kalerkantho


বলিউডে নারী নির্মাতাদের লালসার শিকার উঠতি নায়কেরা!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ জুলাই, ২০১৭ ১৫:৫৫



বলিউডে নারী নির্মাতাদের লালসার শিকার উঠতি নায়কেরা!

কাস্টিং কাউচ। শোবিজে খুব প্রচলিত ও পরিচিত শব্দ। বিষয়টি অনেকটাই ওপেন সিক্রেট- হলিউড-বলিউডসহ দুনিয়ার তামাম দেশের ছবিতেই অভিনয়ের সুযোগ দিতে অনেক সময়ে উঠতি নায়িকাদের বিভিন্ন রকমের শত দেওয়া হয়ে থাকে। প্রায় সবক্ষেত্রেই এসব কাণ্ডে অভিযুক্ত হন প্রযোজক কিংবা পরিচালকরা। শর্তগুলোর ক্ষেত্রে শারীরিক চাহিদাটাই থাকে মুখ্য। ওইসব প্রস্তাবের মাধ্যমে শয্যাসঙ্গী হওয়ার কথাই বলা হয় স্টার হওয়ার নেশায় বুঁদ তরুণীদের। সোজা কথায় এটাই হলো ‘কাস্টিং কাউচ’। রূপালী পর্দায় নারীদের অভিনয়ের সুযোগ তৈরি হবে শারীরিক সম্পর্কের বিনময়ে। এটা বেশ আলোচিত ইস্যু।

কিন্তু এবার যুগ পাল্টে গেছে। এবার নারী নির্মাতাদের বিরুদ্ধে উঠেছে কাস্টিং কাউচের কুপ্রথা প্রয়োগের গুরুতর অভিযোগ। সিনেমায় সুযোগ দেওয়ার মাধ্যমে এক পরিচালক শয্যাসঙ্গী হওয়ার প্রস্তাব দিয়েছেন বলিউডের উঠতি নায়ক আশিষ বিস্তকে। অন্তত আশিষ ভারতীয় গণমাধ্যমকে এমনটাই জানিয়েছেন। রাবিনা ট্যান্ডনের বিপরীতে 'সহাব' ছবিতে অভিনয় করেছেন আশিষ।

তিনি অভিযোগ করেন, একাধিক নারী পরিচালক সিনেমায় সুযোগের বিনিময়ে তাকে শয্যাসঙ্গী হওয়ার প্রস্তাব দিয়েছেন। আশিষ দাবি করেন, উঠতি অভিনেতাদের নিজেদের লালসার শিকার বানান নারী পরিচালকরা। এক্ষেত্রে নির্দিষ্ট কারো নাম উচ্চারণ করেননি বলিউডের এই উঠতি অভিনেতা।

আশিষ দাবি করেন, বিখ্যাত এক পোশাক ডিজাইনারও তাকে এমন প্রস্তাব দিয়েছিলেন। সেই পোশাক ডিজাইনার সরাসরিই তাকে সিনেমায় সুযোগের বিনিময়ে শয্যাসঙ্গী হওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিলেন। কিন্তু সেই প্রস্তাবে তিনি সাড়া দেননি বলে জানিয়েছেন।   ‌

‘সাহাব’ ছবিতে কীভাবে সুযোগ পেলেন? এমন কোনো প্রস্তাব মেনে নিয়ে কি? এমন প্রশ্নের জবাবে আশিষ জানান- মেধার ভিত্তিতেই এই ছবিটিতে কাজ করার সুযোগ পেয়েছেন তিনি।

সূত্র- টাইমস অফ ইন্ডিয়া


মন্তব্য