kalerkantho


'বাহুবলীকো কিউ মারা?' (ট্রেলার)

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ মার্চ, ২০১৭ ১৫:৫৩



'বাহুবলীকো কিউ মারা?' (ট্রেলার)

বাহুবলীকে কেন খুন করা হলো? কী তার অপরাধ? তা যদি বলেই দিল, তাহলে হলে যাবে কে? ব্যবসা হবে কী করে? ফলে ট্রেলার লঞ্চে যে সে রহস্য উন্মোচিত হবে না, তা চোখ বুজেই বলা যায়। হলোও তাই। আজ সকালে বাহুবলী ২ এর ট্রেলার লঞ্চের পর দেখা গেল ঠিক তাই। কাটাপ্পা খুন করছে বাহুবলীকে। বাকি জানতে আসতে হবে সিনেমাহলে। তবে মিডিয়া-হাইপে দেশজুড়ে পরিচালক প্রযোজকরা এই প্রশ্ন ছড়িয়ে দিতে সক্ষম, 'বাহুবলীকো কিউ মারা'? এটাই বোধ হয় প্রমোশনের নতুন সংজ্ঞা।
 
ট্রেলারের শুরু হয়েছে অমরেন্দ্র বাহুবলীর শপথগ্রহণ দিয়ে। রাজ্যভার যখন বাহুবলী নিজের হাতে তুলে নিচ্ছেন, সেই দৃশ্য দিয়ে। বাহুবলী বলছেন, যদি মাহেশ্মতী সাম্রাজ্যকে বাঁচানোর জন্য তাকে প্রাণ দিতে হয়, তিনি প্রস্তুত।
 

পরের কাট, মাতা শিবগামী দেবীর পায়ে হাত দিয়ে শপথগ্রহণ। কাট টু কাট, বাহুবলীকে খুনের দৃশ্য।
 

এরপর গল্প চলে গেছে ফ্ল্যাশব্যাকে। জন্ম, শৈশব, কৈশোর, যৌবন, প্রেম, মাহেশ্মতী সাম্রাজ্যের ভারগ্রহণ আর শেষে- 'অন্তর্যুদ্ধ'।
 

এখানেই প্রবেশ আনুশকা শেট্টির। ছবিতে নাম দেবসেনা। তিনিও যোদ্ধা। তার অস্ত্রনৈপুণ্য দেখে প্রেমে পড়ে যান বাহুবলী। মাহেশ্মতী সাম্রাজ্যে প্রবেশ ঘটে দেবসেনার।
 

বাহুবলীর মতো বাহুবলী ২ ছবির VFX-ও অসাধারণ। মাহেশ্মতী সাম্রাজ্যের দৃশ্য থেকে শুরু করে প্রাকৃতিক শোভা, সবেতেই VFX-এর কাজ দেখার মতো। সেই সঙ্গে প্রভাস ও রানা দাগ্গুবতীর অভিনয় তো আছেই। তবে আলাদা করে নজর কাড়বেন অনুশকা শেট্টি।
 

ট্রেলারে তামান্না ভাটিয়ার উপস্থিতি নেই। তবে ছবিতে তিনি আছেন। ছবিটি পরিচালনা করছেন এস এস রাজামৌলি। ২৮ এপ্রিল রিলিজ করছে বাহুবলী : দা কনক্লুশন।


মন্তব্য