kalerkantho


'ডুব' নিষিদ্ধ হওয়া নিয়ে মুখ খুললেন তসলিমা নাসরিন

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৩:৫৮



'ডুব' নিষিদ্ধ হওয়া নিয়ে মুখ খুললেন তসলিমা নাসরিন

খ্যাতিমান পরিচালক মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর বহুল আলোচিত চলচ্চিত 'ডুব' নিষিদ্ধ করেছে সেন্সর বোর্ড। যদিও ফারুকী সোশাল সাইটে এক স্টেটাসে লিখেছেন, এই নিষেধাজ্ঞা সাময়িক। বলিউডের শক্তিমান অভিনেতা ইরফান খান অভিনীত সিনেমাটি নিষিদ্ধ হওয়ার খবরে প্রগতিশীল মহলে সমালোচনার ঝড় উঠেছে। সেই সমালোকদের কাতারে এলেন বিখ্যাত নারীবাদী লেখিকা তসলিমা নাসরিন।

বাংলাদেশ থেকে দীর্ঘদিন ধরে নির্বাসিত এই লেখিকা শনিবার দুপুরে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক আইডি থেকে এই বিষয়ে একটি পোস্ট দেন। পোস্টটিতে উঠে এসেছে তার নিজের বই নিষিদ্ধ হওয়ার বেদনার কথাও। তসলিমা লিখেছেন, "বাংলাদেশে ডুব নামের এক চলচ্চিত্রকে সেন্সর বোর্ড নিষিদ্ধ করেছে। নিষিদ্ধ হওয়ার পক্ষে-বিপক্ষে আলোচনা-সমালোচনা বিতর্ক হচ্ছে। এ নিশ্চয়ই ভালো লক্ষণ। বিতর্ক হলে মানুষ ভাবার সুযোগ পায়। মত প্রকাশের অধিকার সম্পর্কে নিজে কিছু সিদ্ধান্ত নিতে পারে।

ঠিক করতে পারে সে কোন দিকে যাবে, বাক স্বাধীনতার পক্ষে নাকি বিপক্ষে। "

এরপরই লেখিকা নিজের বইয়ের প্রসঙ্গে বলেছেন, "আমার বই যখন একের পর এক নিষিদ্ধ করেছে বাংলাদেশের সরকার, কেউ টুঁ শব্দটি করেনি। দেখে এ রকমই মনে হয়েছে, আমার মত প্রকাশের অধিকারে কেউ বিশ্বাস করে না। যারা মানুষের মত প্রকাশের অধিকারে বিশ্বাস করে, তারা কিন্তু সবার, শত্রু মিত্র সবারই মত প্রকাশের অধিকারে বিশ্বাস করে। মতে বিশ্বাস না করতে পার, কিন্তু মত প্রকাশের অধিকারে তো বিশ্বাস করবে। তুমি যদি 'ক'র বাক স্বাধীনতায় বিশ্বাস করো, কিন্তু 'খ'র বাক স্বাধীনতায় বিশ্বাস না করো, তবে কিন্তু তুমি বাক স্বাধীনতা ব্যাপারটাতেই বিশ্বাস করো না। "

এদিকে ছবিটি নিষিদ্ধ হওয়ার খবরে বিস্ময় প্রকাশ করে প্রধান অভিনেতা এবং সহ-প্রযোজক ইরফান খান বলেছেন, "ছবিটি নিষিদ্ধ করায় আমি সত্যি বিস্মিত হয়েছি। এতে প্রধানত একজন নারী ও পুরুষের জটিল সম্পর্ক ও একটি মানবিক বিষয়ের ওপর ভিত্তি করে নির্মিত। এতে সমাজের কি ক্ষতি হতে পারে? আমার বোধগম্য নয়। "


মন্তব্য