kalerkantho


কে হচ্ছেন মাহিমের নায়িকা!

মাহতাব হোসেন   

১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০৯:৪১



কে হচ্ছেন মাহিমের নায়িকা!

বনেদী পরিবারের ছেলে মাহিম করিম। জন্ম বেড়ে ওঠা ঢাকাতেই।

পুরান ঢাকার বাসিন্দা ব্যবসায়ী মাহিমের চলচ্চিত্রে আসার খবরে ইতোমধ্যে আলোচনা শুরু হয়ে গেছে শোবিজ অঙ্গনে। মডেল অভিনেত্রী-সারিকাকে বিয়ে করে প্রথম আলোচনায় আসেন মাহিম। এবার চলচ্চিত্রে নামার ঘোষণা দিয়ে রীতিমতো চমকে দিয়েছেন দেশীয় সাংস্কৃতিক বলয় সংশ্লিষ্টদের।

সারিকার সাথে দূরত্ব থেকেই চলচ্চিত্রে আসছেন? অথবা সারিকাকে চ্যালেঞ্জ করেই চলচ্চিত্রে পা রাখছেন? এমন প্রশ্নকে মাহিম হেসে উড়িয়ে দিয়ে বলেন, আসলে আমার ফ্যামিলি ব্যাকগ্রাউন্ড সম্পর্কে অনেকেই জানে না। আমার ফুফু অভিনেত্রী রওশন জামিল। আমাদের পরিবার মিডিয়া বান্ধব পরিবার। অনেকেই মিডিয়ার সাথে যুক্ত।   মাহিম বলেন, আসলে আমি নিজেও এই জগতের মানুষ। স্কুল ঠেকে আমি নাচ করতাম।

পারিবারিকভাবে আমাদের বেশ কয়েকটা ব্যবসা। এতোদিন সময় করে উঠতে পারিনি। ব্যাটে বলে মিলে যাওয়ায় এখন মিডিয়ার সাথে নিজেকে যুক্ত করছি।  

নিজের প্রোডাকশন হাউজ থেকে মাহিম অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র নির্মিত হবে। আগামী ৩ মাসের মধ্যে চলচ্চিত্র শুটিং শুরু হবে। মাহিম কালের কণ্ঠকে বলেন, এখন প্রস্তুতি নিচ্ছি। টানা তিনমাস জিমে সময় কাটছে। শরীরকে পুরো শেপে নিয়ে আসবো ইনশাল্লাহ।   নাচের জন্য মুম্বাই যাবো। কেন না আমি নাচতে পারি, সেটাকে আরো মসৃন করতে চাই। যে ড্যান্স ডিরেক্টরের সাথে কথা হয়েছে তাকেও বলেছি, আমাকে যতটা সম্ভব ভাঙতে হবে। নিজেকে ভেঙেই  গড়ে তুলতে চাই।  

ছবির গল্পের ভিত্তি কী? মাহিম বলেন, ছবির মূল গল্প একজন গ্যাংস্টারকে। একই সাথে ছবিতে রোমান্স, প্রেম, রোমাঞ্চ, কমেডির মিশেল থাকবে। সবচেয়ে বড় কথা আমি বাণিজ্যিক ভাবে নেমেছি। ছবিতে আমরা লস করবো না ইনশাল্লাহ।   নায়িকা কে হচ্ছেন? মাহিম কালের কণ্ঠকে বলেন, নায়িকা বাংলাদেশেরও হতে পারেন আবার ভারতেরও হতে পারেন।   ফাইনালি গল্পের সাথে ডিমান্ড করে এমন একজনকেই নেবো।   তবে এখন পর্যন্ত ভারত থেকে নেওয়ার বিষয়টাকে আমরা বেশি গুরুত্ব দিয়ে মাথায় রেখেছি।

ছবি সম্পর্কে বিস্তারিত না বললেও মাহিম জানালেন এই ছবিতে অনেক কিছু চমক থাকবে সেটা রহস্য হিসেবেই থাক। মাহিম করিম বলেন, ছবির মিউজিক একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।   তথাকথিত মিউজিক আমার ছবিতে থাকবে না।   ক্রিয়েটিভ মানুষরাই কাজ করবে। আমার প্রোডাকশন হাউজ থেকে আমি অবশ্যই ক্রিয়েটিভ মানুষদের তুলে ধরার চেষ্টা করবো।  

মাহিমের প্রোডাকশন হাউজের নাম এমকে প্রোডাকশন হাউজ।   শুধু চলচ্চিত্রই নয়।   চলচ্চিত্রের কাজের প্রস্তুতি ইতোমধ্যে শুরু হয়ে গেছে। পাশাপাশি টেলিভিশপন নাটক, মিউজিক ভিডিও এসবও নির্মাণ হবে।   মাহিম বলেন, এখানে শখ বা জেদ নয়, আমি বাণিজ্যিক ও সৃজনশীল উদ্দেশ্য নিয়েই মাঠে নেমেছি। '


মন্তব্য