkantho


শেষ পর্যন্ত রাজ্জাকের দাফন আগামীকাল, আসছেন মেজ ছেলে বাপ্পি

আহ্‌সান কবীর   

২২ আগস্ট, ২০১৭ ১৫:৫৪



শেষ পর্যন্ত রাজ্জাকের দাফন আগামীকাল, আসছেন মেজ ছেলে বাপ্পি

নায়করাজ রাজ্জাক ও তাঁর মেজ ছেলে বাপ্পি

নায়করাজ রাজ্জাকের দাফনের সময় শেষ পর্যন্ত আগামীকাল (বুধবার) সকাল ১০টায় নির্ধারণ করা হয়েছে। আর তার শেষ জানাজা আজ (মঙ্গলবার) বাদ আসর গুলশানের আজাদ মসজিদে অনুষ্ঠিত হবে।

কালের কণ্ঠকে এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মরহুম রাজ্জাকের কনিষ্ঠ ছেলে সম্রাট।  

বিষয়টি আরও নিশ্চিত করেছেন রাজ্জাকের একমাত্র কন্যা ময়নার স্বামী পিন্টু ও বড় ছেলে বাপ্পারাজ।

রাজ্জাক পরিবারের ঘনিষ্ঠ আল হাসান চৌধুরী মিঠু দুপুর পৌনে ৩টার দিকে কালের কণ্ঠকে জানান, রাজ্জাকের কানাডাপ্রবাসী মেজ ছেলে বাপ্পি ও তার পরিবারকে বহনকারী ফ্লাইট আগামীকাল সকাল পৌনে ৫টায় শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করবে। তিনি টার্কিশ এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইটে আছেন এখন।  

বাপ্পি বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উড়োজাহাজে ওঠার আগে। তার আলোকে পরিবারের সদস্যরা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আজ মঙ্গলবার না, আগামীকাল বুধবারই রাজ্জাককে দাফন করা হবে।

এর আগে জানানো হয়েছিল, মঙ্গলবার দুপুর ৩টায় গুলশানের আজাদ মসজিদে সর্বশেষ জানাজা শেষে একই দিন বনানী বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে তাঁকে রাষ্ট্রীয় সম্মানে সমাহিত করা হবে।

কিন্তু পরবর্তীতে নায়ক আলমগীরের বরাতে কালের কণ্ঠসহ বেশকিছু অনলাইন পত্রিকা জানায়, মেজ ছেলে বাপ্পি যাতে পিতার মরদেহ দেখতে পারেন সে জন্য রাজ্জাকের দাফন একদিন পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। সে সূত্রে আজ মঙ্গলবারই তাকে দাফন না করে আগামীকাল বুধবার করা হবে।

 

কিন্তু নায়করাজের বড় ছেলে বাপ্পারাজ ও চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির মহাসচিব বদিউল আলম খোকন তখন জানান, দাফন আজকেই (মঙ্গলবার) হবে। কারণ, বাপ্পি আগামীকাল সকালে পৌঁছাতে পারবেন না।  

এ পর্যায়ে আজ দুপুরে রাজ্জাকের মেঝ ছেলে বাপ্পির ঘনিষ্ঠ বন্ধু ব্যবসায়ী আল হাসান চৌধুরী মিঠুর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি কালের কণ্ঠকে জানান, কানাডা থেকে দেশের পথে বাপ্পি সপরিবারে রওনা দিয়েছেন। তারা এখন টার্কিশ এয়ারের একটি ফ্লাইটে আছেন। সবকিছু ঠিক থাকলে আশা করা যাচ্ছে, আগামীকাল বুধবার ভোরের আগে তারা ঢাকায় পৌঁছাবেন।

টার্কিশ এয়ারওয়েজে করা বাপ্পির বিমান টিকিটের ফটোকপি                  -কালের কণ্ঠ

বিষয়টি নিশ্চিত হতে যোগাযোগ করলে কানাডাপ্রবাসী বাপ্পির অপর বন্ধু মঞ্জু মেসেঞ্জারে বাপ্পির টিকিটের একটি ফটোকপি পাঠান কালের কণ্ঠকে। তাতে দেখা যায় আগামীকাল ভোর ৪টা ৪৫ মিনিটে তাদের বহনকারী বিমানটি শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছাবে।  

কানাডাপ্রবাসী বাপ্পির অপর বন্ধু জ্যাকব এবং পাপ্পুও বিষয়টি নিশ্চিত করেন কালের কণ্ঠকে।

প্রসঙ্গত, এর আগে রাজ্জাকের দাফন পেছানোর সংবাদে নায়ক আলমগীরের জবানিতে জানানো হয়েছিল, 'গতকাল রাতে আমরা রাজ্জাক ভাইয়ের বাসায় তার পরিবারের সঙ্গে মিটিং করে আজকেই (মঙ্গলবার) দাফনের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। কিন্তু মাঝরাতে জানা গেল, রাজ্জাক ভাইয়ের মেজ ছেলে বাপ্পি আগামীকাল বুধবার ভোরে কানাডা থেকে দেশে ফিরবে। সে তার বাবাকে যেকোনো মূল্যে শেষবারের মতো দেখতে মায়ের কাছে আবদার করেছে। ভাবি (নায়করাজের স্ত্রী লক্ষ্ণী) আমাদের অনুরোধ জানিয়েছেন, আরেকটা দিন মরদেহ রাখার ব্যবস্থা করতে। তাই নতুন করে সিদ্ধান্ত নিতে হলো। '

কিন্তু এরপর পরিস্থিতি আবার বদলে যায়। রাজ্জাক পরিবারের সূত্রে বিশেষ করে বড় ছেলে বাপ্পারাজ ও চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির মহাসচিব বদিউল আলম খোকনের বরাতে জোর দিয়ে বলা হয়, দাফন আজকেই (মঙ্গলবার) হবে। এমন দোলাচলে সংবাদকর্মীরাও বিভ্রান্তিতে পড়েন। তবে কালের কণ্ঠ অনলাইনে সংবাদগুলো যথাযথ গুরুত্ব দিয়ে প্রকাশ করা হতে থাকে।  

এদিকে, বিকাল ৩টা ২০ মিনিটে রাজ্জাক পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করে আবারও নিশ্চিত হওয়া গেছে যে দাফন আগামীকাল বুধবরাই হবে। আজ বাদ আসর বিকাল ৫টার দিকে গুলশান আজাদ মসজিদে নায়করাজের জানাজা হবে। এরপর তার মরদেহ ফের হিমঘরে রাখা হবে।

সোমবার সন্ধ্যা ৬টা ১২ মিনিটে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে নায়করাজ রাজ্জাক শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।  

আসর পর্যন্ত আজাদ মসজিদে রাখা হবে নায়করাজের মরদেহ



 


মন্তব্য