kalerkantho


মেধাবী অভিনয় শিল্পী, কিন্তু পেরোতে পারেননি কলেজের গণ্ডি!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ আগস্ট, ২০১৭ ১৯:১১



মেধাবী অভিনয় শিল্পী, কিন্তু পেরোতে পারেননি কলেজের গণ্ডি!

অনেক ছবিতেই তাঁদের দেখা গেছে নায়ক বা নায়িকা হিসাবে কলেজ -প্রেমকে পর্দায় ফুটিয়ে তুলতে। কোনও ছবিতে মেধাবী কলেজ শিক্ষার্থী হিসাবে অভিনয় করতেও দেখা গেছে  অনেক বলিউড তারকাকে।

তবে জানেন কি, বলিউডের বেশ কয়েকজন তারকা আছেন যাঁরা সিনেমায় এই সমস্ত চরিত্রে অভিনয় করলেও , বাস্তবে কলেজের গন্ডি পর্যন্তও য়েতে পারেননি।

সুন্দরী ক্যাটরিনা

সুন্দরী ক্যাটরিনা কাইফ থেকে, হ্যান্ডসম হাঙ্ক অর্জুন কাপুর সহ বহু তারকা অভিনেতার কপালেই জোটেনি কলেজে পড়ার সুযোগ। আসুন দেখে নেওয়া যাক কোন কোন অভিনেতা কলেজ জীবন উপভোগ করার সুযোগ পাননি।

আমির খান
'থ্রি ইডিয়টস' ছবির ফুংসুক ওয়াংড়ুকে মনে আছে? বুদ্ধিদীপ্ত চোখের মিষ্টি ছেলেটি ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ পাশ করে বিজ্ঞনী হয়ে ওঠেন। সেই ফুংসুক ওয়াংড়ু চরিত্রে অভিনয় করছিলেন বলিউডের পারফেকশনিস্ট আমির খান। তবে ছবিতে তিনি যে চরিত্রেই অভিনয় করুন না কেন, ব্যক্তিগত জীবনে কলেজে পড়া হয়নি আমিরের। জানা যায়, স্কুল পাশ করার পরই নাকি বাবা মাকে আমির জানিয়ে দেন যে তিনি কলেজ যেতে চান না। তিনি জানিয়ে দেন তিনি অভিনয় করতে চান, আর সেজন্যই আর কলেজ যেতে চান না। যদিও আমির নিজের জেদ বজায় রেখে অভিনয় জীবনে সাফল্য অর্জন করেছেন।

ক্যাটরিনা কাইফ
বলিউড সুন্দরী ক্যাটও কিন্তু যেতে পারেন নি কলেজের গন্ডি পর্যন্ত। তিনি স্কুল ছেড়ে দেওয়ার পরই মডেলিং স্কুলে ভর্তি হয়ে যান বলে , আর কলেজে ভর্তি হতে পারেননি।

কাজল
'কুছ কুছ হোতা হ্যায় ' ছবিতে শাহরুখ খানের সঙ্গে জুটি বেঁধে কলেজ প্রেম নিয়ে একটা গোটা জেনারেশনকে মাত করে দিয়েছিলেন কাজোল। কিন্তু 'পর্দার' গল্প এক আর 'বাস্তবের' গল্প আরেক! ১৬ বছর বয়সে 'বেখুদি' ছবিটি দিয়ে কাজলের প্রথম বলিউডে পা রাখা। ছবিটি স্কুলের গ্রীষ্মের ছুটির সময় শ্যুট করেছিলে কাজল। পরে ভেবেছিলেন ছবি করতে করতেই কলেজের পড়াশুনোটা চালিয়ে যাবেন। কিন্তু তা আর হয়নি। শেষ পর্যন্ত কলেজে আর যাওয়া হয়নি কাজলের।

আলিয়া ভাট
'স্টুডেন্ট অফ দ্য ইয়ার' ছবি দিয়ে বলিউডে অভিনয়ের অভিষেক হলেও, নিজে কোনও দিনই কলেজের 'স্টুডেন্ট অফ দ্য ইয়ার ' হতে পারেননি আলিয়া। কারণ তিনি নিজে কোনও দিনই কলেজে পড়ার সুযোগ পাননি। ১৮ বছর বয়সেই অভিনয় জীবনে পদার্পণের পর আর লাইমলাইটের ঝলকানি থেকে নিজেকে বার করেননি আলিয়া।

দিপীকা পাড়ুকোন
ব্যাঙ্গালোরের সোফিয়া হাইস্কুলে তাঁর পড়াশোনা। এরপর মাউন্ট কার্মেল কলেজে ভর্তি হন বলিউড ডিভা ডিপস্। কিন্তু সেই সময়ই তিনি মডেলিং এর দিকে মনোনিবেশ করেন বলে দিপীকার পক্ষে আর কলেজে গিয়ে পড়াশুনা এগিয়ে নিয়ে যাওয়া সম্ভবপর হয়ে ওঠেনি। করেসপনডেন্স কোর্সের মাধ্যমে তিনি তখন সোসিওলজি নিয়ে পাশ করেন।

অক্ষয় কুমার
কয়েক মাসের জন্যই তিনি ভর্তি হন কলেজে। তারপর কলেজ ছেড়ে তিনি মার্শাল আর্টসের দিকে মনোনিবেশ করেন। আর সেই রাস্তা ধরেই চলে আসেন বলিউড ফিল্মে। আর ফিল্মে আসার পর থেকে আর ফিরে তাকাতে হয়নি অক্ষয়কে।

কঙ্গনা রানাওয়াত
মেয়েকে ডাক্তার বানাতে চেয়েছিলেন কঙ্গনার বাবা মা । সেজন্য প্রস্তুতিও নিচ্ছিলেন কঙ্গনা। তবে শেষরক্ষা আর হয়নি। ১৬ বছরেই দিল্লির মডেলিং স্কুলে চলে আসেন কঙ্গনা, আর সেখান থেকেই স্বপ্নের উড়ান শুরু হয়। কলেজের পড়াশুনো না করলেও, আজ বলিউডের একজন প্রতিষ্ঠিত ও অন্যতম পরিণত অভিনেত্রী কঙ্গনা।

অর্জুন কাপুর
শোনা যায়, ক্লাস ১২ এর পরীক্ষায় ফেল করেছিলেন অর্জুন। তা নিয়ে খুবই মনমরা ছিলেন প্রযোজক বনি কাপুরের ছেলে অর্জুন। তবে ক্রমেই তিনি বুঝতে পারেন, পড়াশুনোর চেয়ে তাঁর ঢের বেশি আগ্রহ সিনেমাতে। তাই এশিয়ান অ্যাকাডেমি অব ফিল্মস অ্যান্ড টেলিভিশনে ভর্তি হয়ে যান অর্জুন। তারপর আর ফিরে তাকাতে হয়নি এই অভিনেতাকে।

 


মন্তব্য